মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কার্যবিবরণী ও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত

উপজেলা পরিষদ

 জুড়ী, মৌলভীবাজার

 

 

মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলা পরিষদের সাধারণ সভার কার্যবিবরণী -

 

সভাপতি                            ঃ  জনাব গুলশান আরা মিলি, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জুড়ী, মৌলভীবাজার।

সভার স্থান            ঃ  উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ।

সভার তারিখ         ঃ  ০৫.০৯.২০১৬ খ্রি., সময় দুপুর ১২.০০ ঘটিকা ।

সভার উপস্থিতি     ঃ  পরিশিষ্ট ‘ক’ সংযুক্ত।

০১.০০ ঃ বিগত সভার কার্যবিবরণী উপস্থাপন ও অনুমোদন ঃ সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়  কর্তৃক স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। সভায় বিগত ০৮.০৮.২০১৬ খ্রি. তারিখে অনুষ্ঠিত সাধারণ সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা দৃঢ়ীকরণ করা হয়। পঠিত কার্যবিবরণীতে কোনরুপ সংযোজন/সংশোধন না থাকায় তা সর্বসম্মতিক্রমে দৃঢ়ীকরণ করা হয়। কার্যবিবরণীর গৃহীত সিИান্তসমূহের বাস্তবায়ন অগ্রগতি এবং বিবেচ্য সভার আলোচ্য বিষয়সমূহ ধারাবাহিকভাবে উপস্থাপন করা হয়।

০২.০০ ঃ উপজেলা পরিষদ ঃ  (ক ) সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয় অগ্রিম ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা γাপন করেন ।

                (খ) সদ্য যোগদানকৃত সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাছলিমা আক্তার তার পরিচয় সভার কাছে তুলে ধরেন ।

                (গ) বিগত ১৪.০৭.২০১৬ ইং তারিখ জুড়ী উপজেলা বাল্য বিবাহ মুক্ত হওয়ায়  উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, জুড়ী সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ γাপন করেন ।

                (ঘ) সভায় উপজেলা নিবার্হী অফিসার জুড়ী বলেন, উপজেলা পরিষদ আইন, ১৯৯৮ এর ধারা ২৯ (সংশোধিত ২০১১) মোতাবেক পরিষদ কমিটি সমূহের মেয়াদ সর্বোচ্চ ২ বছর ৬ মাস। সে প্রেক্ষিতে বিগত ১২.০৫.২০১৪ খ্রি. তারিখে প্রথম পরিষদ সভায় যে কমিটিসমূহ গঠন করা হয়েছিল অদ্যাবধি উক্ত কমিটি সমূহের মেয়াদ ২ বছর ৪ মাস সম্পন্ন হয়েছে। আগামী ১২.১১.২০১৬ খ্রিঃ তারিখে পূর্ববতী কমিটিসমূহের মেয়াদ শেষ হবে। বিধায় তার পূর্বেই  কমিটিসমূহ পুনঃগঠন করা আবশ্যক।

                (ঙ) ন্যস্তকৃত সকল দপ্তরের আলোচ্য বিষয়সমূহ পরিষদ সভার নিয়মতান্ত্রিকভাবে আলোচনা করার এবং পরিষদ সভাসমূহ ফলপ্রসু ও কার্যকর কার্যকর করার নিমিত্ত প্রতি মাসের ০১ তারিখের মধ্যে ছক মোতাবেক কার্যপত্র প্রস্তুত করে উপজেলা নিবার্হী অফিসারের কার্যালয়ে দাখিল করার জন্য ন্যস্তকৃত ১৭টি বিভাগীয় প্রধানকে পুনঃ অনুরোধপূর্বক সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো অন্যথায় সংশ্লিষ্ট বিভাগের কোন আলোচনা করা হবে না।

বিভাগের নাম       বিগত মাসের সভার সিদ্ধান্ত ও বাস্তবায়ন         আলোচ্য মাসে সংশ্লিষ্ট বিভাগ কর্র্তৃক পরিচালিত সংক্ষিপ্ত বিবরণ ও সমস্যা

   আগষ্ট /২০১৬ খ্রিঃ মাসে অনুষ্ঠিত পরিষদ কমিটির সভার তথ্য নি¤েœ প্রদও হলো-

আগষ্ট /২০১৬ খ্রিঃ মাসের জন্য নির্ধারিত পরিষদ সভাসমূহ

               

সভাপতি

                আগষ্ট /১৬ পরিষদ কমিটির

সভা হয়েছে/হয়নি                কার্যবিবরণী পাওয়া

গেছে/ না

                সেপ্টেম্বর /২০১৬ মাসের জন্য

নির্ধারিত  পরিষদ সভাসমূহ

               

মন্তব্য

 

(ক)মুক্তিযোদ্ধা      ভাইস চেয়ারম্যান               সভা করা হয়নি    না            (ক) আইন-শৃংখলা                আগষ্ট /২০১৬খ্রিঃ মাসে পরিষদ কমিটির কোন সভা অনুষ্ঠিত না হওয়ায় উষ্মা প্রকাশ করা হয়

(খ) মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ      ঐ            ঐ            না            (খ) যোগাযোগ ও ভৌত অবকাঠামো               

(গ) ) পল্লী উন্নায়ন ও সমবায়             ঐ            গভা হয়েছে              কার্যবিবরণী পাওয়া

গেছে       (গ) কৃষি ও সেচ   

(ঘ) সংস্কৃতি           ঐ            ঐ            না            (ঘ) মাধ্যমিক ও মাদ্রাসা শিক্ষা           

(ঙ) পরিবেশ ও বন               মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান    ঐ            না            (ঙ) প্রাথমিক শিক্ষা             

(চ) বাজার মূল্য পর্যবেক্ষণ, মনিটরিং

    ও নিয়ন্ত্রণ           ঐ            ঐ            না            (চ) স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ               

(ছ) অর্থ, বাজেট, পরিকল্পনা ও

     স্থানীয় সম্পদ আহরণ      ঐ            ঐ            না            (ছ) যুব ও ক্রীড়া উন্নয়ন    

(জ) জনস্বাস্থ্য, স্যানিটেশন ও বিশুদ্ধ

     পানি সরবরাহ  ঐ            ঐ            না            (জ) মহিলা ও শিশু উন্নয়ন  

(ঞ) সমাজকল্যাণ ঐ            ঐ            না                           

 (চ) উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান, বিভিন্ন অফিসের ওয়েব পোর্টালে তথ্যাদি নিয়মিত হালনাগাদ করা হয় না। ওয়েব পোর্টাল আপডেট রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ঠ অফিস প্রধানকে পুনঃ অনুরোধ জানানো হলো এবং পরিষদে ন্যস্তকৃত প্রত্যেকটি দপ্তর মাসিক সভায় ০১টি করে ইনোভেশন কার্যক্রমের আলোচনা করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এ মাসে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে কৃষি সংক্রান্ত ই-কৃষিসেবা প্রদর্শন করায় পরিষদের পক্ষ হতে ধন্যবাদ γাপন করা হয়।

 

                (ছ) সভায় উপস্থাপন করা হয় যে, জুড়ী উপজেলায় বাল্য বিবাহ শুন্যের কোটায় নিয়ে আসার নিমিত্ত উপজেলা প্রশাসনের সকল কর্মকর্তা, উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদের সহযোগিতায় প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণসহ বাল্যবিবাহ প্রতিরোধকল্পে ওয়ার্ড পর্যায়, ইউনিয়ন পর্যায়ে ও উপজেলা পর্যায়ে সমাজের প্রত্যেকটি অঙ্গনের সদস্যদের সম্পৃক্ততায় বাল্যবিবাহ নিরোধ সংক্রান্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতায় বিগত ১৪/০৭/২০১৬ খ্রি. তারিখে জুড়ী উপজেলাকে বাল্য বিবাহমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত সকল ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন কমিটিকে আরো গতিশীল করার জন্য  এবং  তথ্যাবলী আগামী সভায় উপস্থাপনের জন্য অনুরোধ জানান। আগষ্ট/২০১৬ মাসে এ উপজেলায় কোন বাল্যবিবাহ সংগঠিত হয়নি বলে সকল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান একমত প্রকাশ করেন।

 

(জ) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ০৮ আগষ্ট ২০১৬ খ্রি. তারিখের ৭৩২নং স্মারকের পরিপত্র মোতাবেক উপজেলা পর্যায়ে মাসের দ্বিতীয় বৃহস্পতিবার উন্নয়ন/সমন্বয় বিষয়ক সভাসমূহ অনুষ্ঠিত হবার নির্দেশনা রয়েছে। সে মোতাবেক অক্টোবর মাসের পরিষদ সভা ১৩ অক্টোবর, ২০১৬ খ্রি. তারিখে অনুষ্ঠিত হবে। 

 

০৩.০০ ঃ স্বাস্থ্য বিভাগ ঃ  উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, জুড়ী বলেন, জুড়ী উপজেলাধীন পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়নের বাছিরপুরে নির্মাণাধীন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নির্মাণ কাজ চলছে। অন্যান্য বিভাগীয় কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলমান।তিন আরো জানান যে, জুড়ী,উপজেলাধীন জায়ফরনগর ও পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়নের হাকালুকি হাওরের অংশে ইপিআই কার্যক্রম আরো জোরদার করার নিমিত্ত এডিপি’র বরাদ্দ থেকে ০১টি নৌকা ক্রয়ের অনুরোধ জানান এবং জন্ম, মৃত্যুও বিবাহ সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ ও সংকলন কার্যে প্রয়োজনীয় সমন্বয় সাধন ও তত্ত্বাবধানকল্পে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

 

০১          (ক) স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও কমিউনিটি ক্লিনিক সমূহে স্বাস্থ্য সেবা উন্নত করার জন্য এবং স্বাস্থ্য সেবায় নিয়োজিতদের উপস্থিতি ও সেবা প্রদান নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণসহ উপজেলা পরিষদ কমিটির সভা আহ্বানপূর্বক সভার প্রস্তাবনা আগামী সভায় উপস্থাপনের জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।               

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা, জুড়ী

০৪.০০ ঃ  কৃষি  বিভাগ ঃ উপজেলা কৃষি অফিসার বলেন, রবি/২০১৬-২০১৭ মৌসম ও পরবর্তী তারিখ-১ মৌসমে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের প্রনোদনা কর্মসুচির আওতায় বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণের জন্য বোরো ১৫০ মণ ও মুগ ডাল ৩০ মণ বীজের বরাদ্দ পাওয়া গিয়াছে। উপজেলা কৃষি পুনর্বাসন ও বাস্তবায়ন কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইউনিয়ন ওয়ারী বিভাজন করে প্রেরণ করা হয়েছে। ইউনিয়ন কৃষি পুনর্বাসন ও বাস্তবায়ন কমিটির অনুমোদিত অগ্রাধিকার তালিকা মোতাবেক কৃষকের মধ্যে উপকরণ বিতরন করা হবে। আলোচনায় অংশগ্রহণ করে পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব শ্রীকান্ত রায়  বলেন, উপজেলা কৃষি বিষয়ক কোর কমিটির মাধ্যমে কৃষকের মধ্যে যে সেচ পাম্প প্রদান করা হয়েছে তাহা দিয়ে মাছ শিকার কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে এ ব্যাপারে কার্যকর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করেন।

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

০১         

(ক) উপজেলা কৃষি পুনর্বাসন ও বাস্তবায়ন কমিটির সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে ও তদারকিতে সংশ্লিষ্ট সকলকে আরো আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।

(খ) পূর্ববতী বছরে এডিপি এবং এলজিএসপি এর অর্থায়নে ক্রয়কৃত পাম্পসমূহের সঠিক রক্ষনাবেক্ষণ জামানত ও সার্ভিস চার্জ সঠিকভাবে নিদিষ্ট তহবিলে জমা প্রদানকরা হয়েছে কিনা তাহা আগামী পরিষদ সভায়  উপস্থাপনের জন্য উপজেলা কৃষি কর্মকর্তাকে অনুরোধ জানিয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।               

১.উপজেলা কৃষি

   অফিসার, জুড়ী।

২.চেয়ারম্যান,ইউপি

   (সকল)

০৫.০০ ঃ প্রাণী সম্পদ বিভাগ ঃ  উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা জানান যে, পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে প্রতিনিয়ত প্রত্যেকটি বাজার মনিটরিং করা হচ্ছে এবং বাজারে কোন পশু আক্রান্ত হলে সাথে সাথে তা সরিয়ে দেয়া হচ্ছে এবং এ ধারা  ঈদ- উল-আযহার পর পর্যন্ত  চলমান থাকবে। অন্যান্য বিভাগীয় কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলমান।  আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা নিবার্হী অফিসার, জুড়ী বলেন কুরবানীর পশু মোটাতাজাকরণে যাতে হরমোন ষ্টেরয়েড ব্যবহার না করা হয় সে বিষয়ে সচেতনামূলক কার্যক্রম গ্রহণের এবং এ বিষয়ে মনিটরিং করার জন্য উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে অনুরোধ করেন।

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

০১          (ক) সেবা কার্যক্রম আরো গতিশীল করাসহ বাজারে গরু জবাইর পূর্বে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের নিকট হতে একটি প্রত্যয়নপত্র নেয়ার জন্য এবং বাজারে স্টেয়ারেড রোগক্রান্ত পশু জবাই না হয় সে দিকে লক্ষ্য জন্য উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাকে  অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

               

উপজেলা প্রাণীসম্পদ অফিসার, জুড়ী।

০৬.০০ ঃ স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ ঃ  আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা প্রকৌশলী জানান যে,২০১৬-১৭ অর্থ বŤসরে উপজেলা পরিষদ উন্নয়ন কাজের জন্য তালিকাভুক্ত ঠিকাদার নবায়ন এবং নতুন ঠিকাদার অন্তর্ভূক্তকরণ করা প্রয়োজন এবং ২০১৬-১৭ অর্থ বŤসরে এডিপির ১ম কিস্তির বরাদ্দ পাওয়া গিয়াছে সকল ইউপি চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে তালিকা প্রেরনের জন্য অনুরোধ জানান । উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন অফিসের বিদ্যুŤ মিটার না থাকায় কিছু অফিসের বিদ্যুŤ বিল আশংকাজনকভাবে বেশি আসছে। সংশ্লিষ্ট অফিসের পক্ষে এ বিশাল বিল পরিশোধ করা সম্ভব নয়। এরুপ অফিসের বিদ্যুŤ মিটার আলাদা হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত বকেয়া বিদ্যুŤ বিল পরিশোধের লক্ষ্যে তদন্ত কমিটি মোতাবেক মিটারে সংযুক্ত অফিসের জায়গা অনুপাতে টাকা প্রদানপূর্বক সম্মলিতভাবে বিদ্যুŤ বিল পরিশোধ করার অনুমোদন প্রয়োজন। (১) উপজেলা সমবায়, সমাজসেবা এবং একটি বাড়ী একটি খামার অফিসের জন্য জরুরী ভিত্তিতে বাথরুম মেরামত, পেইন্টিং এবং আনুসাংগিক কাজ বাবদ ১,৩৮,০০০+২৫,০০০=১,৬৩,০০০/=টাকা প্রয়োজন ।(২) উপজেলা হিসাব রক্ষণ অফিসে ২টি নতুন ফ্যান,১টি ফ্যান মেরামত এবং আনুসাংগিক কাজ বাবদ ৭,০০০/=টাকা প্রয়োজন।(৩) উপজেলা পরিষদের প্রশাসনিক ভবনের পানির ট্যাংক পরিস্কারকরণ, কলাপ্সিবল গেইট মেরামত এবং আনুসাংগিক কাজ বাবদ ১০,০০০/=টাকা প্রয়োজন।(৪) মাধবটিলা রাস্তায় এবং শহীদ জোয়াদ আলী রাস্তায় জলাবদ্ধতা নিরসনে ২.৫০ মিঃ কালভাট প্রয়োজন।(৫) উপজেলা পরিষদের অভ্যন্তরে জঙ্গল পরিস্কার ও রাস্তার পাশের ঘাস পরিস্কার জন্য ১০.০০০/=(দশ হাজার টাকা) প্রয়োজন।(৬)  পূর্বজুড়ী ইউনিয়নের ২০০ফুট সিমানা প্রাচীর নির্মাণ করার জন্য ২,৫০,০০০/= টাকা প্রয়োজন।(৭) উপজেলা পরিষদের মূল ২টি ফটকের মেরামত বাবত ২,৫০০/= (দুই হাজার পাঁচশত টাকা) প্রয়োজন। (৮) সোনারুপা চা-বাগান হইতে ফ্যাক্টরী পর্যন্ত ২০০ মিঃ ইট সলিং এর জন্য ২,০০,০০০/= টাকা প্রয়োজন।(৯) ) চেয়ারম্যান পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়ন পরিষদ বলেন, ভবানীগঞ্জবাজারে পানি নিষ্কাশনের জন্য ১০০ ফুট ড্রেইন নির্মাণ প্রয়োজন। (১০) চেয়ারম্যান ফুলতলা ইউপি বলেন, ফুলতলা বাজারে মাছ বাজারের জন্য দুইটি চালা ঘর নিমার্ণ প্রয়োজন যার আনুমানিক ব্যায় ৪ (চার) লক্ষ টাকা।

 

(১১) গোয়ালবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, গোয়ালবাড়ী বাজারে দুইটি চালাঘর নিমার্ণ প্রয়োজন ব্যায় হবে প্রায় ৪ (চার) লক্ষ টাকা যাহা পরিষদের রাজস্ব তহবিল হতে ব্যয় নির্বাহ করার জন্য অনুরোধ করা হয়। উপসহকারী প্রকৌশলী, বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ, বিউবো,কুলাউড়া কর্তৃক দাখিলকৃত ০৮.০৮.১৬ খ্রিঃ তারিখের প্রতিবেদন সভায় উপস্থাপন করেন এবং জানান যে, উপজেলা পরিষদ প্রশাসনিক ভবনে ২৪টি অফিসের মধ্যে ১১ টি অফিসের বৈদ্যুতিক মিটার আছে, তন্মধ্যে ০৪ টি বৈদ্যুতিক মিটারে অন্যান্য অফিসের সংযোগ রয়েছে। যাহা নি¤œরূপ-                                                                                                                               

 

ক্রঃনং     মিটার নং               অতিরিক্ত সংযোগ

০১          মিটার নং- ই-৩২১৭৩২-উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়   উপজেলা চেয়ারম্যান এঁর অফিস

০২           মিটার নং- ই-২৩৯৪৭১- উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয়                ১. উপজেলা ভূমি অফিসের রেকর্ড রুম ২. মৎস্য অফিস ৩. সমবায় অফিস ৪. পল্লী উন্নয়ন অফিস ৫. মহিলা বিষয়ক অফিস ৬.আনসার ভিডিপি অফিস  ৭. হল রুম

০৩         মিটার নং- ০০৭২৭৯-উপজেলা কৃষি অফিসারের কার্যালয়            ১. সভা কক্ষ ২.ভাইস চেয়ারম্যান ৩.মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান  ৪.উপজেলা হিসাব রক্ষণ অফিস

০৪          মিটার নং- ০০০১৭৪১৯-একটি বাড়ী একটি খামার       প্রাণি সম্পদ অফিস

০৫          মিটার নং- ই-১৪০১৫০-উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়    

০৬         মিটার নং- ই-৩২১৭৭৪-উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়   

০৭           মিটার নং- ০৬০৫৫৬- উপজেলা শিক্ষা অফিসারের কার্যালয়     

০৮         মিটার নং- ই-১২৬৮৮৪-উপজেলা ভূমি অফিস             

০৯          মিটার নং- ই-১১২২৬৭-উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়               

১০          মিটার নং- ই-৩১৮১০৭-উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তার কার্যালয়          

১১           মিটার নং- ই-৪০১৬৭-সেটেলমেন্ট অফিস      

 

(ক) বাসাবাড়ী সংক্রান্ত ঃ আলোচনায় অংশগ্রহণ করে, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ ১ম শ্রেণীর বিভিন্ন কর্মকর্তা সরকারী বাসা খালি রেখে ব্যক্তিমালিকানাধীন বাসায় অবস্থান করায় উষ্মা প্রকাশ করেন। তিনি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের স্মারক নং-০৪.০০.০০০০.৫১২.৮২.০২৬.১৪-১৪৫ তারিখ-৩১ মার্চ এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পত্র সংখ্যা ০৩.০৭৩.০২৭.২৫.০০.০০১.২০১৬-৯৩ তারিখ-২৩ মার্চ ২০১৬ খ্রিঃ মূলে প্রাপ্ত পত্র ০২টি সভায় উপস্থাপনপূর্বক পত্রের নির্দেশনা অনুযায়ী “ উপজেলা পর্যায়ের সরকারি বাসাগুলো যাতে খালি না থাকে সে লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক সদয় অনুমোদিত প্রস্তাব মোতাবেক সরকারি কর্মকর্তা/কর্মচারীদের মধ্যে প্রয়োজনীয়তা ও জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে বরাদ্দ প্রদানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ এবং পরিষদের সরকারী বাসায় বসবাসরত সকল কর্মকর্তা/কর্মচারীর বাসাভাড়া নিয়মিত আদায়পূর্বক কোষাগারে জমা প্রদানের বিষয়ে  নিয়মিত মনিটরিং এবং এ ব্যাপারে হালনাগাদ তথ্য আগামী সভায় উপস্থাপনের জন্য উপজেলা প্রকৌশলীকে অনুরোধ করেন।

উপজেলা প্রকৌশলী বলেন, বিগত ০৯.০৫.১৬ খ্রিঃ তারিখ পরিষদ সভায় উপজেলা পরিষদের অন্তর্ভূক্ত ১৭ টি অফিস/কার্যালয় বহির্ভূত অন্যান্য অফিস জাতীয় সরকারের সংরক্ষিত (জবঃধরহবফ) কার্যক্রমের অংশ হওয়ায় বর্ণিত অফিসগুলির ভাড়া আদায়পূর্বক পরিষদের রাজস্ব তহবিলে জমা করতঃ প্রমাণক নিরীক্ষা অধিদপ্তরে প্রেরণ করার পরবর্তী কার্যকর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা প্রকৌশলীকে অনুরোধ করা হলে পরিষদে ন্যস্তকৃত ১৭ টি অফিস বহির্ভূত অন্যান্য অফিসগুলোর প্রতিবর্গফুট ১/= টাকা হারে মাসিক ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে যা নিুরূপ-

 

ক্রঃ নং   

বিভাগের নাম      

অফিস কর্তৃক ব্যবহৃত জায়গার পরিমান          মাসিক ভাড়া

(প্রতি বর্গফুট ১/= টাকা হারে )

০১          উপজেলা ভূমি অফিস           ২,০২৫ বর্গফুট       ২,০২৫/=

০২           উপজেলা নির্বাচন অফিস    ১,২২০ ” ১,২২০/=

০৩         উপজেলা হিসাব রক্ষণ অফিস             ৬৮৯ ”  ৬৮৯/=

০৪          সেটেলমেন্ট অফিস               ১,০১৬ ”                ১,০১৬/=

০৫          উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিস    ৭২০ ”     ৭২০/=

 

বিস্তারিত আলোচনান্তে উপজেলা প্রশাসনিক ভবনে পরিষদে ন্যস্তকৃত ১৭ টি বিভাগ বহির্ভূত উপরোক্ত অফিসগুলোকে বকেয়া ভাড়া পরিশোধপূর্বক নিয়মিত ভাড়া উপজেলা রাজস্ব তহবিলে জমা করতঃ জমার রশিদ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে দাখিল করার জন্য সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো। আগামী সভার পূর্বেই গঠিত ০৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি অগ্রগতি প্রতিবেদন সভায় উপস্থাপন করবেন। উপজেলা প্রকৌশলী রাজস্ব আদায়ের স্বার্থে মাসওয়ারী অগ্রগতি প্রতিবেদন সভায় উপস্থাপন করবেন মর্মে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

                (ক) উপরোক্ত প্রকল্প সমূহ সরেজমিনে যাচাইপূর্বক বিধি মোতাবেক প্রাক্কলন তৈরি করে পরর্বতী সভায় উপস্থাপনের জন্য উপজেলা প্রকৌশলী, জুড়ীকে  অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

(খ) উপজেলা প্রশাসনিক ভবনে পরিষদে ন্যস্তকৃত ১৭ টি বিভাগ বহির্ভূত উপরোক্ত অফিসগুলোকে বকেয়া ভাড়া পরিশোধপূর্বক নিয়মিত ভাড়া উপজেলা রাজস্ব তহবিলে জমা করতঃ জমার রশিদ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে দাখিল করার জন্য সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।

(গ) স্ব স্ব অফিসের আলাদা বৈদ্যুতিক মিটার সংযোগ করতে হবে এবং স্ব স্ব অফিসকেই বৈদ্যুতিক বিল পরিশোধ করতে হবে মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বিদ্যুৎ বিভাগকে এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদানের অনুরোধ জানিয়ে এ বিষয় আগামী সভায় অগ্রগতি প্রতিবেদন সকল অফিস প্রধানের সাথে সমন্বয় পূর্বক উপজেলা প্রকৌশলীকে উপস্থাপনের অনুরোধ জানিয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

(ঘ) উপজেলা পরিষদের অভ্যন্তরে জঙ্গল পরিস্কার ও রাস্তার পাশের ঘাস পরিস্কার জন্য ১০,০০০/=(দশ হাজার টাকা) ব্যয় নির্বাহের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

(ঙ) উপজেলা পরিষদের মূল ২টি ফটকের  মেরামত বাবত ৩,০০০/= (তিন হাজার) ব্যয় নির্বাহের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।   

 

উপজেলা প্রকৌশলী, জুুড়ী।                                                                                                                              

০৭.০০ প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ  ঃ উপজেলা শিক্ষা অফিসার অনুমোদনক্রমে সভায় অনুপস্থিত।

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

০১          (ক) নতুন করে এসএমসি কার্যক্রম চালু করার ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

(খ) বিভিন্ন বিদ্যালয় নিয়মিত পরিদর্শন/মনিটরিং এবং প্রাথমিক শিক্ষকগণের সমন্বয়ে নিয়মিত মাসিক সভা করার কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

                উপজেলা শিক্ষা

কর্মকর্তা

০৮.০০ ঃ উপজেলা মৎস্য বিভাগ ঃ উপজেলা মৎস্য অফিসার বলেন যে, ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে খাস সরকারি জলাশয় ও প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে রাজস্ব তহবিল হতে ৪০৭ কেজি এবং উন্নয়ন তহবিল হতে ৬৫৬ কেজি পোনা অবমুক্ত করা হয়। প্রতি ইউনিয়নের প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে অবমুক্তকরণের নিমিত্ত ১০ কেজি করে পোনা মাছ প্রদানের নিদের্শনা প্রদান করায়  চেয়ারম্যান, পূর্বজুড়ী ইউপি সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান। অন্যান্য বিভাগীয় কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলমান।

           

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

 

০১          (ক) হাওড়ে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করার এবং ডিম ওয়ালা মা মাছ ও মাছের পোনা নিধন না করার জন্য মৎস্য সম্পদ রক্ষা ও মৎস্য সংরক্ষণ আইনের আওতায় কার্যকর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

               

 

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, জুড়ী             

 

০৯.০০ ঃ উপজেলা সমাজসেবা বিভাগ ঃ  উপজেলা সমাজসেবা অফিসার বলেন, চা-শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে জুড়ী উপজেলার চা-শ্রমিকদের জন্য ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে খাদ্য সহায়তা বাবদ ২,০৯০ জনের মাঝে ৫,০০০/= (পাচঁ হাজার) টাকার সামগ্রী সুষ্ঠুভাবে বন্টন করা হয়েছে। অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলমান আছে। আলোচনায় অংশ গ্রহন করে চেয়ারম্যান, ফুলতলা ইউপি বলেন, ফুলতলা ইউনিয়নের বিধবা ভাতা কৃষি ব্যাংক জুড়ী থেকে স্থানান্তরিত করে ফুলতলা অগ্রণী ব্যাংকে নেয়ার ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা সমাজসেবা অফিসারকে অনুরোধ জানান।

ক্রঃনং     ডসদ্ধান্ত  বাস্তবায়নে

০১          (ক) বয়স্ক/বিধবা/প্রতিবন্ধী/মুক্তিযোИা সাহ সকল ধরনের ভাতা যাতে  সঠিক সময়ে সুষ্ঠুভাবে সম্পাদিত হয় এবং নিয়মিত মনিটরিং করার জন্য উপজেলা সমাজসেবা অফিসারকে অনুরোধ জানিয়ে  সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় ।

(খ) ) চা শ্রমিক ও নৃত্ত্বাত্তিক জনগোষ্ঠির নগদ আর্থিক সাহায্য প্রদানসহ তার দপ্তরের অন্যান্য সভাসমূহ সঠিক সময়ে আহ্বানের জন্য উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তাকে অনুরোধ জানিয়ে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

               

উপজেলা সমাজসেবা অফিসার, জুড়ী                                                                                                                                                           

১০.০০ প্রকল্প বাস্তবায়ন বিভাগ ঃ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জানান, পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে দুস্থ/অসহায়/দরিদ্র পরিবারের মাঝে বিনামূল্যে বিতরণের জন্য ১০ কেজি হারে মোট ৯১.৯২০ মেঃ টন ভিজিএফ চাল ইউনিয়নওয়ারী বিভাজন পূর্বক সুবিধাভোগীর তালিকা সংশ্লিষ্ট সকল ইউনিয়ন হতে পাওয়া গিয়াছে। পবিত্র ঈদ-উল-আযহার পূর্বেই বিতরণ নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের ট্যাগ অফিসার ও ইউপি চেয়ারম্যানদের সহযোগিতা কামনা করেন। ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরের গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণা-বেক্ষণ (টিআর) গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কার (কাবিখা/কাবিটা) এবং অতিদরিদ্রের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচি (ইজিপিপি) প্রকল্পসমূহের চুড়ান্ত সমাপ্তি প্রতিবেদন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর প্রেরণের কাজ প্রক্রিয়াধীন। ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে বরাদ্দকৃত সেতু/কালভার্টের কাজ চলমান আছে এবং ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরের সেতু/কালভাটের অগ্রাধিকার তালিকা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর প্রেরণ করা হয়েছে।

ক্রঃনং     ডসদ্ধান্ত  বাস্তবায়নে

০১          (ক) আসন্ন শারদীয় দূর্গাপুজা উপলক্ষে মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রেরিত খাদ্যশস্য যাতে সঠিক সঠিক ভাবে পুজা মন্ডপের অনুকূলে বরাদ্দ প্রদানের নিশ্চিত করনের জন্য প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

(খ) প্রকল্প বাস্তবায়ন অগ্রগতি প্রতিবেদন “ উপজেলা ওয়েব পোর্টাল ” এ নিয়মিত আপলোড করাসহ দ্রত পরিষদ কমিটির সভা আহ্বান পূর্বক সভার প্রস্তাবনা উপস্থাপনের জন্য উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

(গ) উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে সর্বশেষ জারীকৃত পরিপত্র মোতাবেক নিয়মিতভাবে দাপ্তরিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম সম্পাদনের অনুরোধ জানিয়ে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

(ঘ) যে সকল কর্মকর্তা অন্য উপজেলায় অতিরিক্ত দায়িত্বে নিয়োজিত আছেন তাদের স্ব স্ব কর্তৃক সপ্তাহের নির্ধারিত দিনে অফিসে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।               

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, জুড়ী

 

১১.০০ ঃ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ ঃ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার বলেন, অত্র উপজেলায় ২০টি স্যাটেলাইট ক্লিনিকের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ে মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবা প্রদান এবং ১৬ টি কমিউনিটি ক্লিনিকে সপ্তাহে ০৩ দিন পরিবার পরিকল্পনা সহকারীগণ বাড়ি বাড়ি পরিদর্শনের মাধ্যমে সেবা প্রদান করছেন এবং জন্ম নিয়ন্ত্রণ সামগ্রী বিতরণ করছেন। তথ্য,পরিকল্পনা ও বাজেট বই ২০১৫-২০২০ এর ৪১নং পৃষ্ঠার ২নং মোতাবেক খাবার বড়ি ৯,২৫০,কনডম,১,৩২১,ইনজেকশন ৩,৭৪৪, বরাদ্দ প্রদানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পরিষদকে অনুরোধ করেন।

ক্রঃনং     ডসদ্ধান্ত  বাস্তবায়নে

০১          (ক)         গর্ভবতী মহিলাগণের উদ্ধুদ্ধকরণ সভাসহ বিভাগীয় কার্যাদি সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনপূর্বক নিয়মিত মনিটরিং করার, মাঠকর্মীদের নিয়মিত তদারকি করার এবং পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি বস্তি, ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় ঝটিকা কর্মসূচি গ্রহণের অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 (খ)  জায়ফরনগন ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের সম্মুখভাগ মাটি ভরাট এবং পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রের চারদিকের কাটা তারের বেড়া প্রদানের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর এবং চেয়ারম্যান পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি কে অনুরোধ জানানো হলো

               

পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, জুড়ী

১২.০০ ঃ সমবায় বিভাগ ঃ উপজেলা সমবায় অফিসার (ভাঃ) জানান, জনাব নিখাত সুলতানা উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা বর্তমানে প্রধান কার্যালয়ে সংযুক্ত আছেন। উপজেলায় ৮১ টি প্রাথমিক সাধারণ সমবায় সমিতি রয়েছে, ইতোমধ্যে কন্টিনালা রাবারড্যাম সমবায় সমিতি এর নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। সামাজিক সেবা উদ্ভাবন ও সেবা সহজীকরণ এর লক্ষ্যে প্রত্যয় সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি লি. সদস্যদের জীবন মান উন্নয়নের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। 

 

ক্রঃনং     ডসদ্ধান্ত  বাস্তবায়নে

০১          (ক)         সরকারী প্রমাপ মোতাবেক সমবায় সমিতির পরিদর্শন ও সমস্যার বিষয়ে পরিষদকে অবহিত করবেন মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

(খ)          সমবায় সমিতির ম্যানেজার/সভাপত্বি সহিত উঠান বৈঠক বাড়াতে হবে মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

              

উপজেলা সমবায় অফিসার, জুড়ী

১৩.০০ ঃ উপজেলা পল্লী উন্নয়ন বিভাগ  ঃ  উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা জানান, ঋণ আদায়ের নিমিত্ত নোটিশসহ তাগিদ প্রদান করা সত্ত্বেও ঋণ আদায় করা যাচ্ছে না। এ সময় আলোচনায় অংশগ্রহণ করে পূর্বজুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান বলেন,  ঋণ দেয়ার আগে আমাদেরকে অবহিত করা হয় না। ঋণ  দেয়ার পূর্বে হঠাৎ করে বলা হয় আপনার ইউনিয়নে ঋণ দেয়া হবে। তাই আমরা ভালো/মন্দ যাচাই করতে পারি না। পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা ঋণ আদায়ে ইউপি চেয়ারম্যানগণকে সহযোগিতা করার জন্য অনুরোধ করেন।

ক্রম পুঞ্জিভূত ঋণ বিতরণ    ক্রমপুঞ্জিভূত ঋণ আদায়       আদায়ের হার

১৪.৩০ লক্ষ           ৫.১২ লক্ষ               ৩৬%

                               

ক্রঃনং     ডসদ্ধান্ত  বাস্তবায়নে

 

০১         

ঋণ আদায়ের জন্য এ সংক্রান্ত পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় সংক্রান্ত  উপজেলা পরিষদ কমিটির সভা আহ্বানপূর্বক বিধিমোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা, জুড়ীকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।

 

               

 

 উপজেলা পল্লী উন্নয়ন

    কর্মকর্তা, জুড়ী

 

 

১৪.০০ ঃ পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক জুড়ী  ঃ  ঃ শাখা ব্যবস্থাপক পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক জুড়ী জানান যে, ০১ জুলাই হতে একটি বাড়ী একটি খামার প্রকল্প পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক নামে তাহাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

 

 

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

 

 

০১         

(ক)         ঋণ আদায়ের হার ৪৮.৩৫% যাহা কোন ভাবে কাম্য নয়। ঋণ আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা বাড়ানোর পরবর্তী কার্যকর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানিয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।

(খ)          সমিতির ম্যানেজার ও সভাপতির স¤œয়ে নিয়মিত ভাবে উঠান বৈঠক সম্পাদন করতে হবে এবং Ĺন আদায় বাড়াতে হবে।

(গ)          ঋণ আদায়ে মাঠ সহকারী ও সমন্বয়কারীকে আরো তৎপর এবং ঋণ বিতরণের কার্যক্রমে সংশ্লিষ্ট ইউ পি চেয়ারম্যানগণকে সম্পৃক্ত করার জন্য অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ঋণ আদায়ের হার বৃদ্ধিকল্পে মাঠ সহকারী ও ফিল্ড সুপারভাইজারদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদানের অনুরোধ জানিয়ে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

               

 

১. উপজেলা নির্বাহী 

    অফিসার, জুড়ী।

২. শাখা ব্যবস্থাপক পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক জুড়ী

 

 

 

 

 

চলমান পাতা ০৬

 

( পাতা ০৬ )

 

১৫.০০ ঃ মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ঃ  উপজেলা  মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, জুড়ী বলেন যে, ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে জুড়ী উপজেলায় প্রতি ইউনিয়নে ৭৮ জন করে গর্ভবতী মহিলাকে মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদান করা হবে। সকল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানকে তালিকা প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হয়। এবং গর্ভবতী মহিলাদেও  স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য প্রতি ইউনিয়নে ১ জন করে স্বাস্থ্যকর্মী উপস্থিত রাখার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তাকে অনুরোধ জানান। 

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে পূর্বজুড়ী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, অতীতে মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদানে অনেক অনিয়ম হয়েছে এগুলোা যাহাতে না হয় এবং মহিলাদেরকে ইউনিয়ন পরিষদ অথবা কমিউনিটি ক্লিনিকে নিয়ে গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষার বিষয় সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।   

                                                                                       

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

 

০১          (ক) মহিলাদেরকে ইউনিয়ন পরিষদ অথবা কমিউনিটি ক্লিনিকে নিয়ে গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে  অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

               

০১.উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা

.০২. চেয়ারম্যান, ইউপি(সকল), জুড়ী

 

১৬.০০ ঃ বন বিভাগ ঃ বন রেঞ্জ কর্মকর্তার প্রতিনিধি জনাব শ্যামল রায়, সহকারী বন কর্মকর্তা, জুড়ী সভায় উপস্থিত থেকে বলেন যে, ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে লাঠিটিলায় ২০ হেক্টর জমিতে স্বল্প মেয়াদি বাগান সৃজন করা হয়েছে। উপকারভোগী নিয়োগের প্রক্রিয়া চলমান আছে। সভায়  উপজেলা পরিবেশ ও বন উন্নয়ন কমিটি ও উপজেলা পরিষদ কমিটির সভা আহ্বান করার এবং পরিষদ সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকার জন্য রেঞ্জ কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়।

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

 

০১          (ক) সাধারণ সভায় নিয়মিত উপস্থিতসহ উপজেলা পরিবেশ ও বন উন্নয়ন কমিটি এবং উপজেলা পরিষদ কমিটির সভা আহ্বানপূর্বক সভার প্রস্তাবনা আগামী সভায় উপস্থাপনের জন্য বন রেঞ্জ কর্মকর্তা, জুড়ীকে পুনঃ অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

                 বন রেঞ্জ কর্মকর্তা, জুড়ী

 

১৭.০০ ঃ জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর ঃ উপ সহকারী জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীর প্রতিনিধি জনাব রুপক দে, ফিল্ড সুপারভাইজার বলেন যে,  ২০১৬-১৭ অর্থ বছরের জন্য ৪০টি পানির উৎস বরাদ্দ পাওয়া গেছে। গত ০২/০৮/১৬ খ্রিঃ তারিখ উপজেলা পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন (ওয়াটসন)  কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওয়াটসন কমিটির সভার সিদ্ধান্তের মাধ্যমে নীতিমালা অনুযায়ী বন্টন/স্থান নির্মাণ/সহায়ক চাঁদা সংগ্রহপূর্বক ০৪/০৮/১৬ খ্রিঃ তারিখ জেলা পর্যায়ে টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়েছে। ৪০ টি পানির উৎস স্থাপনের অগ্রগতি প্রতিবেদন আগামী সভায় উপস্থাপনের অনুরোধ জানানো হয়।

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

 

০১          (ক) প্রাপ্ত পানির উৎস সমূহ ওয়াটসন কমিটির মাধ্যমে স্থান নির্বাচন করে দ্রত নলকুপ স্থাপন এবং উপকারভোগী ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠান এবং স্কুলের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদকের কোন প্রত্যয়ন পাওয়া সাপেক্ষে ঠিকাদারের বিল পরিশোধের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপসহকারী প্রকৌশলী, জনস্বাস্থ্যকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।

(খ) জনস্বাস্থ্য বিভাগের মাধ্যমে উন্নয়ন কার্যক্রম সংশ্লিষ্ট ইউ/পি চেয়ারম্যানগণের সহিত যোগাযোগ/পরামর্শ/অবহিতকরণের মাধ্যমে কাজ বাস্তবায়নের জন্য উপসহকারী প্রকৌশলী, জনস্বাস্থ্যকে এই ব্যাপারে আরও তৎপর হওয়ার জন্য অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হলো।

               

 

উপসহকারী প্রকৌশলী জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর

 

 

১৮.০০ ঃ মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগ ঃ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের পক্ষে জনাব আলা উদ্দিন, একাডেমিক সুপারভাইজার বলেন, গ্রীষ্মকালীন খেলাধুলা পরিচালনার উপজেলা পরিষদের রাজস্ব তহবিল হতে ১০,০০০/= (দশ হাজার) টাকা প্রদানের জন্য উপজেলা পরিষদের সকলকে ধন্যবাদ জানান। অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলমান। 

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবাযনে

 

০১          (১) বিভাগীয় কার্যাদি সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনসহ নিয়মিত মনিটরিং করার এবং পরিষদ কমিটির সভা আহ্বানপূর্বক সভার প্রস্তাবনা আগামী সভায়  উপস্থাপনের জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে পুনঃ অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

               

 উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, জুড়ী

 

১৯.০০ ঃ আনসার ও ভিডিপি ঃ উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা বলেন, আনসার ভিডিপি সদস্যদের মটর ড্রাইভিং, কারিগরি প্রশিক্ষণ, কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ও মৌলিক প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চলমান আছে।

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

০১          (ক)পবিত্র ঈদ-উল আযহা এবং শারদীয় দূর্গাপুজাকে সামনে রেখে যাহাতে কোন সন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কর্মকান্ডে জঙ্গী অপতৎপরতা রোধসহ জানমালের ক্ষয়ক্ষতি রোধে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সহযোগিতা করার এবং বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কার্যক্রম গ্রহণের জন্য উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসারকে অনুরোধ জানানো হলো।

                উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা, জুড়ী                                                                                                                                           

২০.০০ ঃ যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর ঃ উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা বা কোন প্রতিনিধি না থাকায় সভায় উষ্মা প্রকাশ করা হয়।

বিস্তারিত আলোচনান্তে একজন নিয়মিত উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা প্রদানের নিমিত্তে কর্তৃপক্ষ বরাবর পত্র  প্রেরণের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়

 

 

ক্রঃনং     সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

০১          জুড়ী উপজেলায় নিয়মিত উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা প্রদানের নিমিত্তে কর্তৃপক্ষ বরাবর পত্র প্রেরণের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।               

উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী

২১.০০ ঃ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড ঃ  বিদ্যুৎ জনাব আনসারুল কবীর, উপ সহকারী প্রকৌশলী, বিউবো, জুড়ী জানান, জুড়ীতে নতুন সাবষ্টেশন বিগত ০২.০৯.২০১৬ খ্রি. তারিখ রাত্র হতে চালু হয়েছে স্বাভাবিকভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ রয়েছে। জুড়ী উপজেলাধীন পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়নের বাছিরপুরে নির্মাণাধীন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের  নির্মাণ কাজ শেষ হলে যতদূত সম্ভর বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করা হবে। আলোচনায় অংশগ্রহণ করে জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, বেলাগাঁও, জাঙ্গিরাই এবং নয়াগ্রামে বিদ্যুতের যে নতুন খুঁটি বসানো হয়েছে তাহাতে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব অসম্পূর্ণ কাজ সম্পন্ন করে বিদ্যুৎ সংযোগের অনুরোধ জানান। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জনাব রনজিতা শর্ম্মা বলেন, পূর্বজুড়ী ইউনিয়নের অনেক স্থানে বাঁেশর খুটির মধ্যে বিদ্যুতের তার ঝুলানো আছে তাহা অপসারণ করে পাকার খুঁটি বসানোর জন্য অনুরোধ জানান। চেয়ারম্যান, জায়ফরনগর ইউনিয়ন পরিষদ বলেন যে, পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে ঈদের পূর্বের দিন হতে ঈদের পরদিন পর্যন্ত মোট ০৩ দিন নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য দায়িত্বরত কর্মকর্তাকে অনুরোধ করেন।

 

 ক্র ঃ নং               সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

০১          পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে ঈদের পূর্বের দিন হতে ঈদের পরদিন পর্যন্ত মোট ০৩ দিন নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলী,  বিউবো, কুলাউড়াকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

               

নির্বাহী প্রকৌশলী

বিউবো,কুলাউড়া

                                                                                                                     

২২.০০ ঃ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ঃ  ডিজিএম, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, বড়লেখা সভায় অনুপস্থিতি থাকায় বিস্তারিত আলোচনা করা  সম্ভব হয়নি।

 

ক্র ঃ নং                সিদ্ধান্ত    বাস্তবায়নে

 

০১          পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে ঈদের পূর্বের দিন হতে ঈদের পরদিন পর্যন্ত মোট ৩দিন নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য  ডিজিএম, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, বড়লেখাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

 

                ডিজিএম, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, বড়লেখা

                                                                                                                                               

 

২৩.০০ ঃ বিবিধ ঃ (ক) চেয়ারম্যান, গোয়ালবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ বলেন যে, গোয়ালবাড়ী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের শুকনাছড়া গ্রামে বিজিবি নতুন ক্যাম্প করতে যাচ্ছে উহাতে এলাকার ৪-৫টি পরিবারের অভিযোগ তাহাদের বসতবাড়ী নাকি জরিপ করে নিয়েছে। তাই এলাকবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা পরিষদে অবগত করেন যে, রিজাভ ফরেষ্টের প্রচুর ভূমি আছে যেখানে বিজিবি নতুন ক্যাম্প করলে সাধারণ মানুষের ঘরবাড়ির কোন ক্ষতি হবে না। উক্ত বিজিবি নতুন ক্যাম্প করতে যাহাতে করো বাড়ীঘর উচ্ছেদ করতে না হয় সে জন্য প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।

 

বিস্তারিত আলোচনান্তে শুকনাছড়ায় নতুন বিজিপি ক্যাম্প স্থাপনে যাতে সাধারণ জনগণের ক্ষতি না হয় সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে পত্র প্রেরণের অনুরোধ জানিয়ে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।             

       

(খ)চেয়ারম্যান, গোয়ালবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ আরো বলেন যে, ১৯৬০ সালে স্থাপিত গোয়ালবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ ভবন যাহা ১নং খতিয়ানে অর্ন্তভূক্ত। নতুন ইউনিয়ন পরিষদ ভবন হওয়াতে পুরাতন ভবন খালি অবস্থায় রয়েছে। উক্ত জায়গায় গোয়ালবাড়ী ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণ করার জন্য মন্ত্রণালয় হতে অনুমতি ও বরাদ্দ পাওয়া গিয়েছে। টেন্ডার কার্যক্রমও চলমান আছে। তাই পুরাতন ঘরটি ভাঙ্গা প্রয়োজন। গোয়ালবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ এর স্মারক নং ৪৬.৪৬.৫৮৩৫.০২৯.১৫.০০১.১৬ তারিখ-০১.০৯.২০১৬ খ্রি. মূলে ইউনিয়ন পরিষদের আগস্ট/২০১৬ খ্রি. মাসিক  সভার  সিদ্ধান্ত মোতাবেক বর্তমান ভবনটি ইউনিয়ন ভূমি অফিসকে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। এমতাবস্থায়, পুরাতন পরিষদ ভবনের প্রয়োজনীয় অংশ রেখে বাকী অংশ নিয়মানুযায়ী ভাঙ্গার কার্যক্রম গ্রহণ ও  দ্রুত গোয়ালবাড়ী ইউনিয়ন ভূমি অফিসের নতুন ভবন নির্মাণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সভায় সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

 

বিস্তারিত আলোচনান্তে জরুরী ভিত্তিতে পুরাতন ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের নির্ধারিত অংশের প্রাক্কলন প্রস্তুতপূর্বক সহকারী কমিশনার(ভূমি), নির্বাহী প্রকৌশলী, গণপূর্ত বিভাগ, মৌলভীবাজার এর সহিত সমন্বয়পূর্বক বিধি মোতাবেক পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উপজেলা প্রকৌশলী, এলজিইডি, জুুড়ীকে অনুরোধ জানিয়ে সর্বসম্মত সিদ্ধান্দ গৃহীত হয়। 

                                                                                                                                                                                     

(গ)চেয়ারম্যান জায়ফরনগর ইউনিয়ন পরিষদ বলেন যে, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় কর্র্তৃক ২১ সেপ্টেম্বর ২০১১ তারিখে প্রকাশিত সরকারী হাটবাজারসমূহের ব্যবস্থাপনা, ইজারা পদ্ধতি এবং উহা হতে প্রাপ্ত আয় বন্টন সম্পর্কিত নীতিমালার ৯.২.৫ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট হাটবাজারের রক্ষনাবেক্ষণ ও উন্নয়ন ক্ষেত্রে ড্রেনেজ, ছাউনী, স্যানিটেশন ইত্যাদি নির্মাণের জন্য ১৫% অর্থ ব্যয় করার বিধান রয়েছে।

                                                                                                                                    চলমান পাতা-০৮

 

পাতা-০৮

 

এমতাবস্থায়, নি¤œবর্ণিত প্রকল্পসমূহ বাস্তবায়নের জন্য কামিনীগঞ্জবাজার ইজারালব্ধ অর্থ হতে নি¤œবর্ণিত প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রয়োজন। কামিনীগঞ্জবাজারে পানি নিষ্কাশনের জন্য উদয়ন ফার্মেসী সম্মুখ হইতে জুড়ী বড় মসজিদ পর্যন্ত ড্রেনেজ নির্মাণ ও বড়মসজিদ হইতে বি.জি.বি ক্যাম্প এবং বি.জি.বি ক্যাম্প হইতে শিশুপার্ক পর্যন্ত ড্রেনেজ নিমার্ণ প্রয়োজন । এটি আলাদা আলাদা করে নির্মাণ করতে হবে।  জুড়ীতে কোন স্বাস্থ্যসম্মত কসাইখানা নেই।

 

বিস্তারিত আলোচনান্তে বর্ণিত প্রকল্পসমূহের বিষয়ে সরেজমিনে পরিদর্শনপূর্বক সাইট ম্যাপ প্রস্তুতপূর্বক পরবর্তী সভায়  উপস্থাপনের জন্য উপজেলা প্রকৌশলী, এলজিইডি, জুড়ীকে অনুরোধ জানিয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

পরিশেষে  জনাব গুলশান আরা মিলি, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ বলেন,  সুখী সমৃদ্ধ ও উন্নত বাংলাদেশ গড়ার প্রয়াসে সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের কর্তব্যবোধ ও নৈতিকতা, মেধা ও মননশীলতা, সততা ও দেশপ্রেমের যৌথ প্রয়াসে সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে উঠুক এ প্রত্যাশায় একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে এবং আবারো সবাইকে ঈদ-উল-আযহার আগাম শুভেচ্ছা γাপন করে  আর কোন আলোচ্য বিষয় না থাকায় উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

 

 ( গুলশান আরা মিলি )

চেয়ারম্যান

উপজেলা পরিষদ

জুড়ী, মৌলভীবাজার।            

স্মারকনং-৪৬.৪৬.৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৬-    (৩০)                                                                          তারিখ-  ০৮. ০৯.২০১৬ খ্রিঃ।

 

অনুলিপি সদয় অবগতির জন্য ঃ-

০১. মাননীয় হুইপ, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫, মৌলভীবাজার-১)।

০২. সচিব, স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

০৩. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

০৪. জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজার।

০৫. উপ-পরিচালক, স্থানীয় সরকার , মৌলভীবাজার।

অনুলিপি জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থে ঃ-

০১. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

০২. উপজেলা ............................................... . .. . ... . . . . . . . ..জুড়ী।

০৩. চেয়ারম্যান............................................ . . . . .. ইউ/পি, জুড়ী (সকল)।

০৪. জনাব . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .. . . . . . . .                                           

( মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান)

মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা

উপজেলা পরিষদ

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

জুড়ী, মৌলভীবাজার।

০১. চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জুড়ী।

০২. ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জুড়ী

০৩. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

০৪. চেয়ারম্যান, জায়ফরনগর ইউ/পি           

০৫. চেয়ারম্যান, পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি

০৬. চেয়ারম্যান, পূর্বজুড়ী ইউ/পি

০৭. চেয়ারম্যান, গোয়ালবাড়ী ইউ/পি

০৮. চেয়ারম্যান, সাগরনাল ইউ/পি

০৯. চেয়ারম্যান, ফুলতলা ইউ/পি    

সভায় অনুপস্থিতির  তালিকা ঃ-

০১. উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা, জুড়ী।

০২.উপসহকারী প্রকৌশলী, জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

০৩. উপজেলা শিক্ষা অফিসার, জুড়ী।

 

 

 

 

 

 

 

 
 

২৪.১১.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভার কার্যবিবরণী-   

 

 

 

সভাপতি ঃ-  মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী, মৌলভীবাজার।                                                                                                                                                                                                                                                                                                   

 

তারিখ   ঃ-  ২৪/১১/২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১১.০০ মিঃ। স্থান ঃ-  উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।

           

 

সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা দৃঢ়ীকরণ করা হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি  নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। উপস্থিত সদস্যগণ অন্যান্য উপজেলার তুলনায় জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সভায় সন্তোষ প্রকাশ করেন। সভাপতি উক্ত ধারা  অব্যাহত রাখার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

 

উপস্থিত সদস্যগণ জুড়ী উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে সভায় সম্মানিত সদস্যগণ মূল্যবান বক্তব্য এবং সু-চিন্তিত মতামত তুলে ধরেন এবং আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ও যানজট নিরসনে উপজেলা প্রশাসন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ সর্বস্তরের জনগণের সহযোগিতায় শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের পরিবেশ থাকায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানানো হয়। সকলেই একে অন্যের পারষ্পরিক সহযোগিতা কামনা করেন।  জুড়ী উপজেলায় বিদ্যমান সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি এলাকার সুধীজন, সুশীল সমাজ ও গণমানুষের আন্তরিক সহযোগিতায় ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে এ আশাবাদ ব্যক্ত করে সর্বক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বনের অনুরোধ জানানো হয়। বিস্তারিত আলোচনান্তে নিম্নোক্ত সিদ্ধান্তসমূহ সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়।

 

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

 

০১

জুড়ী শহরের অন্তর্গত কামিনীগঞ্জ ও ভবানীগঞ্জ বাজারে সওজ বিভাগ এর রাস্তায় অবৈধ দখলকারীদের কারনে যানজট অসহনীয় পর্যায়ে। এতদ্বিষয়ে বিগত মাসের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গঠিত কমিটি কর্তৃক জুড়ী শিশু পার্কের উত্তর অংশে ১৪ জন ও পোষ্ট অফিসের পশ্চিম পার্শ্বের ১৩ জন অবৈধ দখলদারদের অবৈধ স্থাপনা/দোকানদারদের তালিকা দাখিল করায় সওজ বিভাগের ০১ জন উপযুক্ত প্রতিনিধি প্রেরণের নিমিত্ত নির্বাহী প্রকৌশলী, সওজ, মৌলভীবাজারকে অনুরোধ করা হলে কোন প্রতিনিধি উপস্থিত না হওয়ায় আগামী সভায় উপস্থিত থাকার নিমিত্ত পুনরায় পত্র প্রেরণের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

নির্বাহী প্রকৌশলী

সওজ বিভাগ, মৌলভীবাজার।

 

 

০২

মোহাম্মদনগর গুচ্ছ গ্রামে বিভিন্ন অনিয়ম ও অভিযোগের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য নিয়ে সরেজমিন পরিদর্শন করে আগামী সভার পূর্বে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য পুনরায় চেয়ারম্যান, জায়ফরনগর ইউপিকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

১.চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউপি

২. সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য

 

০৩

 

গরুচুরি রোধে গরু বিক্রির জন্য বিধিমোতাবেক সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের টোকেন/প্রত্যয়ন নেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

১. ইজারাদার,কামিনীগঞ্জ বাজার।

২. সভাপতি/সম্পাদক, কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জ

     বাজার কমিটি, জুড়ী।

৩. ইউপি চেয়ারম্যান (সকল)।

   

 

 

০৪

মানবপাচার, নারী ও শিশু পাচারের ভয়াবহতা সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সর্বোপরি আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে ইমামগণ মসজিদে মুসল্লীদের মধ্যে ও অন্যান্য ধর্মাবলম্বীরা স্ব স্ব উপাসনালয়ে এবং সরকারী-বেসরকারী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে আলোচনা করবেন।

 

১.উপজেলা শিক্ষা অফিসার,জুড়ী।

২.ফিল্ড সুপারভাইজার, ইসলামিক ফাউন্ডেশন

৩.স্ব স্ব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, জুড়ী।

 

 

০৫

১.শহরে নানাধরনের প্রচারকার্যে উচ্চ আওয়াজের মাইক ব্যবহারের কারণে স্বাভাবিক জীবনযাপন ও পরীক্ষার্থীদের লোখাপড়া বিঘ্নিত হচ্ছে মর্মে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়।  বিস্তারিত আলোচনান্তে কার্যকর আইনানুগ

   ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

২. দুপুর ২.০০ ঘটিকার পূর্বে এবং রাত ৮.০০ ঘটিকার পরে মাইকিংসহ অন্য কোন শব্দ দূষণ সংক্রান্ত কোন

   কাজে সম্পৃক্ত হওয়া যাবে না।

 

১. অফিসার ইন চার্জ, জুড়ী থানা।

২. সভাপতি/সম্পাদক, কামিনীগঞ্জ/

    ভবানীগঞ্জ বাজার কমিটি, জুড়ী।

 

 ০৬

দেশীয় প্রজাতির মাছ বৃদ্ধির লক্ষ্যে হাওড়ে ও নদীতে নিয়মিত অভিযান করে জাল ধরার জন্য উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তাকে পুনঃ অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

১.উপজেলা মৎস্য অফিসার,জুড়ী।

২.অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা

 

০২.মোবাইল কোর্ট সংক্রান্তঃ-

 

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

০১

জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত রাখা এবং রেল কলোনীতে নিয়মিত টহল প্রদানের জন্য পুলিশ বিভাগ ও বিজিবিকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

সহকারী কমিশনার(ভূমি)

পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি

 

 

 

 

০২

 

ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ স্ব স্ব অধিক্ষেত্রের বাজার ব্যবসায়ীদের মূল্য তালিকা টানানোর বিষয়টি নিশ্চিত করবেন। এ ব্যাপারে মাইকিং করানোর জন্যও সংশ্লিষ্ট বাজার কমিটিকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

১.ইউপি চেয়ারম্যান সকল

২. সভাপতি/সম্পাদক

    বাজার কমিটি

 

 

০৩

মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন জোরদারসহ মদ/গাঁজা বিক্রির বিভিন্ন স্পটে যেমন রেল কলোনী, বজিটিলা, জুড়ী স্কুল রোড় সহ অন্যান্য স্থানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনার অনুরোধসহ পুলিশ বিভাগ, বিজিবি ও মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, কুলাউড়াকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধসহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

০১.পুলিশ বিভাগ

০২. বিজিবি

০৩. মাদক নিয়ন্ত্রণ

    অধিদপ্তর,কুলাউড়া।

 

 

                                                                                                                                                                                                অঃপৃঃদ্রঃ

 

(২)

 

 

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে জনাব গুলশান আরা মিলি, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মিসেস রণজিতা শর্ম্মা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ বলেন, সভার উদ্দ্যেশ্য ও গুরুত্ব  বিবেচনায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে গৃহীত সিদ্ধান্ত যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়মিত সভা করে আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ ও সন্ত্রাস প্রতিরোধে প্রত্যেক ইউনিয়নে এবং উপজেলা ব্যাপী পুলিশের মাধ্যমে পাহারা জোরদার করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যান ও পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করেন এবং সকল জনসাধারণকে ও জনপ্রতিনিধিদেরকে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির উন্নয়নে এগিয়ে আসার অনুরvাধ করেন।

 

অফিসার ইন চার্জ(তদন্ত) জুড়ী থানা বলেন, পুলিশের একার পক্ষে আইন-শৃংখলা রক্ষা করা খুবই কঠিন, সকলের সহযোগিতা একান্ত কাম্য। গ্রাম-পুলিশদের কোন তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না। সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত লোকদেরকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হয়েছে। রেজিষ্ট্রেশনবিহীন মোটর সাইকেল আটক করা হচ্ছে, জুড়ী উপজেলায় আইন-শৃংখলা সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তিনি সুষ্ঠু আইন- শৃংখলা রক্ষার্থে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী, জন প্রতিনিধি, ধর্মীয় ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

 

 

 

 

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে সভাপতি গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অফিসার ইনচার্জ, জুড়ী থানাসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সার্বিক আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা কামনা করে এবং ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

 

 

 

 

( মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান )

                                                                                                                                        উপজেলা নির্বাহী অফিসার

               ও

            সভাপতি

উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটি

জুড়ী, মৌলভীবাজার।

স্মারকনং-৪৬.৪৬,৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪-৯৫৫(৩০)                                                       তারিখ- ০১. ১২.২০১৫ খ্রিঃ।

 

অনুলিপিঃ-সদয় অবগতির জন্য প্রেরণ করা হলো-

০১. মাননীয় হুইপ, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।

০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

০৩. জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজার।

০৪. চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জুড়ী, মৌলভীবাজার।

 

 

অনুলিপিঃ-জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থে-

০১. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জুড়ী।

০২. উপজেলা ............................................... . .. . ... . . . . . . . ..জুড়ী।

০৩. চেয়ারম্যান............................................. ... . .. ইউ/পি, জুড়ী(সকল)।

০৪. জনাব . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .. . . . . . . .

 

পরিশিষ্ট ‘ক’

 

১৪.  উপজেলা শিক্ষা অফিসার,জৃড়ী।

১৫. জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন, আহবায়ক, উপজেলা আওয়ামীলীগ।

১৬. জনাব মোঃ বদরুল হোসেন, যুগ্ন আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ।

১৭.  জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ,যুগ্ন আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ।

১৮.  কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ড,জুড়ী।

১৯. সভাপতি, উপজেলা প্রেস ক্লাব,জুড়ী।

২০.  জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুঃপ্রঃকঃ,জুড়ী।

২১.  কমান্ডার,জুড়ী বিজিবি।

২২.  কমান্ডার,ফুলতলা বিজিবি।

২৩.  কমান্ডার, লাঠিটিলা বিজিবি।

২৪.  জনাবা সুশান্তি বালা রায়,কৃষ্ণনগর, সদস্য,আইন-শৃংখলা কমিটি,জুড়ী

২৫.  জনাবা দিপ্তীরাণী বিশ্বাস,আমতৈল, সদস্য,আইন-শৃংখলা কমিটি,জুড়ী

২৬.  জনাব শিল্পী বেগম,গোয়ালবাড়ী,মহিলা সদস্য, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

২৭.  জনাব মোছাঃ পারভীন আক্তার, মহিলা সদস্য, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

২৮.  জনাব আয়াজ উদ্দিন আহমেদ, সভাপতি,ভবানীগঞ্জ বাজার ।

 

 

০১. চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।

০৩. ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।

০৪. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।

০৫. অফিসার ইন চার্জ (তদন্ত), জুড়ী থানা।

০৬. অধ্যক্ষ, টি এন খানম একাডেমী ডিগ্রী কলেজ।

০৭. উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার,জুড়ী।

০৮. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি           

০৯. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি

১০. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি

১১. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি

১২. চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি

১৩. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি

 

 

 

 

 

 

 

 

 

২৪.১১.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটি’র সভার কার্যবিবরণী

 

 

 

সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী, মৌলভীবাজার।

             

 

তারিখ   ঃ-     ২৪.১১.২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১০.৪৫ মিঃ।

 

স্থান     ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।

                  

           

সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা দৃঢ়ীকরণ করা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব গুলশান আরা মিলি, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জুড়ী, জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মিসেস রণজিতা শর্ম্মা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার চোরাচালান পরিস্থিতি  নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। 

 

                               

০১.সভায় সীমান্তে চোরাচালান প্রতিরোধ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনান্তে সীমান্তের সার্বিক অবস্থা ভালো বলে সভায় জানানো হয়। সীমান্তে গরু ও কাঠ চুরি রোধ এবং সীমান্ত এলাকায় অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকল্পে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। জুড়ী ও ফুলতলার কমান্ডারগণের বক্তব্যে জানা যায় যে, বর্তমানে সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান তৎপরতা নাই বললেই চলে। সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি শান্ত ও স্বাভাবিক, প্রতিদিনই টহল অব্যাহত আছে। স্থানীয় ইউ/পি সদস্য, চেয়ারম্যান এবং স্থানীয় জনসাধারণের  আরো সহযোগিতা পেলে চোরাচালান একদম বন্ধ হয়ে যাবে। সীমান্তবর্তী জনসাধারণকে নিয়ে সীমান্ত সম্পর্কে সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রাখার জন্য বিজিবিকে অনুরোধ করা হয়।

 

সিদ্ধান্তঃ-(ক)অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের প্রবণতা নিরুৎসায়িতসহ চোরাচালান বিরোধী অভিযান এর সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করা প্রয়োজন  এবং ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় কমিটির সভায় জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে উদ্বুদ্ধকরণ কার্যক্রম গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

                (খ)সীমান্ত এলাকায় অপরাধ দমনের লক্ষ্যে নারী ও শিশু পাচার/মানব পাচার রোধ, অবৈধ অনুপ্রবেশ রোধ, চোরাচালান প্রতিরোধের লক্ষ্যে জনসচেতনতা সৃষ্টির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য চেয়ারম্যান, ফুলতলা, সাগরনাল, গোয়ালবাড়ী, পূর্বজুড়ী এবং কোম্পানী কমান্ডার, জুড়ী/ফুলতলা/লাঠিটিলা ও সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

   

     (গ)সীমান্ত এলাকায় জনসাধারণের গরু/ছাগল হারিয়ে গেলে সাথে সাথে সংশ্লিষ্ট বিজিবি কমান্ডারগণকে অবহিত করার ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য চেয়ারম্যান, ফুলতলা/সাগরনাল/গোয়ালবাড়ী/পূর্বজুড়ী ইউপিকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

০২.চোরাচালান টাস্কফোর্স অভিযান বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। বিজিবি জানান, সীমান্তে নিয়মিত বিএসএফ এর সাথে সভা হয়, স্বাভাবিক টহল অব্যাহত আছে।

 

সিদ্ধান্তঃ-(১) চোরাচালান অভিযানে থানার সাথে যোগাযোগপূর্বক বিজিবি কমান্ডারগণ প্রতিমাসে টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনার উদ্যোগ গ্রহণ করবেন এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করবেন।

 

০৩.ইউনিয়ন পর্যায়ে চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় সভা অনুষ্ঠান নিয়ে সভায় আলোচনা হয়। উপস্থিত সীমান্তবর্তী ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে মর্মে সভাকে জানান এবং ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা নিয়মিত হচ্ছে বলে জানান। চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হলে চোরাচালান প্রতিরোধ করা অনেকটা সম্ভবপর হবে মর্মে মত প্রকাশ করা হয়। জুড়ী উপজেলাধীন সীমান্তবর্তী ইউনিয়নে অক্টোবর/১৫ মাসে অনুষ্ঠিত চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভার বিবরণী নিম্নরূপ-

উপজেলার নাম

সভা অনুষ্ঠানের তারিখ

সীমান্তবর্তী ইউ/পির নাম

সভা অনুষ্ঠানের তারিখ

মন্তব্য

 

Ryox

 

    ২৫.১০.২০১৫ খ্রিঃ

গোয়ালবাড়ী

সাগরনাল

পূর্বজুড়ী

ফুলতলা

      ৩০.১০.১৫  খ্রিঃ

      ১১.১০.১৫  খ্রিঃ

      ১৮.১০.১৫  খ্রিঃ

      ৩০.১০.১৫  খ্রিঃ

       

 

 

সিদ্ধান্তঃ-উপজেলার সীমান্তবর্তী ১) ফুলতলা ২) সাগরনাল ৩) গোয়ালবাড়ী ও ৪) পূর্বজুড়ী ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় কমিটির সভা বিজিবি প্রতিনিধির উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ নিয়মিত বিজিবি এবং আনসার ভিডিপি সদস্যদের উপস্থিতি নিশ্চিত করে সভা অনুষ্ঠান করে প্রতি মাসের ৩০ তারিখের মধ্যে আবশ্যিকভাবে সভার কার্যবিবরণী এবং নোটিশের সার্ভিস রিটার্ণ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে প্রেরণ করার জন্য পুনঃ অনুরোধসহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।                                                                                         

০৪.জ্বালানি তেলের পাচার রোধ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। সভাপতি বলেন, সীমান্ত এলাকায় অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকল্পে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়াসহ  সীমান্ত পথে তেল চোরাচালান ও পাচার বা এ উদ্দেশ্যে মজুদের অপচেষ্টা রোধ এবং মাদকদ্রব্যসহ চোরাচালান প্রতিরোধে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। চোরাচালান প্রতিরোধসহ বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হয়।  জ্বালানি তেলের তথ্যাদি নিম্নরূপ-

জ্বালানী তেলের নাম

অক্টোবর/১৫ মাসের মজুদ(লিঃ)

নভেম্বর/১৫

মাসে উত্তোলন  (লিঃ)

 

মোট মজুদ(লিঃ)

নভেম্বর/১৫ মাসে মোট বিক্রয়(লিঃ)

বিক্রয় শেষে মোট মজুদ (লিঃ)

মন্তব্য

পেট্রোল

১,৫৯৯  লিঃ

৫,৬০০

৭,১৯৯

৫,৯৮১

১,২১৮

 

অকটেন

    ৯৬০ লিঃ

১,৮০০

২,৭৬০

২,৪৭৬

২৮৪

 

ডিজেল

 ৫,৩৯৮ লিঃ

২৫,২০০

৩০,৫৯৮

২৬,৫৩৩

৪,০৫৬

 

 

সিদ্ধান্তঃ-জ্বালানী তেলের সরবরাহ, বিক্রয় কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ ও নজরদারী বৃদ্ধি এবং সীমান্ত পথে তেল চোরাচালান ও পাচার বা এ উদ্দেশ্যে মজুদের অপচেষ্টা রোধে সতর্ক দৃষ্টি রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।                                                                                                      অঃপৃঃদ্রঃ                                                                                                                                                                                                                           

( ২ )

 

 

০৫.সভায় পুলিশ বিভাগ,বন বিভাগ,মৎস্য বিভাগ ও বিজিবি কর্তৃক চোরাচালান প্রতিরোধে গৃহীত কার্যক্রম উপস্থাপনের বিষয়ে আলোচনা হয়। আলোচ্য মাসে সীমান্ত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করায়  বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডারগণকে ধন্যবাদ জানানো হয় এবং অভিযানের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করার জন্য লাঠিটিলা, জুড়ী এবং ফুলতলা বি জি বি ক্যাম্প সহ অন্যান্য ক্যাম্প কমান্ডারগণের প্রতি অনুরোধসহ পুলিশ বিভাগের চোরাচালান বিরোধী অভিযানের কার্যক্রম জোরদার করার অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ক্রঃনং

তারিখ

অভিযানে অংশ গ্রহণকারী বিভাগ/ফোর্স

বিবরণ

০১

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

   নভেম্বর/১৫

ফুলতলা বিজিবি

গাছ, মাদক ইয়াবা

সিদ্ধান্তঃ-পুলিশ বিভাগ,বন বিভাগ,মৎস্য বিভাগ ও বিজিবি কর্তৃক প্রতি মাসে চোরাচালান প্রতিরোধ টাস্কফোর্স অভিযানসহ গৃহীত কার্যক্রম উপরে বর্ণিত ছকে প্রতি মাসের ০২ তারিখের মধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে প্রেরণ অব্যাহত রাখবেন।

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে জনাব গুলশান আরা মিলি, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মিসেস রণজিতা শর্ম্মা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ বলেন, পূর্বের যে কোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ভালো, আর চোরাচালান নেই বললে চলে।। ইতিবাচক মানসিকতা, মেধা, প্রজ্ঞা ও দুরদর্শিতার প্রয়োগ ঘটিয়ে বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি মোকাবেলার মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড অব্যাহত রাখতে যথাযথ ভূমিকা পালন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান।

 অফিসার ইন চার্জ(তদন্ত), জুড়ী থানা বলেন, চোরাচালান অভিযানে পুলিশ বিভাগ খুবই তৎপর। বিজিবি যদি চোরাচালান রোধকল্পের পাশাপাশি মেইন রোডে টহল বৃদ্ধি করে তাহলে সন্ত্রাসীরা সাহস পাবে না। সীমান্তবর্তী এলাকায় মাদকদ্রব্য পাচার নিয়ন্ত্রণে বিজিবি ও ইউ/পি চেয়ারম্যানগণসহ সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বারগণ আরো তৎপর হলে চোরাচালান অনেকটা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। রাষ্ট্রীয় সম্পদ ও জনগণের জীবন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সার্বিকভাবে এলাকার জনসাধারণ, জনপ্রতিনিধি সহ সকলের সহযোগীতায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে ও চোরাচালান প্রতিরোধে সংশ্লিষ্ট সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

 

 

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে সভাপতি, চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভায়  গৃহীত  সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করে এবং  আর কোন আলোচ্য বিষয় না থাকায় ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

 

 

 

 

 

( মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

সভাপতি

                                                                                                                               উপজেলা চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটি

জুড়ী, মৌলভীবাজার।

স্মারক নং- ৪৬.৪৬.৫৮৩৫.০০৪.০৬.০০১.২০১০- ৯৫৪(৩০)                                                                   তারিখ- ০১.১২.২০১৫ খ্রিঃ।

 

অনুলিপিঃ-সদয় অবগতির জন্য প্রেরণ করা হলোঃ-

০১. মাননীয় হুইপ, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫, মৌলভীবাজার-১)।

০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

০৩. জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজার।

০৪. চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জুড়ী।

জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থেঃ-

০১. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জুড়ী।

০২. জনাব. . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .  

 

 

উপস্থিত সদস্যবৃন্দ পরিশিষ্ট ‘ক’

 

১৪.  উপজেলা শিক্ষা অফিসার,জৃড়ী।

১৫. জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন, আহবায়ক, উপজেলা আওয়ামীলীগ।

১৬. জনাব মোঃ বদরুল হোসেন, যুগ্ন আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ।

১৭.  জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ,যুগ্ন আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ।

১৮.  কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ড,জুড়ী।

১৯. সভাপতি, উপজেলা প্রেস ক্লাব,জুড়ী।

২০.  জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুঃপ্রঃকঃ,জুড়ী।

২১.  কমান্ডার,জুড়ী বিজিবি।

২২.  কমান্ডার,ফুলতলা বিজিবি।

২৩.  কমান্ডার, লাঠিটিলা বিজিবি।

২৪.  জনাবা সুশান্তি বালা রায়,কৃষ্ণনগর, সদস্য,আইন-শৃংখলা কমিটি,জুড়ী

২৫.  জনাবা দিপ্তীরাণী বিশ্বাস,আমতৈল, সদস্য,আইন-শৃংখলা কমিটি,জুড়ী

২৬.  জনাব শিল্পী বেগম,গোয়ালবাড়ী,মহিলা সদস্য, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

২৭.  জনাব মোছাঃ পারভীন আক্তার, মহিলা সদস্য, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

২৮.  জনাব আয়াজ উদ্দিন আহমেদ, সভাপতি,ভবানীগঞ্জ বাজার ।

 

 

০১. চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।

০৩. ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।

০৪. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।

০৫. অফিসার ইন চার্জ (তদন্ত),জুড়ী থানা।

০৬.অধ্যক্ষ,টি এন খানম একাডেমী ডিগ্রী কলেজ

০৭. উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার,জুড়ী।

০৮. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি           

০৯. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি

১০. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি

১১. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি

১২. চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি

১৩. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

২৪.১১.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত সন্ত্রাস  ও নাশকতা প্রতিরোধ সংক্রান্ত উপজেলা কমিটির সভার কার্যবিবরণী  -

 

 

 

 

 

 

 

 

সভাপতি ঃ-     মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান

                   উপজেলা নির্বাহী অফিসার

                   জুড়ী, মৌলভীবাজার।

 

 

স্থান      ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  তারিখ ঃ- ২৪.১১.২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১০.৩০ মিঃ।

 

               

 

 

সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা দৃঢ়ীকরণ করা হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলায় সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ পরিস্থিতি  নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। 

 

 

উপস্থিত সদস্যগণ জুড়ী উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে সভায় সম্মানিত সদস্যগণ মূল্যবান বক্তব্য এবং সু-চিন্তিত মতামত তুলে ধরেন এবং বলেন, জুড়ীবাসী নির্বিঘ্নে ও নিরাপদে জীবনযাপন করছেন যানজট নিরসনে উপজেলা প্রশাসন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ সর্বস্তরের জনগণের সহযোগিতায় শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের পরিবেশ থাকায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানানো হয়। সকলেই একে অন্যের পারষ্পরিক সহযোগিতা কামনা করেন।  জুড়ী উপজেলায় বিদ্যমান সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি এলাকার সুধীজন, সুশীল সমাজ ও গণমানুষের আন্তরিক সহযোগিতায় ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে এ আশাবাদ ব্যক্ত করে সর্বক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বনের অনুরোধ জানানো হয়। সভাপতি উক্ত ধারা  অব্যাহত রাখার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। বিস্তারিত আলোচনান্তে নিম্নোক্ত সিদ্ধান্তসমূহ সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়।

 

            

            উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের কমিটি, উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করবেন এবং কোন ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা পরিষদের চেয়ারম্যান বা সদস্য শৈথিল্য প্রদর্শন করলে স্বীয় দায়িত্বে অবহেলা এবং সরকারী কাজে অসহযোগিতা হিসেবে গণ্য হবে।

 

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ

 

০১

উপজেলার কোথাও কেউ যাতে অবাধ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনরূপ নাশকতা চালাতে না পারে তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে ইউনিয়ন কমিটিসমূহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দ্রুত তথ্য সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

০১.পুলিশ বিভাগ, জুড়ী থানা।

০২.চেয়ারম্যান, সকল ইউ/পি,জুড়ী।

 

স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান প্রধান।

 

 

০২

ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠান অব্যাহত রাখাসহ এ সংক্রান্ত তথ্য সাপ্তাহিক ভিত্তিতে ( প্রতি রোববার) উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী বরাবর প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

 

০১.চেয়ারম্যান, সকল ইউ/পি,জুড়ী।

 

 

০৩

রাতের বেলায় সন্দেহভাজন বহিরাগত লোকদের আনাগোনা, গভীর রাতে গাড়ি চলাচলের বিষয়ে নজরদারী বৃদ্ধিসহ সার্বক্ষণিক টহল অব্যাহত রাখার জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

০১.পুলিশ বিভাগ, জুড়ী থানা।

 

 

০৪

প্রতি মাসের ৩০ তারিখের পূর্বে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও অফিসার ইন চার্জ এবং বিজিবি কমান্ডারসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সভার তারিখ অবহিত করে আবশ্যিকভাবে ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়মিত/ওয়ার্ড সভা করার এবং সন্ত্রাস ও নাশকতা কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

০১. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।

 

০৫

প্রত্যেক ইউনিয়নে গ্রাম আদালত চালু এবং কমিউনিটি পুলিশ/গ্রাম পুলিশের তৎপরতা বৃদ্ধি করা সহ ইউনিয়ন পরিষদের আওতাধীন গ্রাম পুলিশের সদস্যগণকে যথোপযুক্ত স্থানে রাত্রিকালীন পাহারায় নিয়োজিত করতে সকল ইউপি চেয়ারম্যানগনকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

০১. ইউ/পি চেয়ারম্যান (সকল)

 

                                

সভায় উপস্থিত জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জনাব জাহাঙ্গীর আলম, সদস্য,উপজেলা আওয়ামীলীগ, সভাপতি, ভবানীগঞ্জবাজার, জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ, যুগ্ম আহবায়ক, জনাব মোঃ বদরুল হোসেন, যুগ্ন আহবায়ক, জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ, আহবায়ক, জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ সভায় উপস্থিত অন্যান্য সদস্যগণ বলেন, উপজেলার সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা,সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ সমুন্নত রাখার নিমিত্ত উপজেলা,ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধমূলক এ সভা অনুষ্ঠান ও গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সকলের আন্তরিক প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রাখার আহবান জানানো হয়। সভায় বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি নিয়ে সভায় আলোচনা  এবং সুচিন্তিত মতামত ব্যক্ত করা হয়।  জুড়ী উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার নিমিত্ত সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়ন করবেন বলে মত প্রকাশ করেন এবং জুড়ী উপজেলায় সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় অফিসার ইন চার্জ, জুড়ী থানাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানানো হয়।

                                                                                                                                    অঃপৃঃদ্রঃ                                                                                                                                                                                                               

 

(২)

অফিসার ইন চার্জ(তদন্ত), জুড়ী থানা  বলেন, দুষ্কৃতিকারীগণ কর্তৃক নাশকতামূলক ঘটনা মোকাবেলায় সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বাহিনী তৎপর রয়েছে এবং নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জুড়ী উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণ জীপনযাপনের স্বার্থে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে সঠিক তথ্য প্রদান করে সহযোগিতা করার জন্য কমিটির সম্মানিত সদস্যগণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান। উপজেলার কোথাও কেউ যাতে অবাধ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনরূপ নাশকতা চালাতে না পারে তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে ইউনিয়ন কমিটি সমূহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দ্রুত তথ্য সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন।

 

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে জনাব গুলশান আরা মিলি, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মিসেস রণজিতা শর্ম্মা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ বলেন, একশ্রেণীর দুস্কৃতিকারী সরকারকে বিব্রত ও ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার মানসিকতায় সর্বদা তৎপর রয়েছে। এ ক্ষেত্রে সকল বিভাগের সহযোগিতা কামনা করেন এবং দুষ্কৃতীকারীদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলাসহ গণসচেতনতামূলক কার্যক্রম আরো গতিশীল করার পদক্ষেপ গ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করেন।

 

 

সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির অদ্যকার সভায় সম্মানিত সদস্যগণ কর্তৃক মূল্যবান বক্তব্য, সুচিন্তিত মতামত প্রদান করায় সভাপতি সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট  সকলকে সহযোগিতা কামনা করেন এবং আর কোন আলোচ্য বিষয় না থাকয় সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

( মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

সভাপতি

 উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটি

জুড়ী, মৌলভীবাজার।

ফোন-০৮৬২৭-৫৭০০১(অফিস)

স্মারক নং- ৪৬.৪৬.৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪.৯৫৬(৩০)                                                            তারিখ-  ০১.১২.২০১৫ খ্রিঃ।

অনুলিপিঃ- সদয় অবগতির জন্য।

 

১। মাননীয় হুইপ, জাতীয় সংসদ (মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য-২৩৫, মৌলভীবাজার-১)

২। কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

৩। জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজার।

৪। পুলিশ সুপার, মৌলভীবাজার।

৫। চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জুড়ী।

অনুলিপিঃ- অবগতি ও কার্যার্থেঃ-

৬। ভাইস চেয়ারম্যান/ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

৭। উপজেলা -------------    ------------------------- কর্মকর্তা, জুড়ী।

৮। চেয়ারম্যান,-----------------------------------------ইউ/পি(সকল) জুড়ী।

৯। জনাব .................................................................................

 

পরিশিষ্ট ‘ক’

 

১৫. জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন, আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ

১৬.  জনাব মোঃ বদরুল হোসেন, যুগ্ন আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ।

১৭.  জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ,যুগ্ন আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ।

১৮.  কমান্ডার, মুক্তিযুদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল,জুড়ী।

১৯.  সভাপতি, উপজেলা প্রেস ক্লাব,জুড়ী।

২০.  মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ড।

২১.  জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুঃপ্রঃকঃ,জুড়ী।

২২.  কমান্ডার,জুড়ী বিজিবি।

২৩.  কমান্ডার,ফুলতলা বিজিবি।

২৪.  কমান্ডার,লাঠিটিলা বিজিবি।

২৫.  জনাব জাহাঙ্গীর আলম,সদস্য,উপজেলা আওয়ামীলীগ,জুড়ী।

২৬.  জনাবা সুশান্তি বালা রায়,কৃষ্ণনগর, সদস্য,আইন-শৃংখলা কমিটি,জুড়ী

২৭.  জনাবা দিপ্তীরাণী বিশ্বাস,আমতৈল, সদস্য,আইন-শৃংখলা কমিটি,জুড়ী

২৮.  জনাব শিল্পী বেগম,গোয়ালবাড়ী,মহিলা সদস্য, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

২৯.  জনাব মোছাঃ পারভীন আক্তার, মহিলা সদস্য, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

৩০.  জনাব রিংকু রঞ্জন দাস,সাধারণ সম্পাদক,উপজেলা যুবলীগ,জুড়ী।

৩১.  জনাব আয়াজ উদ্দিন আহমেদ, সভাপতি,ভবানীগঞ্জ বাজার ।

৩২.  জনাব কল্যাণ প্রসুন চম্পু,প্রতিনিধি,প্রথম আলো,জুড়ী।

 

 

 

০১. চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।

০৩. ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।

০৪. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।

০৫. অফিসার ইন চার্জ (তদন্ত),জুড়ী থানা।

০৬. অধ্যক্ষ, টি এন খানম একাডেমী ডিগ্রী কলেজ।

০৭. উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার,জুড়ী।

০৮. উপজেলা শিক্ষা অফিসার,জুড়ী

০৯. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি           

১০. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি

১১. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি

১২. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি

১৩. চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি

১৪. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

  

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

১৭.০৯.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভা ও পবিত্র ঈদ-উল-আযহা,২০১৫ উপলক্ষে সভার কার্যবিবরণী-  
 
 
 
সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী।
             
তারিখ   ঃ-     ১৭/০৯/২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১১.০০ মিঃ। স্থান ঃ-  উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।
 
 
সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের পবিত্র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। প্রথমে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত মাননীয় মন্ত্রী জনাব সৈয়দ মহসিন আলী, এম পি বিগত ১৪.০৯.২০১৫ খ্রিঃ তারিখ মৃত্যুবরণ করায় ১ (এক) মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয় এবং শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়। উপস্থিত সকলেই মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও পবিত্র ঈদ-উল আযহা ২০১৫ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে উদ্যাপনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট সকলকে অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনের জন্য আহবান জানান এবং বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে সুচিন্তিত মতামত কামনা করেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব গুলশান আরা মিলি,চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা দৃঢ়ীকরণ করা হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি  নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।  
 
উপস্থিত সদস্যগণ জানান, ইদানিং গরু চুরি বৃদ্ধি পেয়েছে, সিএনজি/পিক আপ দিয়ে দিনে দুপুরে গরু ছাগল ধরে নিয়ে যায়। চেয়ারম্যান জায়ফরনগর ইউ/পি গভীর উৎকন্ঠার সাথে বলেন,জুড়ী উপজেলায় বিভিন্ন স্পটে ইদানিং মাদকের ব্যাপক বিস্তার লাভ করছে, যুব সমাজ দিন দিন বিপুলহারে মাদকের দিকে আসক্ত হচ্ছে এটা একটা কঠিন সামাজিক সমস্যার দিকে যাচ্ছে। মদ/গাঁজা বিক্রির বিভিন্ন স্পটে যেমন রেল কলোনী,বজিটিলা,জুড়ী স্কুল রোডসহ অন্যান্য স্থানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনার অনুরোধসহ পুলিশ বিভাগ, বিজিবি ও মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর,কুলাউড়াকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করেন। 
সভায় যানজটের কারণে স্বাভাবিক চলাচলে ব্যাঘাতসহ ফুটপাত-রাস্তাঘাট যানজটমুক্ত রাখা ও নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার বিষয়ে জোরালো বক্তব্য উপস্থাপন করা হয়। ট্রাফিক আইন না মেনে সমগ্র রাস্তায় সি এন জি, টমটম, ইজিবাইক চলাচল ও যত্রতত্র পাকিং এবং অবৈধভাবে ফুটপাত দখলের কারণে যানজটের মূল কারণ বলে অভিমত ব্যক্ত করা হয়। জনসাধারণের নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন যাতায়াত এবং শহরের যানজট সমস্য নিরসনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্টদের নিয়ে সভা অনুষ্ঠান অত্যন্ত ফলপ্রসু হবে মর্মে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয় । 
জুড়ী উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। উক্ত ধারা অব্যাহত রাখার নিমিত্ত আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগীতা কামনা করা হয়। ‘
ক্রঃনংসিদ্ধান্তবাস্তবায়নে
 
০১
(ক) সড়কের/মহাসড়কের উপরে ও পার্শ্বে গরুর হাট না বসানোর সিদ্ধান্ত  গ্রহণ এবং আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
(খ) সড়কের/মহাসড়কের উপরে ও পার্শ্বে গরুর হাট না বসানোর বিষয়ে এবং অজ্ঞান/মলম পার্টির খপ্পর হতে পরিত্রাণের লক্ষ্যে অপরিচিত কারো কাছ থেকে কোন কিছু না খাওয়ার ব্যাপারে এমনকি প্রয়োজনে মাইকিং করে জনসাধারণকে সতর্ক করার জন্য জায়ফরনগর ইউপি চেয়ারম্যানকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
(২) কোরবানির পশুর হাট/সংশ্লিষ্ট এলাকায় সন্ত্রাসী,চাঁদাবাজ,পকেটমারসহ যানজট হ্রাসকরণে পুলিশ বাহিনী এবং আইন-শৃংখলা বাহিনীর নির্দেশনায় কমিউনিটি পুলিশ ও গ্রাম পুলিশ যানজট নিরসনে কাজ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। 
 
০১. অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।
     ০২. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি
     ০৩. ইজারাদার,কামিনীগঞ্জ বাজার।
 
০২
আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-আযহার প্রাক্কালে কোরবানীর পশুর হাটে জাল নোট চক্রের সক্রিয় থাকার আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাই কোরবানীর পশুর হাটে জনসাধারণ ও ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে কোরবানীর পশুর হাটে জাল নোট সনাক্তকরণ বুথ স্থাপন করার জন্য এবং স্থাপিত জালনোট সনাক্ত কার্যক্রম বিরতিহীনভাবে পরিচালনা ও বহুল প্রচারের জন্য অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
 
১.ব্যবস্থাপক,তফসিলী ব্যাংক(সকল),জুড়ী
২. ইজারাদার, কামিনীগঞ্জ বাজার,জুড়ী।
৩. সভাপতি/ সম্পাদক,কামিনীগঞ্জ
    ভবানীগঞ্জ/ফুলতলা বাজার কমিটি,জুড়ী।
 
০৩কোরবানির পশুর হাটে পুলিশ, আনসার ও গ্রামপুলিশ মোতায়েন করার সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গ্রহণসহ কোরবানীর পর কাঁচা চামড়া ক্রয়/বিক্রয় নিয়ে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতি যাতে না হয় সে বিষয়ে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী বিশেষ দৃষ্টি রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
১. অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।
২. আনসার ভিডিপি অফিসার, জুড়ী।
৩. ইউ/পি চেয়ারম্যান (সকল), জুড়ী।
 
০৪অ্যানথ্যাক্স বা অন্য কোন রোগে আক্রান্ত পশু যাতে কোরবানীর হাটে বিক্রি না হয় সে বিষয়ে ভ্রাম্যমান পরিদর্শন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
১. উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা,জুড়ী।
০৫১.শহরে নানাধরনের প্রচারকার্যে উচ্চ আওয়াজের মাইক ব্যবহারের কারণে স্বাভাবিক জীবনযাপন ও ছাত্র-ছাত্রীদের লোখাপড়া বিঘ্নিত হচ্ছে মর্মে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়, বিস্তারিত আলোচনান্তে কার্যকর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
২. দুপুর ২.০০ ঘটিকার পূর্বে এবং রাত ৮.০০ ঘটিকার পরে মাইকিংসহ অন্য কোন শব্দ দূষণ সংক্রান্ত কোন কাজে সম্পৃক্ত হওয়া যাবে না।
অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।
সভাপতি/সম্পাদক, কামিনীগঞ্জ/
ভবানীগঞ্জ বাজার কমিটি,জুড়ী।পাতা ০২ 
 
০৪জুড়ী শহরের অন্তর্গত কামিনীগঞ্জ ও ভবানীগঞ্জ বাজারের যানজট ও অবৈধ দখলদারদের বিষয়ে জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি জানান যে,বর্ণিত বাজারে সিএনজি অটোরিক্সা যত্রতত্র পার্কিং এবং সওজ’এর রাস্তায় অবৈধ দখলকারীদের কারনে যানজট অসহনীয় পর্যায়ে। এ থেকে পরিত্রাণের জন্য অবৈধ দখলকারীদের তালিকা প্রণয়ণের অনুরোধ জানান।
 
সিদ্ধান্তঃ বিস্তারিত অলোচনান্তে অবৈধ স্থাপনা/দোকানদারদের তালিকা প্রস্ত্ততের জন্য নিম্নোক্ত কমিটি সর্বসম্মতক্রমে গঠন করা হয়।
 
০১. জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি,ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।আহবায়ক(১) জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক উপজেলা আওয়ামী লীগ,জুড়ী ও জনাব মোঃ বদরুল হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক, উপজেলা আওয়ামীলীগ, জুড়ী গঠিত কমিটির চাহিদা মাফিক সহযোগিতা প্রদান করবেন।
(২) বর্ণিত কমিটি আগামী সভার পূর্বে স্বয়ংসম্পূর্ণ প্রতিবেদন দাখিলের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।০২. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পিসদস্য০৩. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পিঐ০৪ সভাপতি/সম্পাদক, কামিনীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতিঐ০৫. সভাপতি/সম্পাদক,ভবানীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতিঐ০৬ সভাপতি/সম্পাদক, বাস মালিক সমিতি,জুড়ী।ঐ০৭. সভাপতি/সম্পাদক , সিএনজি মালিক সমিতি,জুড়ী।ঐ০৩. মোবাইল কোর্ট সংক্রান্তঃ-
 
ক্রঃনংসিদ্ধান্তবাস্তবায়নে
০১জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত রাখা এবং রেল কলোনীতে নিয়মিত টহল প্রদানের জন্য পুলিশ বিভাগ ও বিজিবিকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।উপজেলা নির্বাহী অফিসার
সহকারী কমিশনার(ভূমি)
পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি
 
 
 
০২
ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ স্ব স্ব অধিক্ষেত্রের বাজার ব্যবসায়ীদের মূল্য তালিকা টানানোর বিষয়টি নিশ্চিত করবেন। এ ব্যাপারে মাইকিং করানোর জন্যও সংশ্লিষ্ট বাজার কমিটিকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।ইউ/পি চেয়ারম্যান(সকল)
২. সভাপতি/সম্পাদক
বাজার কমিটি
 
০৩মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন জোরদারসহ মদ/গাঁজা বিক্রির বিভিন্ন স্পটে যেমন রেল কলোনী,বজিটিলা,জুড়ী স্কুল রোড় সহ অন্যান্য স্থানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনার অনুরোধসহ পুলিশ বিভাগ, বিজিবি ও মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর,কুলাউড়াকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধসহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
০১.পুলিশ বিভাগ
০২. বিজিবি
০৩. মাদক নিয়ন্ত্রণ 
    অধিদপ্তর,কুলাউড়া।
 
চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সবাইকে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানান এবং বলেন, জুড়ীবাসী নির্বিঘ্নে ও নিরাপদে জীপনযাপন করছেন, এ ধারা অব্যাহত রাখার প্রত্যাশায় আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। সকলেই একে অন্যের পারষ্পরিক সহযোগিতা কামনা করেন এবং পবিত্র ঈদ-উল-আযহার প্রাক্কালে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ও যানজট নিরসনে পূর্বের অভিজ্ঞতার আলোকে সংশ্লিষ্ট সকলকে আরও সক্রিয়ভাবে কাজ করতে আহবান জানিয়ে জনপ্রতিনিধি,রাজনীতিবিদ ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ সর্বস্তরের জনগণের সহযোগিতায় শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের পরিবেশ সৃষ্টির অনুরোধ জানান।
 
 
 অফিসার ইন চার্জ(তদন্ত)জুড়ী থানা বলেন, জনতাই পুলিশ, পুলিশই জনতা এই শ্লোগানকে সামনে নিয়ে পুলিশ বাহিনী কাজ করে যাচ্ছে। সকলের সহযোগিতায় উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। চলতি মাসে গরু চোরের কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। ইউনিয়ন ভিত্তিক গরুচোরের তালিকা প্রস্ত্তত করে থানায় জমা দেওয়ার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধ করেন। তিনি সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণের ও সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণপূর্বক, উপজেলার কোথাও আইন-শৃংখলার বিষয়ে কোন অবনতি ঘটলে অথবা যে কোন অনাকাঙ্খিত ঘটনা দেখা দিলে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ বিভাগকে অবহিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন। এলাকার সুধীজন,সুশীল সমাজ ও গণমানুষের আন্তরিক সহযোগিতা ও প্রেরণা পুলিশ বাহিনীর প্রত্যয়কে আরো দৃঢ় করবে বলে মত প্রকাশ করেন। 
আলোচনায় অংশগ্রহণ করে সভাপতি গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অফিসার ইনচার্জ,জুড়ী থানাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সার্বিক আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা কামনা করে এবং সবাইকে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।
 
 
 
 
 
( মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান )
                                                                                                                                        উপজেলা নির্বাহী অফিসার
               ও
            সভাপতি
উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটি
জুড়ী, মৌলভীবাজার।
স্মারকনং-৪৬.৬০,৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪- ৭২৭(৩৫)                                                                     তারিখ- ১৭.০৯.২০১৫ খ্রিঃ।
 
বিতরনঃ-সদয় জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থে
০১. মাননীয় হুইপ,বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।
০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।
০৩. জেলা প্রশাসক,মৌলভীবাজার।
০৪. চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী, মৌলভীবাজার।
০৫. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
০৬. উপজেলা ............................................... . .. . ... . . . . . . . ..জুড়ী।
০৭. চেয়ারম্যান............................................. ইউ/পি,জুড়ী(সকল)।
০৮. জনাব . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .. . . . . . . .
 
 
 
 
পরিশিষ্ট ‘ক’
০১. চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।
০৩. ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।
০৪. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।
০৫. সহকারী কমিশনার(ভূমি),জুড়ী।
০৬. অফিসার ইন চার্জ (তদন্ত),জুড়ী থানা।
০৭.অধ্যক্ষ,টি এন খানম একাডেমী ডিগ্রী কলেজ,জুড়ী।
০৮.গুপার,শাহ খাকী মাদরাসা,জুড়ী।
০৯. উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার,জুড়ী।
১০. প্রধান শিক্ষক,মক্তদির বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।
১১. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি            
১২. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি
১৩. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি
১৪. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি
১৫. চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি
১৬. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি
 
 
 
 
 
 
১৭.০৯.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভার কার্যবিবরণী 
 
 
 
সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী।
              
 
তারিখ   ঃ-     ১৭/০৯/২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১০.৩০ মিঃ।
 
স্থান     ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।
                   
সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের পবিত্র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। প্রথমে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী জনাব সৈয়দ মহসিন আলী, এম পি বিগত ১৪.০৯.২০১৫ খ্রিঃ তারিখ মৃত্যুবরণ করায় ১ (এক) মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয় এবং শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়। উপস্থিত সকলেই মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও পবিত্র ঈদ-উল আযহা ২০১৫ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে উদ্যাপনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট সকলকে অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনের জন্য আহবান জানান এবং বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে সুচিন্তিত মতামত কামনা করেন।  সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব গুলশান আরা মিলি,চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা দৃঢ়ীকরণ করা হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার চোরাচালান পরিস্থিতি  নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।  
                               
০১. সভায় সীমান্তে চোরাচালান প্রতিরোধ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনান্তে সীমান্তের সার্বিক অবস্থা ভালো বলে সভায় জানানো হয়। বিগত ১৪.০৯.১৫ খ্রিঃ তারিখ সেক্টর কমান্ডার, বিজিবি, শ্রীমঙ্গল মহোদয়ের উপস্থিতিতে ইউ/পি চেয়ারম্যান, স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ, রাজনিতীবিদগণের সমন্বয়ে ফুলতলা ইউনিয়ন পরিষদে সীমান্তে মাদকদ্রব্য পাচার/চোরাচালানী রোধকল্পে জনসচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সীমান্তে গরু ও কাঠ চুরি রোধ এবং সীমান্ত এলাকায় অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকল্পে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। জুড়ী ও ফুলতলার কমান্ডারগণের বক্তব্যে জানা যায় যে,বর্তমানে সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান তৎপরতা নাই বললে চলে। সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি শান্ত ও স্বাভাবিক, প্রতিদিনই টহল অব্যাহত আছে। স্থানীয় ইউ/পি সদস্য,চেয়ারম্যান এবং স্থানীয় জনসাধারণের  আরো সহযোগিতা পেলে চোরাচালান একদম বন্ধ হয়ে যাবে। সীমান্তবর্তী জনসাধারণকে নিয়ে সীমান্ত সম্পর্কে সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রাখার জন্য বিজিবিকে অনুরোধ করা হয়। 
 
সিদ্ধান্তঃ- (ক) অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের প্রবণতা নিরুৎসায়িতসহ চোরাচালান বিরোধী অভিযান এর সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করা প্রয়োজন  এবং ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় কমিটির সভায় জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে উদ্বুদ্ধকরণ কার্যক্রম গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
                (খ) বিজিবি সদস্যগণ সীমান্ত এলাকা স্বাভাবিক রাখতে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ অব্যাহত রাখবেন। কোন অবৈধ মালামাল যাতে এদেশে কোন রকমে প্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়ে বিজিবি সতর্ক থাকার এবং জ্বালানী, ভোজ্য তেল,সার ও কোরোসিন পাচার/চোরাচালান প্রতিরোধে কার্যকর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী/ফুলতলা/লাঠিটিলা ও সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। 
 
০২. চোরাচালান টাস্কফোর্স অভিযান বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। বিজিবি জানান, সীমান্তে নিয়মিত বিএসএফ এর সাথে সভা হয়, স্বাভাবিক টহল অব্যাহত আছে। 
 
সিদ্ধান্তঃ- (১) চোরাচালান অভিযানে থানার সাথে যোগাযোগ পূর্বক বিজিবি কমান্ডারগণ প্রতিমাসে টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনার উদ্যোগ গ্রহণ করবেন এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করবেন। 
 
০৩. ইউনিয়ন পর্যায়ে চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় সভা অনুষ্ঠান নিয়ে সভায় আলোচনা হয়। উপস্থিত সীমান্তবর্তী ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে মর্মে সভাকে জানান এবং ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা নিয়মিত হচ্ছে বলে জানান। চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হলে চোরাচালান প্রতিরোধ করা অনেকটা সম্ভবপর হবে মর্মে মত প্রকাশ করা হয়। 
 
সিদ্ধান্তঃ- উপজেলার সীমান্তবর্তী ১) ফুলতলা ২) সাগরনাল ৩) গোয়ালবাড়ী ৪) পূর্বজুড়ী ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় কমিটির সভা বিজিবি প্রতিনিধির উপস্থিতিতে আগষ্ট/১৫ খ্রিঃ মাসে অনুষ্ঠিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ নিয়মিত বিজিবি এবং আনসার ভিডিপি সদস্যদের উপস্থিতি নিশ্চিত করে সভা অনুষ্ঠান করে প্রতি মাসের ৩০ তারিখের মধ্যে আবশ্যিকভাবে সভার কার্যবিবরণী এবং নোটিশের সার্ভিস রিটার্ণ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে প্রেরণ করার জন্য পুনঃ অনুরোধসহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।                                                                                         
০৪. জ্বালানি তেলের পাচার রোধ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। সভাপতি বলেন,সীমান্ত এলাকায় অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকল্পে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়াসহ  সীমান্ত পথে তেল চোরাচালান ও পাচার বা এ উদ্দেশ্যে মজুদের অপচেষ্টা রোধ এবং মাদকদ্রব্যসহ চোরাচালান প্রতিরোধে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। চোরাচালান প্রতিরোধসহ বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হয়।  জ্বালানি তেলের তথ্যাদি নিম্নরূপ-
জ্বালানী তেলের নামজুলাই/১৫ মাসের মজুদ(লিঃ)আগষ্ট/১৫
মাসে উত্তোলন  (লিঃ)
মোট মজুদ(লিঃ)আগষ্ট/১৫ মাসে মোট বিক্রয়(লিঃ)বিক্রয় শেষে মোট মজুদ (লিঃ)মন্তব্যপেট্রোল২,০৪৬  লিঃ৫,২০০৭,২৪৬৬,১৫০১,০৯৬ লিঃঅকটেন ৪৩৫   লিঃ২,৬০০৩,০৩৫২,৪৬১  ৫৭৪ লিঃডিজেল৬,১০৭  লিঃ৩০,৮০০৩৬,৯০৭৩৩,৮৫৫৩,০৫২ লিঃসিদ্ধান্তঃ- জ্বালানী তেলের সরবরাহ,বিক্রয় কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ ও নজরদারী বৃদ্ধি এবং সীমান্ত পথে তেল চোরাচালান ও পাচার বা এ উদ্দেশ্যে মজুদের অপচেষ্টা রোধে সতর্ক দৃষ্টি রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।                                                                                                  
                                                                                                                                                                  অঃপৃঃদ্র
( ২ )
০৫. সভায় পুলিশ বিভাগ,বন বিভাগ,মৎস্য বিভাগ ও বিজিবি কর্তৃক চোরাচালান প্রতিরোধে গৃহীত কার্যক্রম উপস্থাপনের বিষয়ে আলোচনা হয়। আলোচ্য মাসে সীমান্ত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করায়  বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডারগণকে ধন্যবাদ জানানো হয় এবং অভিযানের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করার জন্য জুড়ী বিজিবি ক্যাম্প এবং ফুলতলা বি জি বি ক্যাম্প সহ অন্যান্য ক্যাম্প কমান্ডারগণের প্রতি অনুরোধসহ পুলিশ বিভাগের চোরাচালান বিরোধী অভিযানের কার্যক্রম জোরদার করার অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
সিদ্ধান্তঃ- পুলিশ বিভাগ,বন বিভাগ,মৎস্য বিভাগ ও বিজিবি কর্তৃক প্রতি মাসে চোরাচালান প্রতিরোধ টাস্কফোর্স অভিযানসহ গৃহীত কার্যক্রম উপরে বর্ণিত ছকে প্রতি মাসের ০২ তারিখের মধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে প্রেরণ অব্যাহত রাখবেন।
 
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবং ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার অন্যতম প্রধান শর্ত আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ,পূর্বের যে কোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ভালো,আর চোরাচালান নেই বললে চলে।। ইতিবাচক মানসিকতা,মেধা,প্রজ্ঞা ও দুরদর্শিতার প্রয়োগ ঘটিয়ে বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি মোকাবেলার মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড অব্যাহত রাখতে যথাযথ ভূমিকা পালন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান। 
 অফিসার ইন চার্জ (তদন্ত) জুড়ী থানা বলেন, চোরাচালান অভিযানে পুলিশ বিভাগ খুবই তৎপর। বিজিবি যদি চোরাচালান রোধকল্পের পাশাপাশি মেইন রোডে টহল বৃদ্ধি করে তাহলে সন্ত্রাসীরা সাহস পাবে না। সীমান্তবর্তী এলাকায় মাদকদ্রব্য পাচার নিয়ন্ত্রণে বিজিবি ও ইউ/পি চেয়ারম্যানগণসহ সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বারগণ আরো তৎপর হলে চোরাচালান অনেকটা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। রাষ্ট্রীয় সম্পদ ও জনগণের জীবন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সার্বিকভাবে এলাকার জনসাধারণ,জনপ্রতিনিধি সহ সকলের সহযোগীতায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে ও চোরাচালান প্রতিরোধে সংশ্লিষ্ট সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। 
 
 
আলোচনায় অংশগ্রহণ করে সভাপতি,চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভায়  গৃহীত  সিদ্ধান্ত সমূহ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করে এবং  আর কোন আলোচ্য বিষয় না থাকায় ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।
 
 
 
 
 
 
( মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান )
উপজেলা নির্বাহী অফিসার
সভাপতি
                                                                                                                             উপজেলা চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটি
জুড়ী, মৌলভীবাজার।
স্মারক নং- ৪৬.৬০,৫৮৩৫.০০৪.০৬.০০১.২০১০-৭৩১(৩৫)                                                                  তারিখ- ২০.০৯.২০১৫ খ্রিঃ।
 
বিতরনঃ-সদয় জ্ঞাতার্থেঃ-
০১. মাননীয় হুইপ,বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।
০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।
০৩. জেলা প্রশাসক,মৌলভীবাজার।
০৪. চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
০৫. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থেঃ-
০৬. জনাব. . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .   
 
 
উপস্থিত সদস্যবৃন্দ পরিশিষ্ট ‘ক’
০১. চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।
০৩. ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।
০৪. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।
০৫. সহকারী কমিশনার(ভূমি),জুড়ী।
০৬. অফিসার ইন চার্জ (তদন্ত),জুড়ী থানা।
০৭.অধ্যক্ষ,টি এন খানম একাডেমী ডিগ্রী কলেজ,জুড়ী।
০৮.গুপার,শাহ খাকী মাদরাসা,জুড়ী।
০৯. উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার,জুড়ী।
১০. প্রধান শিক্ষক,মক্তদির বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।
১১. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি            
১২. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি
১৩. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি
১৪. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি
১৫. চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি
১৬. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি
 
 
 
 
 
১৭.০৯.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত সন্ত্রাস  ও নাশকতা প্রতিরোধ সংক্রান্ত উপজেলা কমিটির  সভার কার্যবিবরণী  -
 
সভাপতি ঃ-     মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান
                   উপজেলা নির্বাহী অফিসার
                   জুড়ী, মৌলভীবাজার।
 
 
স্থান      ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  তারিখ ঃ- ১৭.০৯.২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১০.০০ মিঃ।
 
সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের পবিত্র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। প্রথমে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত মাননীয় মন্ত্রী জনাব সৈয়দ মহসিন আলী, এম পি বিগত ১৪.০৯.২০১৫ খ্রিঃ তারিখ মৃত্যুবরণ করায় ১ (এক) মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয় এবং শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়। উপস্থিত সকলেই মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও পবিত্র ঈদ-উল আযহা ২০১৫ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে উদ্যাপনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট সকলকে অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনের জন্য আহবান জানান এবং বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে সুচিন্তিত মতামত কামনা করেন।  সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব গুলশান আরা মিলি, চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা দৃঢ়ীকরণ করা হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।  
 
             
            উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের কমিটি, উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করবেন এবং কোন ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা পরিষদের চেয়ারম্যান বা সদস্য শৈথিল্য প্রদর্শন করলে স্বীয় দায়িত্বে অবহেলা এবং সরকারী কাজে অসহযোগিতা হিসেবে গণ্য হবে। 
 
ক্রঃনংসিদ্ধান্তবাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ
০১উপজেলার কোথাও কেউ যাতে অবাধ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনরূপ নাশকতা চালাতে না পারে তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে ইউনিয়ন কমিটিসমূহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দ্রুত তথ্য সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
 
০১.পুলিশ বিভাগ,জুড়ী থানা।
০২. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।
 
স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান প্রধান।
 
০২ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠান অব্যাহত রাখাসহ এ সংক্রান্ত তথ্য সাপ্তাহিক ভিত্তিতে ( প্রতি রোববার) উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী বরাবর প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।
০১. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।
 
০৩রাতের বেলায় সন্দেহভাজন বহিরাগত লোকদের আনাগোনা,গভীর রাতে গাড়ি চলাচলের বিষয়ে নজরদারী বৃদ্ধিসহ সার্বক্ষণিক টহল অব্যাহত রাখার জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
০১.পুলিশ বিভাগ,জুড়ী থানা।
 
০৪প্রতি মাসের ৩০ তারিখের পূর্বে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও অফিসার ইন চার্জ এবং বিজিবি কমান্ডারসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সভার তারিখ অবহিত করে আবশ্যিকভাবে ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়মিত/ওয়ার্ড সভা করার এবং সন্ত্রাস ও নাশকতা কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
 
০১. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।                                 
 
সভায় উপস্থিত সভাপতি, উপজেলা প্রে্স ক্লাব, জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জনাব জাহাঙ্গীর আলম,সদস্য,উপজেলা আওয়ামীলীগ, জনাব আব্দুল কাদির দারা, ব্যবসায়ী,সভাপতি/সম্পাদক,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জবাজার, জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ, যুগ্ম আহবায়ক, জনাব মোঃ বদরুল হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক, জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ, আহবায়ক,জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ সভায় উপস্থিত অন্যান্য সদস্যগণ বলেন, উপজেলার সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা,সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ সমুন্নত রাখার নিমিত্ত উপজেলা,ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধমূলক এ সভা অনুষ্ঠান ও গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সকলের আন্তরিক প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রাখার আহবান জানানো হয়। সভায় বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি নিয়ে সভায় আলোচনা  এবং সুচিন্তিত মতামত ব্যক্ত করা হয়।  জুড়ী উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার নিমিত্ত সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়ন করবেন বলে মত প্রকাশ করেন।                                                                                                                   
 
অফিসার ইন চার্জ(তদন্ত), জুড়ী থানা  বলেন, দুস্কৃতিকারীগণ কর্তৃক নাশকতামূলক ঘটনা মোকাবেলায় সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বাহিনী তৎপর রয়েছে এবং নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জুড়ী উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণ জীপনযাপনের স্বার্থে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে সঠিক তথ্য প্রদান করে সহযোগীতা করার জন্য কমিটির সম্মানিত সদস্যগণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান। উপজেলার কোথাও কেউ যাতে অবাধ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনরূপ নাশকতা চালাতে না পারে তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে ইউনিয়ন কমিটি সমূহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দ্রুত তথ্য সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন।
 
চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সবাইকে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানান এবং বলেন, জুড়ী উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণ জীপনযাপনের স্বার্থে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে সঠিক তথ্য প্রদান করে সহযোগীতা করার জন্য কমিটির সম্মানিত সদস্যগণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন।  রাজনৈতিক,সামাজিক ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে শান্তিপ্রিয় জুড়ীবাসীর যথেষ্ট অবদান রয়েছে। তিনি দুষ্কৃতীকারীদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলাসহ গণসচেতনতামূলক কার্যক্রম আরো গতিশীল করার পদক্ষেপ গ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করেন।
 
সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির অদ্যকার সভায় সম্মানিত সদস্যগণ কর্তৃক মূল্যবান বক্তব্য,সুচিন্তিত মতামত প্রদান করায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাঁদেরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।  সভায়  গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট  সকলকে সহযোগিতার আহবান জানিয়ে এবং সবাইকে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার শুভেচ্ছা জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
( মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান )
উপজেলা নির্বাহী অফিসার
সভাপতি
 উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটি
জুড়ী, মৌলভীবাজার।
ফোন-০৮৬২৭-৫৭০০১(অফিস)
স্মারক নং- ৪৬.৬০.৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪.৭৩২(৩৫)                                        তারিখ- ২০.০৯.২০১৫ খ্রিঃ।
অনুলিপিঃ- সদয় অবগতির জন্য।
 
১। মাননীয় হুইপ,জাতীয় সংসদ (মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)
২। কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট। 
৩। জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজার। 
৪। পুলিশ সুপার, মৌলভীবাজার। 
৫। চেয়ারম্যান ,উপজেলা পরিষদ  ,জুড়ী। 
অবগতি ও কার্যার্থেঃ-
৬। ভাইস চেয়ারম্যান/ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
৭। উপজেলা -------------    ------------------------- কর্মকর্তা, জুড়ী। 
৮। চেয়ারম্যান,-----------------------------------------ইউ/পি(সকল) জুড়ী। 
৯। জনাব .................................................................................
 
পরিশিষ্ট ‘ক’
০১. চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।
০৩. ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।
০৪. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।
০৫. সহকারী কমিশনার(ভূমি),জুড়ী।
০৬. অফিসার ইন চার্জ (তদন্ত),জুড়ী থানা।
০৭.অধ্যক্ষ,টি এন খানম একাডেমী ডিগ্রী কলেজ,জুড়ী।
০৮.সুপার,শাহ খাকী মাদরাসা,জুড়ী।
০৯. উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার,জুড়ী।
১০. প্রধান শিক্ষক,মক্তদির বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়।
১১. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি            
১২. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি
১৩. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি
১৪. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি
১৫. চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি
১৬. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
২৬.০৮.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত সন্ত্রাস  ও নাশকতা প্রতিরোধ সংক্রান্ত উপজেলা কমিটির  সভার কার্যবিবরণী 
 
সভাপতি ঃ-     মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান
                   উপজেলা নির্বাহী অফিসার
                   জুড়ী, মৌলভীবাজার।
 
 
স্থান      ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  তারিখ ঃ- ২৬.০৮.২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১০.০০ মিঃ।
 
                
 
সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। সভাপতি এ উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক জীবনযাপন বজায় রাখা,সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড পরিচালনায় সহযোগীতাকরণসহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে কার্যকরী ভূমিকা পালনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে সুচিন্তিত মতামত কামনা করেন।  সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব গুলশান আরা মিলি,চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা দৃঢ়ীকরণ হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।  সভায় জনাব আব্দুল কাদির দারা,সভাপতি,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতি, বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী, জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট,প্রধান শিক্ষক,জুড়ী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়,চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর/পশ্চিমজুড়ী/পূর্বজুড়ী/গোয়ালবাড়ী/ফুলতলা ইউ/পি, জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ অন্যান্য গন্যমান্য সদস্যগণ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি সভায় উপস্থাপনের মধ্যে দিয়ে সুচিন্তিত মতামত ব্যক্ত করেন। 
 
             
            উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরো বলেন,ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের কমিটি উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করবেন এবং কোন ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা পরিষদের চেয়ারম্যান বা সদস্য শৈথিল্য প্রদর্শন করলে স্বীয় দায়িত্বে অবহেলা এবং সরকারী কাজে অসহযোগিতা হিসেবে গণ্য হবে। 
 
ক্রঃনংসিদ্ধান্তবাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ
০১উপজেলার কোথাও কেউ যাতে অবাধ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনরূপ নাশকতা চালাতে না পারে তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে ইউনিয়ন কমিটিসমূহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দ্রুত তথ্য সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
 
০১.পুলিশ বিভাগ,জুড়ী থানা।
০২. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।
 
স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান প্রধান।
 
০২ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠান অব্যাহত রাখাসহ এ সংক্রান্ত তথ্য সাপ্তাহিক ভিত্তিতে ( প্রতি রোববার) উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী বরাবর প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।
০১. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।
০৩রাতের বেলায় সন্দেহভাজন বহিরাগত লোকদের আনাগোনা,গভীর রাতে গাড়ি চলাচলের বিষয়ে নজরদারী বৃদ্ধিসহ সার্বক্ষণিক টহল অব্যাহত রাখার জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
০১.পুলিশ বিভাগ,জুড়ী থানা।
 
০৪প্রতি মাসের ৩০ তারিখের পূর্বে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও অফিসার ইন চার্জ এবং বিজিবি কমান্ডারসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সভার তারিখ অবহিত করে আবশ্যিকভাবে ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়মিত/ওয়ার্ড সভা করার এবং সন্ত্রাস ও নাশকতা কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
 
০১. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।
০৫ইউনিয়ন পরিষদের আওতাধীন গ্রাম পুলিশের সদস্যগণকে যথোপযুক্ত স্থানে রাত্রিকালীন পাহারায় নিয়োজিত করতে হবে। ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের কমিটি উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের অনুরোধ জানান এবং কোন ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা পরিষদের চেয়ারম্যান বা সদস্য শৈথিল্য প্রদর্শন করলে স্বীয় দায়িত্বে অবহেলা এবং সরকারী কাজে অসহযোগিতা হিসেবে গণ্য হবে।  
  
০১.চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।
 
                                 
সভায় উপস্থিত মিসেস রণজিতা শর্ম্মা,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জনাব জাহাঙ্গীর আলম,সদস্য,উপজেলা আওয়ামীলীগ,জনাব আব্দুল কাদির দারা,ব্যবসায়ী,সভাপতি/সম্পাদক,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জবাজার, জনাব আলহাজ্ব অজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক,জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ সভায় উপস্থিত অন্যান্য সদস্যগণ বলেন, উপজেলার সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা,সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ সমুন্নত রাখার নিমিত্ত উপজেলা,ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধমূলক এ সভা অনুষ্ঠান ও গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সকলের আন্তরিক প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রাখার আহবান জানানো হয়। কতিপয় উচ্ছৃংখল জনগোষ্ঠির মদদে সৃষ্ট পরিস্থিতি সময়োপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণ করার মাধ্যমে সন্ত্রাস ও নাশকতামূলক কর্মকান্ড প্রতিরোধ করা সম্ভব হওয়ায় সভায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে ভবিষ্যতেও এ ধারা অব্যাহত রাখা উচিৎ মর্মে মতামত ব্যক্ত সহ সভায় বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি নিয়ে সভায় আলোচনা  এবং সুচিন্তিত মতামত ব্যক্ত করা হয়।  জুড়ী উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার নিমিত্ত সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়ন করবেন বলে মত প্রকাশ করেন।                                                                                                                                       অঃপৃঃদ্রঃ
( পাতা ০২ )
 
অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা  বলেন, দুস্কৃতিকারীগণ কর্তৃক নাশকতামূলক ঘটনা মোকাবেলায় সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বাহিনী তৎপর রয়েছে এবং নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জুড়ী উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণ জীপনযাপনের স্বার্থে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে সঠিক তথ্য প্রদান করে সহযোগীতা করার জন্য কমিটির সম্মানিত সদস্যগণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান। উপজেলার কোথাও কেউ যাতে অবাধ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনরূপ নাশকতা চালাতে না পারে তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে ইউনিয়ন কমিটি সমূহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দ্রুত তথ্য সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন।
 
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, জুড়ী উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণ জীপনযাপনের স্বার্থে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে সঠিক তথ্য প্রদান করে সহযোগীতা করার জন্য কমিটির সম্মানিত সদস্যগণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন।  রাজনৈতিক,সামাজিক ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে শান্তিপ্রিয় জুড়ীবাসীর যথেষ্ট অবদান রয়েছে। তিনি দুষ্কৃতীকারীদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলাসহ গণসচেতনতামূলক কার্যক্রম আরো গতিশীল করার পদক্ষেপ গ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করেন।
 
সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির অদ্যকার সভায় সম্মানিত সদস্যগণ কর্তৃক মূল্যবান বক্তব্য,সুচিন্তিত মতামত প্রদান করায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাঁদেরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।  সভায়  গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট  সকলকে সহযোগিতার আহবান জানিয়ে এবং আর কোন আলোচ্য বিষয় না থাকায় ধন্যবাদ জানিয়ে সভাপতি সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।
 
 
 
 
 
 
( মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান )
উপজেলা নির্বাহী অফিসার
সভাপতি
 উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটি
জুড়ী, মৌলভীবাজার।
ফোন-০৮৬২৭-৫৭০০১(অফিস)
স্মারক নং- ৪৬.৬০.৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪.৬৯৮(৩০)                                        তারিখ- ০৬.০৯.২০১৫ খ্রিঃ।
অনুলিপিঃ- সদয় অবগতির জন্য।
 
১। মাননীয় হুইপ,জাতীয় সংসদ (মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)
২। কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট। 
৩। জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজার। 
৪। পুলিশ সুপার, মৌলভীবাজার। 
৫। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ,উপজেলা পরিষদ  ,জুড়ী। 
অবগতি ও কার্যার্থেঃ-
৬। ভাইস চেয়ারম্যান/ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
৭। উপজেলা -------------    ------------------------- কর্মকর্তা, জুড়ী। 
৮। চেয়ারম্যান,------------------------------------ইউ/পি(সকল) জুড়ী। 
৯। জনাব .................................................................................
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
২৬.০৮.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভার কার্যবিবরণীঃ-  
 
 
 
সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী।
             
তারিখ   ঃ-     ২৬/০৮/২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১১.০০ মিঃ। স্থান ঃ-  উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।
  
 
 
সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। প্রথমে উপস্থিত সকলের পরিচয় প্রদান শেষে জুড়ী উপজেলায় নবযোগদানকৃত মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী তাঁর পরিচয় তুলে ধরে এ উপজেলার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। সভায় নব যোগদানকৃত উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে স্বাগত জানানো হয় এবং আইন শৃংখলা রক্ষায় তাঁর সর্বাত্নক ভূমিকা পূর্বসুরির ন্যায় অব্যাহত থাকবে মর্মে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার,সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড পরিচালনায় সহযোগিতাকরণসহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে কার্যকরী ভূমিকা পালনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে সুচিন্তিত মতামত কামনা করেন।  সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব গুলশান আরা মিলি,চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি  নিয়ে 
বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।  সভায় সভাপতি,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতি, জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি, বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী/লাঠিটিলা,জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার,মুক্তিযুদ্ধা ইউনিট,জনাব মোঃ লিয়াকত আলী,চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি,জনাব মোঃ নজমুল ইসলাম,চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি, জনাব মঈন উদ্দিন,চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি,জনাব সালেহ উদ্দিন,চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি,জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ, সহ অন্যান্য গন্যমান্য সদস্যগণ আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। 
 
উপস্থিত সদস্যগণ জানান, ইদানিং গরু চুরি বৃদ্ধি পেয়েছে, সিএনজি/পিক আপ দিয়ে দিনে দুপুরে গরু ছাগল ধরে নিয়ে যায়। চেয়ারম্যান জায়ফরনগর ইউ/পি গভীর উৎকন্ঠার সাথে বলেন,জুড়ী উপজেলায় বিভিন্ন স্পটে ইদানিং মাদকের ব্যাপক বিস্তার লাভ করছে, যুব সমাজ দিন দিন বিপুলহারে মাদকের দিকে আসক্ত হচ্ছে এটা একটা কঠিন সামাজিক সমস্যার দিকে যাচ্ছে। মদ/গাজা বিক্রির বিভিন্ন স্পটে যেমন রেল কলোনী,বজিটিলা,জুড়ী স্কুল রোডসহ অন্যান্য স্থানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনার অনুরোধসহ পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি ও মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর,কুলাউড়াকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করেন। 
সভায় যানজটের কারণে স্বাভাবিক চলাচলে ব্যাঘাতসহ ফুটপাত-রাস্তাঘাট যানজটমুক্ত রাখা, ও নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার বিষয়ে জোরালো বক্তব্য উপস্থাপন করা হয়। ট্রাফিট আইন না মেনে সমগ্র রাস্তায় সি এন জি,টমটম,ইজিবাইক চলাচল ও যত্রতত্র পাকিং এবং অবৈধভাবে ফুটপাত দখলের কারণে যানজটের মূল কারণ বলে অভিমত ব্যক্ত করা হয়। জনসাধারণের নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন যাতায়াত ও শহরের যানজট সমস্য নিরসনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্টদের নিয়ে সভা অনুষ্ঠান অত্যন্ত ফলপ্রসু হবে মর্মে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয় । 
জুড়ী উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। উক্ত ধারা অব্যাহত রাখার নিমিত্তে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগীতা কামনা করা হয়। ‘
সভায় জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ বলেন,সাম্প্রতিক সময়ে দুষ্কৃতিকারীগণের তৎপরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। জুড়ীবাসী নির্বিঘ্নে ও নিরাপদে জীপনযাপন করছেন,এ ধারা অব্যাহত রাখার প্রত্যাশাসহ দুষ্কৃতিকারীগণ যাতে ভবিষ্যতে কোন ধরনের সহিংসতা,সন্ত্রাস ও নাশকতামূলক কর্মকান্ড চালাতে না পারে সে বিষয়ে পূর্বসতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি একে অন্যের পারষ্পরিক সহযোগিতা কামনা করেন।  
 
ক্রঃনংসিদ্ধান্তবাস্তবায়নে
০১
মানব পাচার রোধে দালালদের সনাক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে এবং প্রয়োজনে মাইকিং করে জনসাধারণকে সতর্ক করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।০১. অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।
     ০২.  ইউ/পি চেয়ারম্যান (সকল)
 
০২সন্ত্রাসী,ছিনতাইকারী এবং দুস্কৃতকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপসহ জঙ্গি তৎপরতা প্রতিরোধে নজরদারি বৃদ্ধি,জননিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সদা সতর্ক থেকে দায়িত্ব পালন করার জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
 
 
০১.অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।
 
০৩
জনসাধারণের নিরাপদ ও নির্বিঘ্ন যাতায়াত ও শহরের যানজট সমস্য নিরসনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্টদের নিয়ে সভা অনুষ্ঠান করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।০১.অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।
০২. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর / পশ্চিম জুড়ী 
      ইউ/পি
০৩. সভাপতি/সম্পাদক,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জ 
      বাজার ব্যবসায়ী সমিতি
০৪. সভাপতি/সম্পাদক, সিএনজি মালিক 
      সমিতি,জুড়ী।
০৪আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে মসজিদের ইমাম,আলেম ওলামা,ধর্মীয় নেতা ও সুধীজনদের নিয়ে প্রতি শুক্রবার জুম্মার নামাজের খুতবার সময় এবং মন্দির ও অন্যান্য উপসনালয়ে সুবিধাজনক সময়ে বিশেষ বক্তব্য প্রদান করা সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।০১.ইমাম/পুরোহিত
০২. ফিল্ড সুপারভাইজার,ইসলামিক ফান্ডেশন
০৩. ইউ/পি চেয়ারম্যান (সকল)
                                                                                                                       
অঃপৃঃদ্রঃ
(২)
০২. ইউনিয়ন আইন-শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠান প্রসংগেঃ
ক্রঃনংসিদ্ধান্তবাস্তবায়নে
০১ইউনিয়ন পরিষদ ও ওয়ার্ড পর্যায়ে আইন শৃংখলা উন্নয়ন কমিটি গঠন করে কমিটি প্রতি মাসে একবার মিলিত হয়ে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের আইন শৃংখলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে রিপোর্ট দাখিল ও নিয়মিত সভা অনুষ্ঠানসহ কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণসহ প্রতিমাসের ৩০ তারিখের পূ©র্ব আবশ্যিকভাবে সভার কার্যবিবরণী / সার্ভিস রিটার্ণ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে দাখিল এবং উপজেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত আইন-শৃংখলা,চোরাচালান ও সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকার পুনঃ অনুরোধসহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
 
ইউ/পি চেয়ারম্যান
(সকল)
 
 
 
০৩. মোবাইল কোর্ট সংক্রান্তঃ-
 
ক্রঃনংসিদ্ধান্তবাস্তবায়নে
০১জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত রাখা এবং রেল কলোনীতে নিয়মিত টহল প্রদানের জন্য পুলিশ বিভাগ ও বিজিবিকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।উপজেলা নির্বাহী অফিসার
পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি
 
 
 
০২
ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ স্ব স্ব অধিক্ষেত্রের বাজার ব্যবসায়ীদের মূল্য তালিকা টানানোর বিষয়টি নিশ্চিত করবেন। এ ব্যাপারে মাইকিং করানোর জন্যও সংশ্লিষ্ট বাজার কমিটিকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।ইউ/পি চেয়ারম্যান(সকল)
২. সভাপতি/সম্পাদক
বাজার কমিটি
 
০৩মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন জোরদারসহ মদ/গাঁজা বিক্রির বিভিন্ন স্পটে যেমন রেল কলোনী,বজিটিলা,জুড়ী স্কুল রোড় সহ অন্যান্য স্থানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনার অনুরোধসহ পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি ও মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর,কুলাউড়াকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ সহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
০১.পুলিশ বিভাগ
০২. বিজিবি
০৩. মাদক নিয়ন্ত্রণ 
    অধিদপ্তর,কুলাউড়া।
 
চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বলেন,পূর্বের যে কোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ভালো। জনপ্রতিনিধি,রাজনীতিবিদ ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ সর্বস্তরের জনগণের সহযোগীতায় শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের পরিবেশ সৃষ্টির অনুরোধ জানান এবং গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সদা সতর্ক থাকার পরামর্শ প্রদান করেন। 
 
 
 
 অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা বলেন,পুলিশ বিভাগের প্রবল ইচ্ছা আইন-শৃংখলা ভালো রাখার, সকলের সহযোগীতায় উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। জনসাধারণের জানমাল সু-রক্ষায় আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী সর্বদাই সচেষ্ট ও সতর্কাবস্থায় রয়েছে। স্থানীয় জনগণের সহায়তা ছাড়া সীমিত জনবলের পুলিশ বাহিনীর মাধ্যমে পরিপূর্ণভাবে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্থিতিশীল রাখা সম্ভব নয়। তিনি সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণের দৃষ্টি আকর্ষণপূর্বক, উপজেলার কোথাও আইন-শৃংখলার বিষয়ে কোন অবনতি ঘটলে অথবা যে কোন অনাকাঙ্খিত ঘটনা দেখা দিলে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ বিভাগকে অবহিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন। এলাকার সুধীজন,সুশীল সমাজ ও গণমানুষের আন্তরিক সহযোগীতা ও প্রেরণা পুলিশ বাহিনীর প্রত্যয়কে আরো দৃঢ় করবে বলে মত প্রকাশ করেন। 
আলোচনায় অংশগ্রহণ করে সভাপতি গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অফিসার ইনচার্জ,জুড়ী থানাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সার্বিক আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা কামনা করে এবং ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।
 
 
 
( মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান )
উপজেলা নির্বাহী অফিসার
সভাপতি
উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটি
জুড়ী, মৌলভীবাজার।
স্মারকনং-৪৬.৬০,৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪-৬৯২(৩০)                             তারিখ- . . . . . ..২০১৫ খ্রিঃ।
 
বিতরনঃ-সদয় জ্ঞাতার্থেঃ-
০১. মাননীয় হুইপ,বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।
০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।
০৩. জেলা প্রশাসক,মৌলভীবাজার।
০৪.  উপ পরিচালক,স্থানীয় সরকার শাখা,মৌলভীবাজার।
০৫. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান,জুড়ী।
০৬. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থেঃ-
০৭. উপজেলা ............................................... . .. . ... . . . . . . . ..জুড়ী।
০৮. চেয়ারম্যান............................................. ইউ/পি,জুড়ী(সকল)।
০৯. জনাব . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .. . . . . . . .
 
 
পরিশিষ্ট ‘ক’
০১. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান
০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।
০৩. ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।
০৪. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।
০৫. মেডিকেল অফিসার,উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।
০৬. অফিসার ইন চার্জ ,জুড়ী থানা।
অধ্যক্ষ,টি এন খানম একাডেমী ডিগ্রী কলেজ,জুড়ী।
০৭. উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার,জুড়ী।
০৮. প্রধান শিক্ষক,জুড়ী মডেল  উচ্চ বিদ্যালয়।
০৯. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি            
১০. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি
১১. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি
১২. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি 
১৩. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি
১৫  জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ।
১৭. কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।
১৮.অধ্যক্ষ,শাহ খাকী দাখিল মাদ্রাসা।
২১. জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুঃপ্রঃকঃ,জুড়ী।
২২. কমান্ডার,জুড়ী বিজিবি।
২৩. কমান্ডার,লাঠিটিলা বিজিবি।
২৪. জনাবা অঞ্জলী কর্মকার,কাপনাপাহাড়।
২৫. জনাবা সুশান্তি বালা রায়,কৃষ্ণনগর
২৬. জনাবা দিপ্তীরাণী বিশ্বাস,আমতৈল।
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
   ২৬.০৮.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভার কার্যবিবরণী 
 
 
 
সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী।
              
 
তারিখ   ঃ-     ২৬/০৮/২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১০.৩০ মিঃ।
 
স্থান     ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।
                   
সভাপতি  উপস্থিত সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরু করেন। সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। প্রথমে উপস্থিত সকলের পরিচয় প্রদান শেষে জুড়ী উপজেলায় নবযোগদানকৃত মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী তাঁর পরিচয় তুলে ধরে এ উপজেলার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। সভায় নব যোগদানকৃত উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে স্বাগত জানানো হয় এবং আইন শৃংখলা রক্ষায় তাঁর সর্বাত্নক ভূমিকা পূর্বসুরির ন্যায় অব্যাহত থাকবে মর্মে আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান,জনাব গুলশান আরা মিলি,ভাইস চেয়ারম্যান জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি প্রথমেই জুড়ী উপজেলার চোরাচালান প্রতিরোধে অগ্রগতি পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।  
সভায় জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি, জনাব শাহাব উদ্দিন আহমেদ লেমন, চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি,জনাব মোঃ সালেহ উদ্দিন আহমেদ,চেয়ারম্যান পূর্বজুড়ী ইউ/পি,জনাব মোঃ নজমুল ইসলাম,চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি,বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী/ফুলতলা, অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা,রেঞ্জ কর্মকর্তা এবং জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন ,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ অন্যান্য গণ্যমান্য সদস্যগণ আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।
  
                               
০১. সভায় সীমান্তে চোরাচালান প্রতিরোধ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনান্তে সীমান্তের সার্বিক অবস্থা ভালো বলে সভায় জানানো হয়। সীমান্তে গরু ও কাঠ চুরি রোধ এবং সীমান্ত এলাকায় অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকল্পে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বর্ডার এলাকায় যাতে কেউ বর্ডার অতিক্রম না করে সে বিষয়টি প্রচারের জন্য সভায় অনুরোধ করা হয়। জুড়ী ও ফুলতলার কমান্ডারগণের বক্তব্যে জানা যায় যে,বর্তমানে সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান তৎপরতা নাই বললে চলে। সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি শান্ত ও স্বাভাবিক,প্রতিদিনই টহল অব্যাহত আছে। স্থানীয় ইউ/পি সদস্য,চেয়ারম্যান এবং স্থানীয় জনসাধারণের  আরো সহযোগিতা পেলে চোরাচালান একদম বন্ধ হয়ে যাবে। সীমান্তবর্তী জনসাধারণকে নিয়ে সীমান্ত সম্পর্কে সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রাখার জন্য বিজিবিকে অনুরোধ করা হয়। 
সভায় জুড়ী উপজেলায় বিজিবি জনগণকে টহল দেয়ার নাম করে বিভিন্নভাবে হয়রানি করছেন। বিভিন্ন জায়গায় জনগণকে তল্লাশিসহ আম,আমড়া,জাম ইত্যাদি কাঠ ধরে সাধারণ জনগণের বিরুদ্ধে মামলাসহ উৎকোচ গ্রহণ করছেন মর্মে জোরালো বক্তব্য উপস্থাপন করা হয়।
 
সিদ্ধান্তঃ- (ক) অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের প্রবণতা নিরুৎসায়িতসহ চোরাচালান বিরোধী অভিযান এর সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করা প্রয়োজন  এবং ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় কমিটির সভায় জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে উদ্বুদ্ধকরণ কার্যক্রম গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
               (খ) বিজিবি সদস্যগণ সীমান্ত এলাকা স্বাভাবিক রাখতে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ অব্যাহত রাখবেন। কোন অবৈধ মালামাল যাতে এদেশে কোন রকমে প্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়ে বিজিবি সতর্ক থাকার এবং  চোরাচালান অভিযানে গ্রেফতারকৃত এবং অভিযুক্ত চোরাকারবারীদের বিচারের মাধ্যমে শাস্তি নিশ্চিত করতে আইনগত ও সম্ভাব্য সকল ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।
 
০২. চোরাচালান টাস্কফোর্স অভিযান বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। বিজিবি জানান,সীমান্তে নিয়মিত বিএসএফ এর সাথে সভা হয়,স্বাভাবিক টহল অব্যাহত আছে। চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি জানান, ফুলতলা বিজিবি কর্তৃপক্ষ বাজারে কিংবা যে কোন স্থানে সাধারণ জনগণকে প্রায়ই চেকআপ করে অযথা হয়রানি করছে। তিনি সাধারণ জনগণকে অযথা হয়রানি না করার জন্য বিজিবিকে অনুরোধ করেন।
 
সিদ্ধান্তঃ- (১) চোরাচালান অভিযানে থানার সাথে যোগাযোগ পূর্বক বিজিবি কমান্ডারগণ প্রতিমাসে টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনার উদ্যোগ গ্রহণ করবেন এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করবেন। 
 
০৩. ইউনিয়ন পর্যায়ে চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় সভা অনুষ্ঠান নিয়ে সভায় আলোচনা হয়। উপস্থিত সীমান্তবর্তী ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে মর্মে সভাকে জানান এবং ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা নিয়মিত হচ্ছে বলে জানান। চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হলে চোরাচালান প্রতিরোধ করা অনেকটা সম্ভবপর হবে মর্মে মত প্রকাশ করা হয়। গ্রেফতারকৃত চোরাকারবারীরা যাতে আইনের ফাঁক-ফোঁকরে বের হতে না পারে সে দিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার জন্য এবং সকল সীমান্তবর্তী ইউনিয়নে বিজিবির সাথে আলোচনা করে সভার তারিখ নির্ধারণ করে ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা নিয়মিত অনুষ্ঠান নিশ্চিত করার বিষয়ে পুনঃ অনুরোধ করা হয়। 
 
সিদ্ধান্তঃ- উপজেলার সীমান্তবর্তী ১) ফুলতলা ২) সাগরনাল ৩) গোয়ালবাড়ী ৪) পূর্বজুড়ী ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় কমিটির সভা বিজিবি প্রতিনিধির উপস্থিতিতে আগষ্ট/১৫ খ্রিঃ মাসে অনুষ্ঠিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ নিয়মিত বিজিবি এবং আনসার ভিডিপি সদস্যদের উপস্থিতি নিশ্চিত করে সভা অনুষ্ঠান করে প্রতি মাসের ৩০ তারিখের মধ্যে আবশ্যিকভাবে সভার কার্যবিবরণী এবং নোটিশের সার্ভিস রিটার্ণ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে প্রেরণ করার জন্য পুনঃ অনুরোধসহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।                                                                                         
০৪. জ্বালানি তেলের পাচার রোধ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। সভাপতি বলেন,সীমান্ত এলাকায় অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকল্পে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়াসহ  সীমান্ত পথে তেল চোরাচালান ও পাচার বা এ উদ্দেশ্যে মজুদের অপচেষ্টা রোধ এবং মাদকদ্রব্যসহ চোরাচালান প্রতিরোধে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। চোরাচালান প্রতিরোধসহ বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হয়।  জ্বালানি তেলের তথ্যাদি নিম্নরূপ-
অঃপৃঃদ্রঃ
 
(২)
জ্বালানী তেলের নামজুলাই/১৫ মাসের মজুদ(লিঃ)আগষ্ট/১৫
মাসে উত্তোলন  (লিঃ)
মোট মজুদ(লিঃ)আগষ্ট/১৫ মাসে মোট বিক্রয়(লিঃ)বিক্রয় শেষে মোট মজুদ (লিঃ)মন্তব্যপেট্রোল২,০৪৬  লিঃ৫,২০০৭,২৪৬৬,১৫০১,০৯৬ লিঃঅকটেন ৪৩৫   লিঃ২,৬০০৩,০৩৫২,৪৬১  ৫৭৪ লিঃডিজেল৬,১০৭  লিঃ৩০,৮০০৩৬,৯০৭৩৩,৮৫৫৩,০৫২ লিঃসিদ্ধান্তঃ- জ্বালানী তেলের সরবরাহ,বিক্রয় কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ ও নজরদারী বৃদ্ধি এবং সীমান্ত পথে তেল চোরাচালান ও পাচার বা এ উদ্দেশ্যে মজুদের অপচেষ্টা রোধে সতর্ক দৃষ্টি রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
০৫. সভায় পুলিশ বিভাগ,বন বিভাগ,মৎস্য বিভাগ ও বিজিবি কর্তৃক চোরাচালান প্রতিরোধে গৃহীত কার্যক্রম উপস্থাপনের বিষয়ে আলোচনা হয়। আলোচ্য মাসে সীমান্ত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করায়  বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডারগণকে ধন্যবাদ জানানো হয় এবং অভিযানের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করার জন্য জুড়ী বিজিবি ক্যাম্প এবং ফুলতলা বি জি বি ক্যাম্প সহ অন্যান্য ক্যাম্প কমান্ডারগণের প্রতি অনুরোধসহ পুলিশ বিভাগের চোরাচালান বিরোধী অভিযানের কার্যক্রম জোরদার করার অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
ক্রঃনংতারিখঅভিযানে অংশ গ্রহণকারী বিভাগ/ফোর্সবিবরণ০১
  
 
   আগষ্ট/১৫ফুলতলা বিজিবিবিভিন্ন প্রকার মদ -১৬ বোতল, সাতকার,বাঁশ০২
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
মোকামটিলা বিজিবিপ্রতিবেদন দাখিল করা হয়নি০৩রাজকী বিজিবিঐ
 
জুড়ী বিজিবিঐসিদ্ধান্তঃ- পুলিশ বিভাগ,বন বিভাগ,মৎস্য বিভাগ ও বিজিবি কর্তৃক প্রতি মাসে চোরাচালান প্রতিরোধ টাস্কফোর্স অভিযানসহ গৃহীত কার্যক্রম উপরে বর্ণিত ছকে প্রতি মাসের ০২ তারিখের মধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে প্রেরণ অব্যাহত রাখবেন।
 
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবং ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার অন্যতম প্রধান শর্ত আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ,পূর্বের যে কোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ভালো,আর চোরাচালান নেই বললে চলে।। ইতিবাচক মানসিকতা,মেধা,প্রজ্ঞা ও দুরদর্শিতার প্রয়োগ ঘটিয়ে বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি মোকাবেলার মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড অব্যাহত রাখতে যথাযথ ভূমিকা পালন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, দেশের সকল প্রয়োজন ও সংকটকালে বাংলাদেশ পুলিশ জনগণের জীবন ও সম্পদের নিরাপত্তা বিধানে নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করছে। তাছাড়া  ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ে নিয়মিত সভা করে আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ সহ  উপজেলা ব্যাপী পুলিশের মাধ্যমে রনপাহারা জোরদার করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যান ও পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করেন। 
 
        অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা বলেন,চোরাচালান অভিযানে পুলিশ বিভাগ খুবই তৎপর। বিজিবি যদি চোরাচালান রোধকল্পের পাশাপাশি মেইন রোডে টহল বৃদ্ধি করে তাহলে সন্ত্রাসীরা সাহস পাবে না। সীমান্তবর্তী এলাকায় মাদকদ্রব্য পাচার নিয়ন্ত্রণে বিজিবি ও ইউ/পি চেয়ারম্যানগণসহ সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বারগণ আরো তৎপর হলে চোরাচালান অনেকটা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। রাষ্ট্রীয় সম্পদ ও জনগণের জীবন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে বিরাজমান সংকট নিরসন ও আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যক্তিদের সম্পৃক্ত করে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। সার্বিকভাবে এলাকার জনসাধারণ,জনপ্রতিনিধি সহ সকলের সহযোগীতায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে ও চোরাচালান প্রতিরোধে সংশ্লিষ্ট সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন। 
 
 
আলোচনায় অংশগ্রহণ করে সভাপতি,চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভায়  গৃহীত  সিদ্ধান্ত সমূহ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করে এবং  আর কোন আলোচ্য বিষয় না থাকায় ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোণনা করেন।
 
 
 
 
 
 
( মোহাম্মদ নাছির উল্লাহ খান )
উপজেলা নির্বাহী অফিসার
সভাপতি
                                                                                                                             উপজেলা চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটি
জুড়ী, মৌলভীবাজার।
স্মারক নং- ৪৬.৬০,৫৮৩৫.০০৪.০৬.০০১.২০১০- ৬৯৯(৩০)                                                            তারিখ- ০৬.০৯.২০১৫ খ্রিঃ।
 
বিতরনঃ-সদয় জ্ঞাতার্থেঃ-
০১. মাননীয় হুইপ,বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।
০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।
০৩. জেলা প্রশাসক,মৌলভীবাজার।
০৪. উপ পরিচালক,স্থানীয় সরকার শাখা,মৌলভীবাজার।
০৫. চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
০৬. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।
জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থেঃ-
০৭. জনাব. . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .   
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

২৮.০৭.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত সন্ত্রাস  ও নাশকতা প্রতিরোধ সংক্রান্ত উপজেলা কমিটির  সভার কার্যবিবরণী ঃ-

সভাপতি ঃ-     মোহাম্মদ নাজমুল হাসান

                   উপজেলা নির্বাহী অফিসার(অঃদাঃ)

                   জুড়ী, মৌলভীবাজার।

স্থান      ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  তারিখ ঃ- ২৮.০৭.২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১০.০০ মিঃ।

সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। সভাপতি এ উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক জীবনযাপন বজায় রাখা,সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড পরিচালনায় সহযোগীতা করণসহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে কার্যকরী ভূমিকা পালনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে সুচিন্তিত মতামত কামনা করেন।  সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব গুলশান আরা মিলি,চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।  সভায় জনাব আব্দুল কাদির দারা,সভাপতি,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জ বাজার ব্যবঃ সমিতি, বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী,জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার,মুক্তিযুদ্ধা ইউনিট,প্রধান শিক্ষক,জুড়ী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়,চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর/পশ্চিমজুড়ী/পূর্বজুড়ী/গোয়ালবাড়ী/ফুলতলা ইউ/পি, জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ অন্যান্য গন্যমান্য সদস্যগণ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি সভায় উপস্থাপনের মধ্যে দিয়ে সুচিন্তিত মতামত ব্যক্ত করেন।

অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা  বলেন, দুস্কৃতিকারীগণ কর্তৃক নাশকতামূলক ঘটনা মোকাবেলায় আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বাহিনী তৎপর রয়েছে এবং নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জুড়ী উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণ জীপনযাপনের স্বার্থে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে সঠিক তথ্য প্রদান করে সহযোগীতা করার জন্য কমিটির সম্মানিত সদস্যগণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান। উপজেলার কোথাও কেউ যাতে অবাধ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনরূপ নাশকতা চালাতে না পারে তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে ইউনিয়ন কমিটি সমূহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দ্রুত তথ্য সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন।

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ

 

০১

উপজেলার কোথাও কেউ যাতে অবাধ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনরূপ নাশকতা চালাতে না পারে তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে ইউনিয়ন কমিটি সমূহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দ্রুত তথ্য সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ পূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

০১.পুলিশ বিভাগ,জুড়ী থানা।

০২. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।

 

স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান প্রধান।

 

 

০২

ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠান অব্যাহত রাখাসহ এ সংক্রান্ত তথ্য সাপ্তাহিক ভিত্তিতে ( প্রতি রোববার) উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী বরাবর প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ জানানো হলো।

 

০১. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।

 

০৩

রাতের বেলায় সন্দেহভাজন বহিরাগত লোকদের আনাগোনা,গভীর রাতে গাড়ি চলাচলের বিষয়ে নজরদারী বৃদ্ধিসহ সার্বক্ষণিক টহল অব্যাহত রাখার জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

০১.পুলিশ বিভাগ,জুড়ী থানা।

 

 

০৪

প্রতি মাসের ৩০ তারিখের পূর্বে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও অফিসার ইন চার্জ এবং বিজিবি কমান্ডার সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সভার তারিখ অবহিত করে আবশ্যিকভাবে ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়মিত/ওয়ার্ড সভা করার এবং সন্ত্রাস ও নাশকতা কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধ পূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

০১. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।

 

০৫

ইউনিয়ন পরিষদের আওতাধীন গ্রাম পুলিশের সদস্যগণকে যথোপযুক্ত স্থানে রাত্রিকালীন পাহারায় নিয়োজিত করতে হবে। ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের কমিটি উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের অনুরোধ জানান এবং কোন ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা পরিষদের চেয়ারম্যান বা সদস্য শৈথিল্য প্রদর্শন করলে স্বীয় দায়িত্বে অবহেলা এবং সরকারী কাজে অসহযোগিতা হিসেবে গণ্য হবে।

 

 

০১.চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।

 

 

           

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরো বলেন,ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের কমিটি উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের অনুরোধ জানান এবং কোন ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা পরিষদের চেয়ারম্যান বা সদস্য শৈথিল্য প্রদর্শন করলে স্বীয় দায়িত্বে অবহেলা এবং সরকারী কাজে অসহযোগিতা হিসেবে গণ্য হবে।                                                                                                                                                           

সভায় উপস্থিত মিসেস রণজিতা শর্ম্মা,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জনাব জাহাঙ্গীর আলম,সদস্য,উপজেলা আওয়ামীলীগ,জনাব আব্দুল কাদির দারা,ব্যবসায়ী,সভাপতি/সম্পাদক,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জবাজার, জনাব আলহাজ্ব অজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক,জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ সভায় উপস্থিত অন্যান্য সদস্যগণ বলেন, উপজেলার আইন-শৃংখলাসহ সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা,সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ সমুন্নত রাখার নিমিত্ত উপজেলা,ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সন্ত্রাশ ও নাশকতা প্রতিরোধমূলক এ সভা অনুষ্ঠান ও গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সকলের আন্তরিক প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রাখার আহবান জানানো হয়। কতিপয় উচ্ছৃংখল জনগোষ্ঠির মদদে সৃষ্ট পরিস্থিতি সময়োপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণ করার মাধ্যমে সন্ত্রাস ও নাশকতামূলক কর্মকান্ড প্রতিরোধ করা সম্ভব হওয়ায় সভায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে ভবিষ্যতেও এ ধারা অব্যাহত রাখা উচিৎ মর্মে মতামত ব্যক্ত সহ সভায় বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি নিয়ে সভায় আলোচনা  এবং সুচিন্তিত মতামত ব্যক্ত করা হয়। এবং জুড়ী উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার নিমিত্ত সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত সমূহ বাস্তবায়ন করবেন বলে মত প্রকাশ করেন।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, জুড়ী উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণ জীপনযাপনের স্বার্থে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে সঠিক তথ্য প্রদান করে সহযোগীতা করার জন্য কমিটির সম্মানিত সদস্যগণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন।  রাজনৈতিক,সামাজিক ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে শান্তিপ্রিয় জুড়ীবাসীর যথেষ্ট অবদান রয়েছে। তিনি দুষ্কৃতীকারীদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলাসহ গণসচেতনতামূলক কার্যক্রম আরো গতিশীল করার পদক্ষেপ গ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করেন।

সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির অদ্যকার সভায় সম্মানিত সদস্যগণ কর্তৃক মূল্যবান বক্তব্য,সুচিন্তিত মতামত প্রদান করায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাঁদেরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।  সভায়  গৃহীত   সিদ্ধান্ত সমূহ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট  সকলকে অনুরোধপূর্বক আর কোন আলোচ্য বিষয় না থাকায় ধন্যবাদ জানিয়ে সভাপতি সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

 

( মোহাম্মদ নাজমুল হাসান )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার(অঃদাঃ)

সভাপতি

উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটি

জুড়ী, মৌলভীবাজার।

ফোন-০৮৬২৭-৫৭০০১(অফিস)

 

স্মারক নং- ৪৬.৬০.৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪.৫১৪(৪০)                                                              তারিখ- ২১.০৬ .২০১৫ খ্রিঃ।

অনুলিপিঃ- সদয় অবগতির জন্য।

 

১। মাননীয় হুইপ,জাতীয় সংসদ (মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)

২। কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

৩। জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজার।

৪। পুলিশ সুপার, মৌলভীবাজার।

৫। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ,উপজেলা পরিষদ  ,জুড়ী।

অবগতি ও কার্যার্থেঃ-

৬। ভাইস চেয়ারম্যান/ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

৭। উপজেলা -------------    ------------------------- কর্মকর্তা, জুড়ী।

৮। চেয়ারম্যান,------------------------------------ইউ/পি(সকল) জুড়ী।

৯। জনাব .................................................................................

 

 

 

২৮.০৭.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভার কার্যবিবরণীঃ-

সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ নাজমুল হাসান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার(অঃদাঃ),জুড়ী।

তারিখ   ঃ-     ২৮/০৭/২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১১.০০ মিঃ। স্থান ঃ-  উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।

সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। প্রথমে সভাপতি উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে এ উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক জীবনযাপন বজায় রাখা,সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড পরিচালনায় সহযোগীতা করণসহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে কার্যকরী ভূমিকা পালনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে সুচিন্তিত মতামত কামনা করেন।  সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব গুলশান আরা মিলি,চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।  সভায় সভাপতি,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জ বাজার ব্যবঃ সমিতি,জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি, বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী,জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার,মুক্তিযুদ্ধা ইউনিট,জনাব মোঃ লিয়াকত আলী,চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি,জনাব মোঃ নজমুল ইসলাম,চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি, জনাব মঈন উদ্দিন,চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি,জনাব সালেহ উদ্দিন,চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি,জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ, সহ অন্যান্য গন্যমান্য সদস্যগণ আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

উপস্থিত সদস্যগণ জানান উপজেলার ভজিটিলা গুচ্ছগ্রাম হতে টিলা ও কবরস্থানের মাটি ট্রাক,পিক আপ ও ট্রলি দিয়ে রাতের আধারে বিক্রি করা হচ্ছে। অবৈধভাবে টিলা/করবস্থান কেটে মাটি বিক্রেতাগণের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণসহ সন্ত্রাসী কর্মকান্ড,চুরি,ছিনতাইসহ সকল প্রকার অপরাধমূলক কর্মকান্ড প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে কার্যকরি ব্যবস্থা গ্রহণ করা এবং ইউনিয়ন পরিষদে ও ওয়ার্ড পর্যায়ে আইন শৃংখলা উন্নয়ন কমিটি গঠন করে নিয়মিত সভা অনুষ্ঠান সহ কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করার বিষয়ে সভায় আলোচনা করা হয়। উপজেলার বর্তমান আইনশৃংখলাসহ সার্বিক পরিস্থিতি সন্তোষজনক বিবেচনায় এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে আরো বেশী সংখ্যক হারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার দাবী উত্থাপন করা হয়। জুড়ী উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। উক্ত ধারা অব্যাহত রাখার নিমিত্তে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগীতা কামনা করা হয়।

সভায় জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ বলেন,সাম্প্রতিক সময়ে দুষ্কৃতিকারীগণের তৎপরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। জুড়ীবাসী নির্বিঘ্নে ও নিরাপদে জীপনযাপন করছেন,এ ধারা অব্যাহত রাখার প্রত্যাশাসহ দুষ্কৃতিকারীগণ যাতে ভবিষ্যতে কোন ধরনের সহিংসতা,সন্ত্রাস ও নাশকতামূলক কর্মকান্ড চালাতে না পারে এবং মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধের দায়ে বিজ্ঞ আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনাল কর্তৃক প্রদত্ত মামলার রায় ঘোষণা ও কার্যকর করাকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা ও অরাজকতা সৃষ্টি করতে না পারে সে বিষয়ে পূর্বসতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি একে অন্যের পারষ্পিক সহযোগীতা কামনা করেন। 

অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা বলেন,সকলের সহযোগীতায় উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। জনসাধারণের জানমাল সু-রক্ষায় আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী সর্বদাই সচেষ্ট ও সতর্কাবস্থায় রয়েছে। অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণের দৃষ্টি আকর্ষণপূর্বক,এলাকায় অপরিচিত লোক দেখা গেলে এবং কোন ধরণের সন্দেহের সৃষ্টি হলে আইন-শৃংখলা বাহিনীকে জানানোর জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন। এলাকার সুধীজন,সুশীল সমাজ ও গণমানুষের আন্তরিক সহযোগীতা ও প্রেরণা পুলিশ বাহিনীর প্রত্যয়কে আরো দৃঢ় করবে বলে মত প্রকাশ করেন।

 

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

০১

 

উপজেলার ভজিটিলা গুচ্ছগ্রাম হতে টিলা ও কবরস্থানের মাটি রোধ ও রাতের আধারে ট্রাক,পিক আপ ও ট্রলি দিয়ে মাটি ও বালু বিক্রেতাগণের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অফিসার হন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।

 

 

 

০২

ইউনিয়ন পরিষদে ও ওয়ার্ড পর্যায়ে আইন শৃংখলা উন্নয়ন কমিটি গঠন করে কমিটি প্রতি মাসে একবার মিলিত হয়ে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের আইন শৃংখলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে রিপোর্ট দাখিল ও নিয়মিত সভা অনুষ্ঠান সহ কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করার বিষয়ে সকল ইউ/পি চেয়ারম্যান এবং সন্ত্রাসী,ছিনতাইকারী এবং দুস্কৃতকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ সহ জঙ্গি তৎপরতা প্রতিরোধে নজরদারি বৃদ্ধি,জননিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সদা সতর্ক থেকে দায়িত্ব পালন করার জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

 

০১.অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।

০২. ইউ/পি

চেয়ারম্যান(সকল)

 

 

০৩

এলাকায় কোন অপরিচিত লোক বা সন্দেহভাজন ব্যক্তির উপস্থিতি পরিলক্ষিত হলে অবিলম্বে থানায় সংবাদ প্রেরণের এবং মসজিদ বা অন্যান্য উপাসনালয়ের মাইক ব্যবহার করে কেউ যাতে সাধারণ মানুষকে উস্কানী দিয়ে কোনভাবে কারো বিরুদ্ধে উত্তেজিত করতে না পারে সে বিষয়ে সদা সতর্ক থাকার অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

      ঐ

 

০২.ইউনিয়ন আইন-শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠান প্রসংগেঃইউনিয়ন আইন-শৃংখলা সংক্রান্ত সভা অনুষ্ঠানের বিষয়ে সভায় আলোচনা করা হয়।

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

০১

ইউনিয়ন পরিষদে ও ওয়ার্ড পর্যায়ে আইন শৃংখলা উন্নয়ন কমিটি গঠন করে কমিটি প্রতি মাসে একবার মিলিত হয়ে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের আইন শৃংখলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে রিপোর্ট দাখিল ও নিয়মিত সভা অনুষ্ঠান সহ কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ সহ প্রতিমাসের ৩০ তারিখের পূ©র্ব আবশ্যিকভাবে সভার কার্যবিবরণী / সার্ভিস রিটার্ণ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে দাখিল এবং উপজেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত আইন-শৃংখলা,চোরাচালান ও সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকার পুনঃ অনুরোধসহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

ইউ/পি চেয়ারম্যান

(সকল)

 

 

০৩.মোবাইল কোর্ট সংক্রান্তঃ- উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান,জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট অব্যাহত আছে।

 

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

০১

জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত থাকবে,রেল কলোনীতে নিয়মিত টহল প্রদানের জন্য পুলিশ বিভাগ ও বিজিবিকে অনুরোধ পূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি

 

 

 

০২

 

ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ স্ব স্ব অধিক্ষেত্রের বাজার ব্যবসায়ীদের মূল্য তালিকা টানানোর বিষয়টি নিশ্চিত করবেন। এ ব্যাপারে মাইকিং করানোর জন্যও সংশ্লিষ্ট বাজার কমিটিকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ইউ/পি চেয়ারম্যান(সকল)

২. সভাপতি/সম্পাদক

বাজার কমিটি

 

 

০৩

মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন জোরদার সহ মদ/গাজা বিক্রির বিভিন্ন স্পটে যেমন রেল কলোনী,বজিটিলা,জুড়ী স্কুল রোড় সহ অন্যান্য স্থানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনার অনুরোধ সহ পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি ও মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর,কুলাউড়াকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ সহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

০১.পুলিশ বিভাগ

০২. বিজিবি

০৩. মাদক নিয়ন্ত্রণ

    অধিদপ্তর,কুলাউড়া।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, উপজেলার ভজিটিলা গুচ্ছগ্রাম হতে টিলা ও কবরস্থানের মাটি ট্রাক,পিক আপ ও ট্রলি দিয়ে রাতের আধারে বিক্রি করা হচ্ছে মর্মে প্রায়ই অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। অবৈধভাবে টিলা/করবস্থান কেটে মাটিকাটা রোধসহ জড়িত ব্যক্তিগণের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধ করেন।

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার অন্যতম প্রধান শর্ত আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ। ইতিবাচক মানসিকতা,মেধা,প্রজ্ঞা ও দুরদর্শিতার প্রয়োগ ঘটিয়ে বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি মোকাবেলার মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড অব্যাহত রাখতে যথাযথ ভূমিকা পালন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান। সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি,গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অফিসার ইনচার্জ,জুড়ী থানাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানিয়ে এবং উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে সকলের সহায়তা কামনা করে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

 

( মোহাম্মদ নাজমুল হাসান )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার(অঃদাঃ)

সভাপতি

উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটি

জুড়ী, মৌলভীবাজার।

ফোন-০৮৬২৭-৫৭০০১(অফিস)

 

স্মারকনং-৪৬.৬০,৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪-                                                                            তারিখ- . . . . . ..২০১৫ খ্রিঃ।

 

বিতরনঃ-সদয় জ্ঞাতার্থেঃ-

০১. মাননীয় হুইপ,বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।

০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

০৩. জেলা প্রশাসক,মৌলভীবাজার।

০৪.  উপ পরিচালক,স্থানীয় সরকার শাখা,মৌলভীবাজার।

০৫. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান,জুড়ী।

০৬. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থেঃ-

০৭. উপজেলা ............................................... . .. . ... . . . . . . . ..জুড়ী।

০৮. চেয়ারম্যান............................................. ইউ/পি,জুড়ী(সকল)।

০৯. জনাব . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .. . . . . . . .

 

 

 

 

পরিশিষ্ট ‘ক’

০১. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান

০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।

০৩. ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।

০৪. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।

০৫. উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা (ভাঃ)                                                                       

০৬. অফিসার ইন চার্জ (তদন্ত),জুড়ী থানা।

০৭. উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার,জুড়ী।

০৮. প্রধান শিক্ষক,জুড়ী মডেল  উচ্চ বিদ্যালয়।

০৯. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি           

১০. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি

১১. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি

১২. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি

১৩. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি

১৪. চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি

১৫  জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ।

১৬. জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ,জুড়ী।

১৭. কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।

১৮.অধ্যক্ষ,শাহ খাকী দাখিল মাদ্রাসা।

১৯. প্রধান শিক্ষক, জুড়ী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়

২০. সভাপতি,উপজেলা প্রেস ক্লাব।

২১. জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুঃপ্রঃকঃ,জুড়ী।

২২. কমান্ডার,জুড়ী বিজিবি।

২৩. কমান্ডার,ফুলতলা বিজিবি।

২৪. জনাবা অঞ্জলী কর্মকার,কাপনাপাহাড়।

২৫. জনাবা সুশান্তি বালা রায়,কৃষ্ণনগর

২৬. জনাবা দিপ্তীরাণী বিশ্বাস,আমতৈল।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

   ২৮.০৭.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভার কার্যবিবরণীঃ-

 

সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ নাজমুল হাসান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার(অঃদাঃ),জুড়ী।

            

তারিখ   ঃ-     ২৮/০৭/২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১০.৩০ মিঃ।

স্থান     ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।        

সভাপতি  উপস্থিত সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরু করেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান,জনাব গুলশান আরা মিলি,ভাইস চেয়ারম্যান জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি এবং মহিরা ভাইস চেয়ারম্যান মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি প্রথমেই জুড়ী উপজেলার চোরাচালান প্রতিরোধে অগ্রগতি পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। 

সভায় জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি, জনাব মোঃ ফয়াজ আলী,চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি, জনাব শাহাব উদ্দিন আহমেদ লেমন,চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি,জনাব মোঃ সালেহ উদ্দিন আহমেদ,চেয়ারম্যান পূর্বজুড়ী ইউ/পি,জনাব মোঃ নজমুল ইসলাম,চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি,বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী, অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা,রেঞ্জ কর্মকর্তা এবং জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন ,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ অন্যান্য গন্যমান্য সদস্যগণ আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।                    

০১.সভায় সীমান্তে চোরাচালান প্রতিরোধ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনান্তে সীমান্তের সার্বিক অবস্থা ভালো বলে সভায় জানানো হয়। সীমান্তে গরু ও কাঠ চুরি রোধ এবং সীমান্ত এলাকায় অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকল্পে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বর্ডার এলাকায় যাতে কেউ বর্ডার অতিক্রম না করে সে বিষয়টি প্রচারের জন্য সভায় অনুরোধ করা হয়। জুড়ী ও ফুলতলার কমান্ডারগণের বক্তব্যে জানা যায় যে,বর্তমানে সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান তৎপরতা নাই বললে চলে। স্থানীয় ইউ/পি সদস্য,চেয়ারম্যান এবং স্থানীয় জনসাধারণের  আরো সহযোগিতা পেলে চোরাচালান একদম বনদ্ধ হয়ে যাবে। সীমান্তবর্তী জনসাধারণকে নিয়ে সীমান্ত সম্পর্কে সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রাখার জন্য বিজিবিকে অনুরোধ করা হয়।

        অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা বলেন,চোরাচালান অভিযানে পুলিশ বিভাগ খুবই তৎপর। বিজিবি যদি চোরাচালান রোধকল্পের পাশাপাশি মেইন রোডে টহল বৃদ্ধি করে তাহলে সন্ত্রাসীরা সাহস পাবে না। সীমান্তবর্তী এলাকায় মাদকদ্রব্য পাচার নিয়ন্ত্রণে বিজিবি ও ইউ/পি চেয়ারম্যান সাহেব সহ সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বারগণ আরো তৎপর হলে চোরাচালান অনেকটা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। রাষ্ট্রীয় সম্পদ ও জনগণের জীবন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে বিরাজমান সংকট নিরসন ও আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যক্তিদের সম্পৃক্ত করে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। সার্বিকভাবে এলাকার জনসাধারণ,জনপ্রতিনিধি সহ সকলের সহযোগীতায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে ও চোরাচালান প্রতিরোধে সংশ্লিষ্ট সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন।

সিদ্ধান্তঃ- (ক)অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের প্রবণতা নিরুৎসায়িতসহ চোরাচালান বিরোধী অভিযান এর সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করা প্রয়োজন  এবং ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় কমিটির সভায় জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে উদ্বুদ্ধকরণ কার্যক্রম গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

               (খ)বিজিবি সদস্যগণ সীমান্ত এলাকা স্বাভাবিক রাখতে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ অব্যাহত রাখবেন। কোন অবৈধ মালামাল যাতে এদেশে কোন রকমে প্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়ে বিজিবি সতর্ক থাকার এবং  চোরাচালান অভিযানে গ্রেফতারকৃত এবং অভিযুক্ত চোরাকারবারীদের বিচারের মাধ্যমে শাস্তি নিশ্চিত করতে আইনগত ও সম্ভাব্য সকল ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়।

০২.চোরাচালান টাস্কফোর্স অভিযান বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। বিজিবি জানান,সীমান্তে নিয়মিত বিএসএফ এর সাথে সভা হয়,স্বাভাবিক টহল অব্যাহত আছে। চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি জানান, ফুলতলা বিজিবি কর্তৃপক্ষ বাজারে কিংবা যে কোন স্থানে সাধারণ জনগণকে প্রায়ই চেকআপ করে অযথা হয়রানি করছে। তিনি সাধারণ জনগণকে অযথা হয়রানি না করার জন্য বিজিবিকে অনুরোধ করেন।

সিদ্ধান্তঃ-(১) চোরাচালান অভিযানে থানার সাথে যোগাযোগ পূর্বক বিজিবি ইনচার্জগণ প্রতিমাসে টাস্কফোর্স অভিযান পরিচালনার উদ্যোগ গ্রহণ করবেন এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করবেন।

০৩.ইউনিয়ন পর্যায়ে চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় সভা অনুষ্ঠান নিয়ে সভায় আলোচনা হয়। উপস্থিত সীমান্তবর্তী ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ সীমান্ত এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে মর্মে সভাকে জানান এবং ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা নিয়মিত হচ্ছে বলে জানান। চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনায় উক্ত সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হলে চোরাচালান প্রতিরোধ করা অনেকটা সম্ভবপর হবে মর্মে মত প্রকাশ করা হয়। গ্রেফতারকৃত চোরাকারবারীরা যাতে আইনের ফাঁক-ফোঁকরে বের হতে না পারে সে দিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার জন্য এবং সকল সীমান্তবর্তী ইউনিয়নে বিজিবির সাথে আলোচনা করে সভার তারিখ নির্ধারণ করে ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা নিয়মিত অনুষ্ঠান নিশ্চিত করার বিষয়ে পুনঃ অনুরোধ করা হয়।

সিদ্ধান্তঃ-উপজেলার সীমান্তবর্তী ১) ফুলতলা ২) সাগরনাল ৩) গোয়ালবাড়ী ৪) পূর্বজুড়ী ইউনিয়ন চোরাচালান প্রতিরোধ সমন্বয় কমিটির সভা বিজিবি প্রতিনিধির উপস্থিতিতে জুলাই/১৫ খ্রিঃ মাসে অনুষ্ঠিত হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ নিয়মিত বিজিবি এবং আনসার ভিডিপি

সদস্যদের উপস্থিতি নিশ্চিত করে সভা অনুষ্ঠান করে প্রতি মাসের ৩০ তারিখের মধ্যে আবশ্যিকভাবে সভার কার্যবিবরণী এবং নোটিশের সার্ভিস রিটার্ণ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে প্রেরণ করার জন্য পুনঃ অনুরোধ সহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

০৪.জ্বালানি তেলের পাচার রোধ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। সভাপতি বলেন,সীমান্ত এলাকায় অনুপ্রবেশ প্রতিরোধকল্পে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া সহ  সীমান্ত পথে তেল চোরাচালান ও পাচার বা এ উদ্দেশ্যে মজুদের অপচেষ্টা রোধ এবং মাদকদ্রব্যসহ চোরাচালান প্রতিরোধে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। চোরাচালান প্রতিরোধসহ বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করা হয়।  জ্বালানি তেলের তথ্যাদি নিম্নরূপ-

জ্বালানী তেলের নাম

জুন/১৫ মাসের মজুদ(লিঃ)

জুন/১৫

মাসে উত্তোলন  (লিঃ)

 

মোট মজুদ(লিঃ)

জুলাই/১৫ মাসে মোট বিক্রয়(লিঃ)

বিক্রয় শেষে মোট মজুদ (লিঃ)

মন্তব্য

পেট্রোল

১,১২৪  লিঃ

৭,০০০

৮,১২৪

৬,০৭৮

২,০৪৬ লিঃ

 

অকটেন

৫৫০   লিঃ

২,৪০০

২,৯৫০

২,৫১৫

৪৩৫ লিঃ

 

ডিজেল

৩,১০৪  লিঃ

৩২,৪০০

৩৫,৫০৪

২৯,৩৯৭

৬,১০৭ লিঃ

 

 

সিদ্ধান্তঃ-জ্বালানী তেলের সরবরাহ,বিক্রয় কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ ও নজরদারী বৃদ্ধি এবং সীমান্ত পথে তেল চোরাচালান ও পাচার বা এ উদ্দেশ্যে মজুদের অপচেষ্টা রোধে সতর্ক দৃষ্টি রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

০৫.সভায় পুলিশ বিভাগ,বন বিভাগ,মৎস্য বিভাগ ও বিজিবি কর্তৃক চোরাচালান প্রতিরোধে গৃহীত কার্যক্রম উপস্থাপনের বিষয়ে আলোচনা হয়। আলোচ্যমাসে সীমান্ত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করায়  বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডারগণকে ধন্যবাদ জানানো হয় এবং অভিযানের সংখ্যা আরো বৃদ্দি করার জন্য জুড়ী বিজিবি ক্যাম্প এবং ফুলতলা বি জি বি ক্যাম্প সহ অন্যান্য ক্যাম্প কমান্ডারগণের প্রতি অনুরোধসহ পুলিশ বিভাগের চোরাচালান বিরোধী অভিযানের কার্যক্রম জোরদার করার অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ক্রঃনং

তারিখ

অভিযানে অংশ গ্রহণকারী বিভাগ/ফোর্স

বিবরণ

০১

 

 

 

   জুলাই/১৫

ফুলতলা বিজিবি

বিভিন্ন প্রকার মদ -৬০ বোতল, ফেন্সিডিল-৯৫,মোটর সাইকেল,কাঠ,বাঁশ

০২

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মোকামটিলা বিজিবি

------

০৩

রাজকী বিজিবি

বিভিন্ন প্রকার মদ ও ফেন্সিডিল

 

 

 

জুড়ী বিজিবি

গন্ধকের মুল,বাঁশ,নাসির বিড়ি,গাজা ও বাইসাইকেল

সিদ্ধান্তঃ-পুলিশ বিভাগ,বন বিভাগ,মৎস্য বিভাগ ও বিজিবি কর্তৃক প্রতি মাসে চোরাচালান প্রতিরোধ টাস্কফোর্স অভিযানসহ গৃহীত কার্যক্রম উপরে বর্ণিত ছকে প্রতি মাসের ০২ তারিখের মধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে প্রেরণ অব্যাহত রাখবেন।

 

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবং ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার অন্যতম প্রধান শর্ত আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ,পূর্বের যে কোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ভালো,আর চোরাচালান নেই বললে চলে।। ইতিবাচক মানসিকতা,মেধা,প্রজ্ঞা ও দুরদর্শিতার প্রয়োগ ঘটিয়ে বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি মোকাবেলার মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড অব্যাহত রাখতে যথাযথ ভূমিকা পালন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, দেশের সকল প্রয়োজন ও সংকটকালে বাংলাদেশ পুলিশ জনগণের জীবন ও সম্পদের নিরাপত্তা বিধানে নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করছে। তাছাড়া  ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ে নিয়মিত সভা করে আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ সহ  উপজেলা ব্যাপী পুলিশের মাধ্যমে রনপাহারা জোরদার করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যান ও পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করেন। 

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন,জুড়ী উপজেলায় চোরাচালান নেই বললে চলে,তবে আত্নসন্তুষ্টির কোন অবকাশ নেই। আমরা সবাই সম্মিলিত ভাবে উদ্যোগ নিলে আশা করি এ এলাকায় অপরাধ থাকবে না। তিনি চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভায়  গৃহীত  সিদ্ধান্ত সমূহ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট  সকলকে অনুরোধপূর্বক আর কোন আলোচ্য বিষয় না থাকায় ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোণনা করেন।

 

 

 

 

 

 

( মোহাম্মদ নাজমুল হাসান )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার(অঃদাঃ)

সভাপতি

                                                                                                                             উপজেলা চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটি

জুড়ী, মৌলভীবাজার।

স্মারক নং- ৪৬.৬০,৫৮৩৫.০০৪.০৬.০০১.২০১০-                           তারিখ- . . . . . . . . . . . . . .২০১৫ খ্রিঃ।

 

বিতরনঃ-সদয় জ্ঞাতার্থেঃ-

০১. মাননীয় হুইপ,বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।

০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

০৩. জেলা প্রশাসক,মৌলভীবাজার।

০৪. উপ পরিচালক,স্থানীয় সরকার শাখা,মৌলভীবাজার।

০৫. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান,জুড়ী।

০৬. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থেঃ-

০৭. জনাব. . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .  

 

 

 

 

 

 

 

 

২১.০৬.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত সন্ত্রাস  ও নাশকতা প্রতিরোধ সংক্রান্ত উপজেলা কমিটির  সভার কার্যবিবরণী ঃ-

 

 

সভাপতি ঃ-     মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম

                   উপজেলা নির্বাহী অফিসার

                   জুড়ী, মৌলভীবাজার।

 

স্থান      ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  তারিখ ঃ- ২১.০৬.২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১০.০০ মিঃ।

 

        সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। প্রথমে সভাপতি উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সদস্যগণকে মাহে রমজান ও পবিত্র ঈদ-উল ফিতরকে সামনে রেখে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের শুভেচ্ছা জানিয়ে এ উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক জীবনযাপন বজায় রাখা,সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড পরিচালনায় সহযোগীতা করণসহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে কার্যকরী ভূমিকা পালনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে সুচিন্তিত মতামত কামনা করেন।  সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব গুলশান আরা মিলি,চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।  সভায় জনাব আব্দুল কাদির দারা,সভাপতি,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জ বাজার ব্যবঃ সমিতি, বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী/ফুলতলা জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার,মুক্তিযুদ্ধা ইউনিট,প্রধান শিক্ষক,জুড়ী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়,চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর/পশ্চিমজুড়ী/পূর্বজুড়ী/গোয়ালবাড়ী/ফুলতলা ইউ/পি,জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমদ,যুগ্ন আহবায়ক,জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ অন্যান্য গন্যমান্য সদস্যগণ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি সভায় উপস্থাপনের মধ্যে দিয়ে সুচিন্তিত মতামত ব্যক্ত করেন।

 

অফিসার ইন চার্জ(তদন্ত)জুড়ী থানা  বলেন, দুস্কৃতিকারীগণ কর্তৃক নাশকতামূলক ঘটনা মোকাবেলায় আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বাহিনী তৎপর রয়েছে এবং নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জুড়ী উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণ জীপনযাপনের স্বার্থে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে সঠিক তথ্য প্রদান করে সহযোগীতা করার জন্য কমিটির সম্মানিত সদস্যগণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান। উপজেলার কোথাও কেউ যাতে অবাধ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনরূপ নাশকতা চালাতে না পারে তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে ইউনিয়ন কমিটি সমূহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দ্রুত তথ্য সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন।

             

               আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার,বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখার এবং আইন-শৃংখলা স্বাভাবিক রাখার জন্য প্রত্যেক ইউনিয়ন পর্যায়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সকল পেশাজীবি,ধর্মীয় ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ সহযোগে আইন প্রয়োগকারী কর্তৃপক্ষ,জনপ্রতিনিধি,সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গ,ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান,বাজার কমিটি,বাস-ট্রাক মালিক সমিতি,বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন,মসজিদ,মন্দির,গীর্জা কমিটি ও বিভিন্ন ক্লাব-সমিতির সদস্যদের সহযোগে গঠিত ইউনিয়নও ওয়ার্ডসন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটি কর্তৃক নিয়মিত সভা করে সভার কার্যবিবরণী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে প্রেরণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন।

 

            উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরো বলেন ইউনিয়ন পরিষদের আওতাধীন গ্রাম পুলিশের সদস্যগণকে যথোপযুক্ত স্থানে রাত্রিকালীন পাহারায় নিয়োজিত করতে হবে। ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের কমিটি উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের অনুরোধ জানান এবং কোন ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা পরিষদের চেয়ারম্যান বা সদস্য শৈথিল্য প্রদর্শন করলে স্বীয় দায়িত্বে অবহেলা এবং সরকারী কাজে অসহযোগিতা হিসেবে গণ্য হবে।

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ

 

০১

উপজেলার কোথাও কেউ যাতে অবাধ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনরূপ নাশকতা চালাতে না পারে তা নিশ্চিতকরণের স্বার্থে ইউনিয়ন কমিটি সমূহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে দ্রুত তথ্য সরবরাহ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ পূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

০১.পুলিশ বিভাগ,জুড়ী থানা।

০২. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।

 

স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান প্রধান।

 

 

০২

ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠান অব্যাহত রাখাসহ এ সংক্রান্ত তথ্য সাপ্তাহিক ভিত্তিতে ( প্রতি রোববার) উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী বরাবর প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ জানানো হলো।

 

০২. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।

 

০৩

রাতের বেলায় সন্দেহভাজন বহিরাগত লোকদের আনাগোনা,গভীর রাতে গাড়ি চলাচলের বিষয়ে নজরদারী বৃদ্ধিসহ সার্বক্ষণিক টহল অব্যাহত রাখার জন্য সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

০১.পুলিশ বিভাগ,জুড়ী থানা।

 

 

০৪

প্রতি মাসের ৩০ তারিখের পূর্বে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও অফিসার ইন চার্জ এবং বিজিবি কমান্ডার সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সভার তারিখ অবহিত করে আবশ্যিকভাবে ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়মিত/ওয়ার্ড সভা করার এবং সন্ত্রাস ও নাশকতা কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সকল ইউ/পিচেয়ারম্যানগণকে অনুরোধ পূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

০১. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।

                                                                                                                                                                      অঃপৃঃদ্রঃ

 

(২)

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নকারী কর্তৃপক্ষ

 

০৫

ইউনিয়ন পরিষদের আওতাধীন গ্রাম পুলিশের সদস্যগণকে যথোপযুক্ত স্থানে রাত্রিকালীন পাহারায় নিয়োজিত করতে হবে। ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের কমিটি উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের অনুরোধ জানান এবং কোন ইউনিয়ন পরিষদ কিংবা পরিষদের চেয়ারম্যান বা সদস্য শৈথিল্য প্রদর্শন করলে স্বীয় দায়িত্বে অবহেলা এবং সরকারী কাজে অসহযোগিতা হিসেবে গণ্য হবে।

 

  

  ০১. চেয়ারম্যান,সকল ইউ/পি,জুড়ী।

 

 

সভায় উপস্থিত মিসেস রণজিতা শর্ম্মা,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ,জনাব বিধান দাস বাদল,সভাপতি,উপজেলা কৃষকলীগ,জনাব জাহাঙ্গীর আলম,সদস্য,উপজেলা আওয়ামীলীগ,জনাব আব্দুল কাদির দারা,ব্যবসায়ী,সভাপতি/সম্পাদক,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জবাজার,জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ,যুগ্ন আহবায়ক,জনাব আলহাজ্ব অজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক,জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ সভায় উপস্থিত অন্যান্য সদস্যগণ বলেন, উপজেলার আইন-শৃংখলাসহ সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা,সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ সমুন্নত রাখার নিমিত্ত উপজেলা,ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে সন্ত্রাশ ও নাশকতা প্রতিরোধমূলক এ সভা অনুষ্ঠান ও গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সকলের আন্তরিক প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রাখার আহবান জানানো হয়। কতিপয় উচ্ছৃংখল জনগোষ্ঠির মদদে সৃষ্ট পরিস্থিতি সময়োপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণ করার মাধ্যমে সন্ত্রাস ও নাশকতামূলক কর্মকান্ড প্রতিরোধ করা সম্ভব হওয়ায় সভায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে ভবিষ্যতেও এ ধারা অব্যাহত রাখা উচিৎ মর্মে মতামত ব্যক্ত সহ সভায় বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি নিয়ে সভায় আলোচনা  এবং সুচিন্তিত মতামত ব্যক্ত করা হয়। এবং জুড়ী উপজেলায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার নিমিত্ত সভায় গৃহীত সিদ্ধান্ত সমূহ বাস্তবায়ন করবেন বলে মত প্রকাশ করেন।

 

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, জুড়ী উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক ও শান্তিপূর্ণ জীপনযাপনের স্বার্থে সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে সঠিক তথ্য প্রদান করে সহযোগীতা করার জন্য কমিটির সম্মানিত সদস্যগণসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন।  রাজনৈতিক,সামাজিক ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে শান্তিপ্রিয় জুড়ীবাসীর যথেষ্ট অবদান রয়েছে। তিনি দুষ্কৃতীকারীদের বিরুদ্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলাসহ গণসচেতনতামূলক কার্যক্রম আরো গতিশীল করার পদক্ষেপ গ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করেন।

 

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, মুসলিম উম্মাহর জন্য রমজান একটি গুরুত্বপূর্ণ ও পবিত্র মাস। বিগত বছরসমূহের ন্যায় এ বছরও যাতে জুড়ী উপজেলায় নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর মূল্য ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকে,নিরাপদে ও শান্তিতে পবিত্র রমজানের সিয়াম পালন এবং উৎসাহ উদ্দীপনার মাধ্যমে জুড়ীবাসী যাতে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে পারেন সে দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন। সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি,গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অফিসার ইনচার্জ,জুড়ী থানাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানিয়ে এবং উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে এবং সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধে সকলের সহায়তা কামনা করে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

 

 

 

 

 

 

( মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

সভাপতি

উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটি

জুড়ী, মৌলভীবাজার।

ফোন-০৮৬২৭-৫৭০০১(অফিস)

স্মারক নং- ৪৬.৬০.৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪.৫১৪(৪০)                                                 তারিখ- ২১.০৬ .২০১৫ খ্রিঃ।

অনুলিপিঃ- সদয় অবগতির জন্য।

 

১। মাননীয় হুইপ,জাতীয় সংসদ (মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)

২। কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

৩। জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজার।

৪। পুলিশ সুপার, মৌলভীবাজার।

৫। উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ,উপজেলা পরিষদ  ,জুড়ী।

অবগতি ও কার্যার্থেঃ-

৬। ভাইস চেয়ারম্যান/ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

৭। উপজেলা -------------    ------------------------- কর্মকর্তা, জুড়ী।

৮। চেয়ারম্যান,------------------------------------ইউ/পি(সকল) জুড়ী।

৯। জনাব .................................................................................

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

২১.০৬.২০১৫ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভার কার্যবিবরণীঃ-

 

 

সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী।

            

তারিখ   ঃ-     ২১/০৬/২০১৫ খ্রিঃ, বেলা ১০.৩০ মিঃ। স্থান ঃ-  উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।

 

 

সভায় উপস্থিত সকল সদস্যগণকে সভাপতি মহোদয়ের শুভেচ্ছা জ্ঞাপন ও স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। প্রথমে সভাপতি উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সদস্যগণকে মাহে রমজান ও পবিত্র ঈদ-উল ফিতরকে সামনে রেখে মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের শুভেচ্ছা জানিয়ে এ উপজেলার জনসাধারণের স্বাভাবিক জীবনযাপন বজায় রাখা,সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড পরিচালনায় সহযোগীতা করণসহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে কার্যকরী ভূমিকা পালনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং বর্তমান এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে সুচিন্তিত মতামত কামনা করেন।  সভায় উপস্থিত ছিলেন জনাব গুলশান আরা মিলি,চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, মিসেস রণজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি কর্তৃক প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।  সভায় জনাব আব্দুল কাদির দারা,সভাপতি,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জ বাজার ব্যবঃ সমিতি, বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী/ফুলতলা জনাব কুলেশ চন্দ্র চন্দ,কমান্ডার,মুক্তিযুদ্ধা ইউনিট,প্রধান শিক্ষক,জুড়ী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়,চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর/পশ্চিমজুড়ী/পূর্বজুড়ী/গোয়ালবাড়ী/ফুলতলা ইউ/পি,জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমদ,যুগ্ন আহবায়ক,জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ অন্যান্য গন্যমান্য সদস্যগণ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি সভায় উপস্থাপনের মধ্যে দিয়ে সুচিন্তিত মতামত ব্যক্ত করেন।

 

উপস্থিত সদস্যগণ পবিত্র রমজান মাস এবং ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির মূল্য স্থিতিশীলসহ জুড়ী উপজেলায় সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার লক্ষ্যে সভায় উপস্থিত সম্মানিত সদস্যগণ মূল্যবান বক্তব্য ও সুচিন্তিত মতামত তুলে ধরেন। উপজেলার সন্ত্রাসী কর্মকান্ড,চুরি,ছিনতাইসহ সকল প্রকার অপরাধমূলক কর্মকান্ড প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে কার্যকরি ব্যবস্থা গ্রহণ সহ কমিউনিটি পুলিশিং এর সার্ভিস এবং ইউনিয়ন পরিষদে ও ওয়ার্ড পর্যায়ে আইন শৃংখলা উন্নয়ন কমিটি গঠন করে নিয়মিত সভা অনুষ্ঠান সহ কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করার বিষয়ে সভায় আলোচনা করা হয়। উপজেলার বর্তমান আইনশৃংখলাসহ সার্বিক পরিস্থিতি সন্তোষজনক বিবেচনায় এ ধারা অব্যাহত রাখার স্বার্থে আরো বেশী সংখ্যক হারে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার দাবী উত্থাপন করা হয়। জুড়ী উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। উক্ত ধারা অব্যাহত রাখার নিমিত্তে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগীতা কামনা করা হয়।

সভায় জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন,আহবায়ক ও জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ,যুগ্ন আহবায়ক, উপজেলা আওয়ামীলীগ বলেন,সাম্প্রতিক সময়ে দুষ্কৃতিকারীগণের তৎপরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। জুড়ীবাসী নির্বিঘ্নে ও নিরাপদে জীপনযাপন করছেন,এ ধারা অব্যাহত রাখার প্রত্যাশাসহ দুষ্কৃতিকারীগণ যাতে ভবিষ্যতে কোন ধরনের সহিংসতা,সন্ত্রাস ও নাশকতামূলক কর্মকান্ড চালাতে না পারে এবং মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধের দায়ে বিজ্ঞ আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনাল কর্তৃক প্রদত্ত মামলার রায় ঘোষণা ও কার্যকর করাকে কেন্দ্র করে বিশৃঙ্খলা ও অরাজকতা সৃষ্টি করতে না পারে সে বিষয়ে পূর্বসতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি একে অন্যের পারষ্পিক সহযোগীতা কামনা করেন। 

অফিসার ইন চার্জ(তদন্ত),জুড়ী থানা বলেন,সকলের সহযোগীতায় উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। পবিত্র রমজান মাস ও ঈদ-উল-ফিতরকে সামনে রেখে উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্থিতিশীল রাখার স্বার্থে প্রয়োজনীয় এবং যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। জনসাধারণের জানমাল সু-রক্ষায় আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী সর্বদাই সচেষ্ট ও সতর্কাবস্থায় রয়েছে। অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণের দৃষ্টি আকর্ষণপূর্বক,এলাকায় অপরিচিত লোক দেখা গেলে এবং কোন ধরণের সন্দেহের সৃষ্টি হলে আইন-শৃংখলা বাহিনীকে জানানোর জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন। এলাকার সুধীজন,সুশীল সমাজ ও গণমানুষের আন্তরিক সহযোগীতা ও প্রেরণা পুলিশ বাহিনীর প্রত্যয়কে আরো দৃঢ় করবে বলে মত প্রকাশ করেন।

 

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

০১

 

অসাধু ব্যবসায়ীরা খাদ্যদ্রব্য মজুদ রেখে যাতে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি/মূল্য বৃদ্ধি করতে না পারে সে বিষয়ে মনিটরিং জোরদার করার  এবং পবিত্র রমজান ও পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরকে সামনে রেখে সন্ত্রাসী,চাঁদাবাজি,ছিনতাইকারী এবং দুস্কৃতিকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় প্রদক্ষেপ গ্রহণ বিশেষ করে রাত্রিকালীন টহল বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।

 

০২

পবিত্র রমজান ও পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে ক্রেতা ও ব্যবসায়ীরা যাতে নির্বিঘ্নে ক্রয়-বিক্রয় করতে পারে এবং চাঁদাবাজি রোধকল্পে নজরদারী বৃদ্ধিসহ পুলিশ টহল জোরদার করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

 

০৩

ইউনিয়ন পরিষদে ও ওয়ার্ড পর্যায়ে আইন শৃংখলা উন্নয়ন কমিটি গঠন করে কমিটি প্রতি মাসে একবার মিলিত হয়ে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের আইন শৃংখলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে রিপোর্ট দাখিল ও নিয়মিত সভা অনুষ্ঠান সহ কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করার বিষয়ে সকল ইউ/পি চেয়ারম্যান এবং সন্ত্রাসী,ছিনতাইকারী এবং দুস্কৃতকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ সহ জঙ্গি তৎপরতা প্রতিরোধে নজরদারি বৃদ্ধি,জননিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সদা সতর্ক থেকে দায়িত্ব পালন করার জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

০১.অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।

০২. ইউ/পি

চেয়ারম্যান(সকল)

 

 

০৪

এলাকায় কোন অপরিচিত লোক বা সন্দেহভাজন ব্যক্তির উপস্থিতি পরিলক্ষিত হলে অবিলম্বে থানায় সংবাদ প্রেরণের এবং মসজিদ বা অন্যান্য উপাসনালয়ের মাইক ব্যবহার করে কেউ যাতে সাধারণ মানুষকে উস্কানী দিয়ে কোনভাবে কারো বিরুদ্ধে উত্তেজিত করতে না পারে সে বিষয়ে সদা সতর্ক থাকার অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

      ঐ

                                                                                                                                                                                                                                           

 

                                                                                                                                                                                                                                                    অঃপৃঃদ্রঃ

 

(২)

০২.ইউনিয়ন আইন-শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠান প্রসংগেঃইউনিয়ন আইন-শৃংখলা সংক্রান্ত সভা অনুষ্ঠানের বিষয়ে সভায় আলোচনা করা হয়।

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

০১

ইউনিয়ন পরিষদে ও ওয়ার্ড পর্যায়ে আইন শৃংখলা উন্নয়ন কমিটি গঠন করে কমিটি প্রতি মাসে একবার মিলিত হয়ে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের আইন শৃংখলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে রিপোর্ট দাখিল ও নিয়মিত সভা অনুষ্ঠান সহ কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ সহ প্রতিমাসের ৩০ তারিখের পূ©র্ব আবশ্যিকভাবে সভার কার্যবিবরণী / সার্ভিস রিটার্ণ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে দাখিল এবং উপজেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত আইন-শৃংখলা,চোরাচালান ও সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকার পুনঃ অনুরোধসহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

ইউ/পি চেয়ারম্যান

(সকল)

 

 

 

 

০৩.মোবাইল কোর্ট সংক্রান্তঃ- উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান,জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট অব্যাহত আছে।

 

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

০১

জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত থাকবে,রেল কলোনীতে নিয়মিত টহল প্রদানের জন্য পুলিশ বিভাগ ও বিজিবিকে অনুরোধ পূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি

 

 

 

০২

 

ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ স্ব স্ব অধিক্ষেত্রের বাজার ব্যবসায়ীদের মূল্য তালিকা টানানোর বিষয়টি নিশ্চিত করবেন। এ ব্যাপারে মাইকিং করানোর জন্যও সংশ্লিষ্ট বাজার কমিটিকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ইউ/পি চেয়ারম্যান(সকল)

২. সভাপতি/সম্পাদক

বাজার কমিটি

 

 

০৩

মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন জোরদার সহ মদ/গাজা বিক্রির বিভিন্ন স্পটে যেমন রেল কলোনী,বজিটিলা,জুড়ী স্কুল রোড় সহ অন্যান্য স্থানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনার অনুরোধ সহ পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি ও মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর,কুলাউড়াকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ সহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

০১.পুলিশ বিভাগ

০২. বিজিবি

০৩. মাদক নিয়ন্ত্রণ

    অধিদপ্তর,কুলাউড়া।

 

 

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার অন্যতম প্রধান শর্ত আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ। ইতিবাচক মানসিকতা,মেধা,প্রজ্ঞা ও দুরদর্শিতার প্রয়োগ ঘটিয়ে বিরাজমান আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি মোকাবেলার মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড অব্যাহত রাখতে যথাযথ ভূমিকা পালন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানান। তিনি আরো বলেন, দেশের সকল প্রয়োজন ও সংকটকালে বাংলাদেশ পুলিশ জনগণের জীবন ও সম্পদের নিরাপত্তা বিধানে নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করছে। তাছাড়া  ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ে নিয়মিত সভা করে আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ সহ উপজেলা ব্যাপী পুলিশের মাধ্যমে রনপাহারা জোরদার করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যান ও পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করেন। 

 

 

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, মুসলিম উম্মাহর জন্য রমজান একটি গুরুত্বপূর্ণ ও পবিত্র মাস। বিগত বছরসমূহের ন্যায় এ বছরও যাতে জুড়ী উপজেলায় নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর মূল্য ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে থাকে,নিরাপদে ও শান্তিতে পবিত্র রমজানের সিয়াম পালন এবং উৎসাহ উদ্দীপনার মাধ্যমে জুড়ীবাসী যাতে ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে পারেন সে দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেন। সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি,গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অফিসার ইনচার্জ,জুড়ী থানাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানিয়ে এবং উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে সকলের সহায়তা কামনা করে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

 

 

 

 

 

( মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

সভাপতি

উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটি

জুড়ী, মৌলভীবাজার।

স্মারকনং-৪৬.৬০,৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪-                                                                                                                 তারিখ- . . . . . ..২০১৫ খ্রিঃ।

 

বিতরনঃ-সদয় জ্ঞাতার্থেঃ-

০১. মাননীয় হুইপ,বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।

০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

০৩. জেলা প্রশাসক,মৌলভীবাজার।

০৪.  উপ পরিচালক,স্থানীয় সরকার শাখা,মৌলভীবাজার।

০৫. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান,জুড়ী।

০৬. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থেঃ-

০৭. উপজেলা ............................................... . .. . ... . . . . . . . ..জুড়ী।

০৮. চেয়ারম্যান............................................. ইউ/পি,জুড়ী(সকল)।

০৯. জনাব . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .. . . . . . . .

 

 

 

 

পরিশিষ্ট ‘ক’

০১. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান

০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।

০৩. ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।

০৪. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ।

০৫. উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা (ভাঃ)                                                                       

০৬. অফিসার ইন চার্জ (তদন্ত),জুড়ী থানা।

০৭. উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার,জুড়ী।

০৮. প্রধান শিক্ষক,জুড়ী মডেল  উচ্চ বিদ্যালয়।

০৯. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি           

১০. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি

১১. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি

১২. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি

১৩. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি

১৪. চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি

১৫  জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ।

১৬. জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ,জুড়ী।

১৭. কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।

১৮.অধ্যক্ষ,শাহ খাকী দাখিল মাদ্রাসা।

১৯. প্রধান শিক্ষক, জুড়ী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়

২০. সভাপতি,উপজেলা প্রেস ক্লাব।

২১. জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুঃপ্রঃকঃ,জুড়ী।

২২. কমান্ডার,জুড়ী বিজিবি।

২৩. কমান্ডার,ফুলতলা বিজিবি।

২৪. জনাবা অঞ্জলী কর্মকার,কাপনাপাহাড়।

২৫. জনাবা সুশান্তি বালা রায়,কৃষ্ণনগর

২৬. জনাবা দিপ্তীরাণী বিশ্বাস,আমতৈল।

 

 

 

 

 

 

 

২৯.১০.২০১৪ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভার কার্যবিবরণীঃ-

 

সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী      

তারিখ   ঃ-     ২৯/১০/২০১৪ খ্রিঃ, বেলা ১০.৩০ মিঃ।

স্থান     ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।  

             

 সভাপতি  উপস্থিত সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরু করেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের (ভাঃ) চেয়ারম্যান,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি । সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। 

সভায় জনাব সভাপতি,কামিনীগঞ্জ/ভবানীগঞ্জ বাজার ব্যবঃ সমিতি,আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি, জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ,যুগ্ন আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ, জনাব মোঃ ফয়াজ আলী,চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি,জনাব মোঃ লিয়াকত আলী,চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি,জনাব মোঃ নজমুল ইসলাম,চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি,বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী/ফুলতলা, জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন,আহবায়ক,উপজেলা আওয়ামীলীগ এবং জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি,উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান(ভাঃ) সহ অন্যান্য গন্যমান্য সদস্যগণ আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

 

জুড়ী উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। উক্ত ধারা অব্যাহত রাখার নিমিত্তে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগীতা কামনা করা হয়। সভায় উপস্থিত সদস্যগণ বলেন আজ মতিউর রহমান নিজামীর রায় ঘোষনা হবে তাই দুষ্কৃতকারীগণ কর্তৃক যাতে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে,জনসাধারণ যাতে শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান করতে পারে সে লক্ষ্যে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তাছাড়া রেজিস্ট্রেশন বিহীন মোটর সাইকেল,ব্যাটারী চালিত রিকসা,ইজিবাইক,টমটম চলাচল নিয়ন্ত্রণ,ফুটপাত-রাস্তাঘাট যানজটমুক্ত রাখা,যানজট সৃষ্টি রোধ এবং সন্ত্রাসী চাঁদাবাজি,চুরি,ছিনতাইসহ সকল প্রকার অপরাধমূলক কার্যক্রম প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান।

সভায় মত প্রকাশ করা হয়, অন্য যে কোন উপজেলার চেয়ে জুড়ী উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ভালো, তবে জুড়ী বিউবো কার্যালয়ে সার্বক্ষণিক কোন সিনিয়র উপ-সহকারী প্রকৌশলী এবং যানবাহন না থাকায় জুড়ীবাসী চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে তাছাড়া শহরে কুকুরের উপদ্রব সহ বিভিন্ন ইউনিয়নে গরুচোরদের উপদ্রব বেড়েছে । প্রশাসন,জনগণ ও সংগঠন এই তিনে মিলে সকল সন্ত্রাস দূর করা যাবে। নিরীহ জনগণ যাতে পুলিশী হয়রানির শিকার না হয় সে বিষয়ে সজাগ দৃষ্টি রাখার জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধ করা হয়।

 

সাব ইন্সপেক্টর,জুড়ী থানা বলেন, রাষ্ট্রীয় সম্পদ ও জনগণের জীবন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। উপজেলার যে যে এলাকায় কথিত মৌলবাদী বিশৃংখলা সৃষ্টি করছে,পুলিশ বাহিনী দ্রুত ব্যবস্থাসহ সাম্প্রতিক সময়ে বিরাজমান সংকট নিরসন ও আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যক্তিদের সম্পৃক্ত করে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে ।  রেল কলোনিতে গাঁজা ও মদ আটকে অভিযান পরিচালনা সহ সতর্ক দৃষ্টি রাখা হচ্ছে । সকল ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের এবং উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে পুলিশ বাহিনী নিয়মিত প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করছে, তাছাড়া সন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কার্মকান্ড,জঙ্গি তৎপরতাসহ জানমালের ক্ষয়ক্ষতি প্রতিরোধে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি সহ জনসাধারণকে সম্পৃক্ত করে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

০১

ক)স্ব স্ব ইউনিয়নে গরু চোরদের তালিকা করে তালিকা থানায় প্রেরণপূর্বক ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ গ্রাম পর্যায়ে কমিটি করে নৈশকালীন পাহারা জোরদারের ব্যবস্থা গ্রহণ সহ রাত্রীকালিন সময়ে পুলিশ টহল বৃদ্ধির জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা ও  সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

খ)রাষ্ট্রীয় সম্পদ ও জনগণের জীবন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ,সহনশীলতা ও পরমত সহিষ্ণুতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ব্যাপক প্রচারণা ও জনসংযোগ অব্যাহত রাখা সহ জনমনে যাতে কোনরূপ ভীতি ও অসন্তোষ সৃস্টি না হয় সেদিকে দৃষ্টি রেখে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী দায়িত্ব পালন সহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার জন্য নিয়োজিত বাহিনীর কার্যক্রম যেন জবাব দিহির আওতায় থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখার অনুরোধ পূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

গ)রেজিস্ট্রেশন বিহীন মোটর সাইকেল,ইজিবাইক,টমটম,ব্যাটারী চালিত রিকসা চলাচল নিয়ন্ত্রণ,ফুটপাত-রাস্তাঘাট যানজটমুক্ত রাখা,যানজট সৃষ্টি রোধ এবং সন্ত্রাসী,চাঁদাবাজি,চুরি,ছিনতাইসহ সকল প্রকার অপরাধমূলক কার্যক্রম প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত  হয়।

 

ঘ) উপজেলায় নিয়মিত বিদ্যুৎ সরবরাহ সচল/স্বাভাবিক রাখার জন্য জুড়ী বিউবো কার্যালয়ে সার্বক্ষণিক একজন সিনিয়র উপ-সহকারী প্রকৌশলী যানবাহন তথা জ্বালানী  সহ পদায়নের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলী,কুলাউড়াকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত  হয়।

 

ঙ)পরিষদের সাধারণ সভা/মাসিক আইন-শৃংখলা সভায় নিয়মিতভাবে নির্বাহী প্রকৌশলী ,বিউবো,কুলাউড়া ও ডিজিএম,পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি,বড়লেখাকে উপস্থিত হওয়ার জন্য অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

পুলিশ বিভাগ/

নির্বাহী    প্রকৌশলী ,বিউবো,কুলাউড়া /জি,এম,পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি,বড়লেখা/

ইউ/পি

চেয়ারম্যান (সকল)

০২.ইউনিয়ন আইন-শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠান প্রসংগেঃইউনিয়ন আইন-শৃংখলা সংক্রান্ত সভা অনুষ্ঠানের বিষয়ে সভায় আলোচনা করা হয়।

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

০১

ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ সংশ্লিষ্ট সদস্যগণকে সভার নোটিশ নিয়ে প্রতি মাসে ইউনিয়ন পর্য়ায়ে আইন-শৃংখল/চোরাচালান প্রতিরোধ সংক্রান্ত সভা অনুষ্ঠান করবেন এবং প্রতিমাসের ৩০ তারিখের পূবে আবশ্যিকভাবে সভার কার্যবিবরণী / সার্ভিস রিটার্ণ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে দাখিল এবং উপজেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত আইন-শৃংখলা,চোরাচালান ও সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকার পুনঃ অনুরোধসহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

ইউ/পি চেয়ারম্যান(সকল)

 

 

 

 

০৩.মোবাইল কোর্ট সংক্রান্তঃ- উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান,জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট অব্যাহত আছে।

 

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

০১

জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত থাকবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

 

 

 

০২

 

ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ স্ব স্ব অধিক্ষেত্রের বাজার ব্যবসায়ীদের মূল্য তালিকা টানানোর বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

ইউ/পি চেয়ারম্যান(সকল)

 

০৩

গভীর উৎকন্ঠার সাথে বলা হয়,জুড়ী উপজেলায় বিভিন্ন স্পটে ইদানিং মাদকের ব্যাপক বিস্তার লাভ করছে। যুব সমাজ দিন দিন বিপুলহারে মাদকের দিকে আসক্ত হচ্ছে এটা একটা কঠিন সামাজিক সমস্যার দিকে যাচ্ছে। এ বিষয়ে সকল পর্যায়ে সবাইকে সচেতনভাবে অগ্রসর হতে হবে। উপস্থিত সদস্যগণ এরূপ বক্তব্যের সাথে একমত পোষণ করেন এবং বলেন মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন জোরদার সহ মদ/গাজা বিক্রির বিভিন্ন স্পটে যেমন রেল কলোনী,বজিটিলা,জুড়ী স্কুল রোড় সহ অন্যান্য স্থানে নিয়মিত অভিযান পরিচালনার অনুরোধ সহ পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি ও মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর,কুলাউড়াকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ সহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

০১.পুলিশ বিভাগ

০২. বিজিবি

 

০৪.সভাপতি,দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি,জুড়ী বলেন, উপজেলা শহরের অবৈধ ফুটপাত দখলকারী এবং শিশু পার্ক দখলকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করে নির্বাহী প্রকৌশলী,সওজ বরাবর একটি আবেদন দাখিল করি। এ ব্যাপারে শ্রীঘ্রই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে মর্মে আশ্বাস প্রদান করেন। অবৈধ ফুটপাত দখল এবং শিশুপার্ক উদ্ধারে সুশীল সমাজের অংশগ্রহণে সকলের সহযোগীতা কামনা করেন। তিনি আরো বলেন দেশ-জাতি-সমাজের বিবেকমান মানুষের ঐক্যের স্রোতে সমূলে উৎপাটিত হবে দুর্নীতি করার প্রবণতা। এ মহতী কাজে সবার সহযোগীতা দরকার। সবাই মিলে সমাজ বিরোধীদের প্রতিরোধ করার অনুরোধ করেন।

 

সিদ্ধান্ত ঃ- (১) জুড়ী শহরের অবৈধ ফুটপাত উদ্ধার এবং শিশু পার্কের অবৈধ দখলকারের বিরুদ্ধে  দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলী, সওজ বিভাগকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান(ভাঃ) শহরের ফুটপাত অবৈধ দখলদারদের কাছ থেকে উদ্ধার করার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেন।  আইনশৃংখলা পরিস্থিতি উন্নয়নে বর্তমান সরকার অনেক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। সভার উদ্দ্যেশ্য ও গুরুত্ব  বিবেচনায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে গৃহীত সিদ্ধান্ত যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়মিত সভা করে আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ ও সন্ত্রাস প্রতিরোধে প্রত্যেক ইউনিয়নে  এবং উপজেলা ব্যাপী পুলিশের মাধ্যমে রনপাহারা জোরদার করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যান ও পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করেন।

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, জনমনে যাতে কোনরূপ ভীতি ও অসন্তোষ সৃস্টি না হয় সেদিকে দৃষ্টি রেখে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী দায়িত্ব পালন সহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার জন্য নিয়োজিত বাহিনীর কার্যক্রম যেন জবাবদিহির আওতায় থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

           সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি,গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অফিসার ইনচার্জ,জুড়ী থানাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানিয়ে এবং উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে সকলের সহায়তা কামনা করে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

 

 

( মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

সভাপতি

উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটি

জুড়ী,মৌলভীবাজার।

স্মারক নং- ৪৬.৬০,৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪-৯৫৮(৩০)                                                                                                             তারিখ-.০১.১০.২০১৪ খ্রিঃ।

 

বিতরনঃ-সদয় জ্ঞাতার্থেঃ-

০১. মাননীয় হুইপ,বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।

০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

০৩. জেলা প্রশাসক,মৌলভীবাজার।

০৪.  উপ পরিচালক,স্থানীয় সরকার শাখা,মৌলভীবাজার।

০৫. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান(ভাঃ),জুড়ী।

জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থেঃ-

০৬. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

০৭. উপজেলা ............................................... .  , জুড়ী।

০৮. অধ্যক্ষ/প্রধান শিক্ষক. . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .       কলেজ/উচ্চ বিদ্যালয়/মাদ্রাসা।

০৯. চেয়ারম্যান............................................. ইউ/পি,জুড়ী(সকল)।

 

উপস্থিত সদস্যবৃন্দের তালিকা

 

পরিশিষ্ট ‘ক’

০১. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান(ভাঃ)

 

১৭. চেয়ারম্যান, ফুলতলা ইউ/পি

১৮. কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।

১৯. সভাপতি,উপজেলা প্রেস ক্লাব।

২০. জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ,জুড়ী।

২১. জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুঃপ্রঃকঃ,জুড়ী।

২২. কমান্ডার,জুড়ী বিজিবি।

২৩. কমান্ডার,ফুলতলা বিজিবি।

 

 

০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।

০৩. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যা,উপজেলা পরিষদ।                                              

০৪. উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা

০৫. অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।

০৬. উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার

০৭. উপজেলা সমাজসেবা অফিসার

০৮. বন রেঞ্জ কর্মকর্তা,জুড়ী।

০৯. উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা।

১০. অধ্যক্ষ,টি এন খানম একাডেমী ডিগ্রী কলেজ,জুড়ী

১১. প্রধান শিক্ষক,জুড়ী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়।

১২. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি           

১৩. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি

১৪. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি

১৫. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি।

১৬. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

২৮.০৯.২০১৪ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভার কার্যবিবরণীঃ-

 

সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী।  

তারিখ   ঃ-     ২৮/০৯/২০১৪ খ্রিঃ, বেলা ১০.৩০ মিঃ।

স্থান     ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।

 

 সভাপতি  উপস্থিত সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরু করেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের (ভাঃ) চেয়ারম্যান,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,মিসেস রনজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। 

সভায় জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি, জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ, জনাব মোঃ ফয়াজ আলী,চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি, জনাব শাহাব উদ্দিন আহমেদ লেমন,চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি,জনাব মোঃ সালেহ উদ্দিন আহমেদ,চেয়ারম্যান পূর্বজুড়ী ইউ/পি,জনাব মোঃ নজমুল ইসলাম,চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি,বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার,জুড়ী/ফুলতলা, রেঞ্জ কর্মকর্তা এবং জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি,উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান(ভাঃ) সহ অন্যান্য গন্যমান্য সদস্যগণ আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

 

জুড়ী উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় সন্তোষ প্রকাশ করা হয়। উক্ত ধারা অব্যাহত রাখার নিমিত্তে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগীতা কামনা করা হয়। সভায় উপস্থিত সদস্যগণ আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা এবং পবিত্র ঈদ-উল আযহা অনুষ্ঠানকালে দুষ্কৃতকারীগণ কর্তৃক যাতে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে,জনসাধারণ যাতে শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠান উদ্যাপন করতে পারে সে লক্ষ্যে পূর্ব প্রস্ত্ততিসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। শারদীয় দুর্গাপূজা এবং পবিত্র ঈদ-উল-আযহা পাশাপাশি সময়ে একই সাথে হওয়ায় উপজেলা শহরে তীব্র যানজটের আশঙ্কা ব্যক্ত করা হয়। রেজিস্ট্রেশন বিহীন মোটর সাইকেল,ব্যাটারী চালিত রিকসা,ইজিবাইক,টমটম চলাচল নিয়ন্ত্রণ,ফুটপাত-রাস্তাঘাট যানজটমুক্ত রাখা,যানজট সৃষ্টি রোধ এবং সন্ত্রাসী চাঁদাবাজি,চুরি,ছিনতাইসহ সকল প্রকার অপরাধমূলক কার্যক্রম প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান।

 

অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সভায় তুলে ধরেন। তিনি বলেন উপস্থিত সকলের আলোচনা থেকে বুঝা যাচ্ছে, অন্য যে কোন উপজেলার চেয়ে জুড়ী উপজেলায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ভালো। রাষ্ট্রীয় সম্পদ ও জনগণের জীবন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। উপজেলার যে যে এলাকায় কথিত মৌলবাদী বিশৃংখলা সৃষ্টি করছে,পুলিশ বাহিনী দ্রুত ব্যবস্থাসহ সাম্প্রতিক সময়ে বিরাজমান সংকট নিরসন ও আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গন্যমান্য ব্যক্তিদের সম্পৃক্ত করে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে ।  রেল কলোনিতে গাঁজা ও মদ আটকে অভিযান পরিচালনা সহ সতর্ক দৃষ্টি রাখা হচ্ছে । সকল ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের এবং উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে পুলিশ বাহিনী নিয়মিত প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করছে, তাছাড়া সন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কার্মকান্ড,জঙ্গি তৎপরতাসহ জানমালের ক্ষয়ক্ষতি প্রতিরোধে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি সহ জনসাধারণকে সম্পৃক্ত করে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

 

০১

ক)জায়ফরনগর ইউনিয়নে হাসনাবাদ-বাহাদুরপুর এলাকার রাস্তায় স্কুল শিক্ষকের উপর আক্রমনকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তারসহ অপরাধীদেরকে আইনের আওতায় আনার জন্য এবং বর্ণিত এলাকায় পুলিশী টহল বৃদ্ধির জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

খ)স্ব স্ব ইউনিয়নে গরু চোরদের তালিকা করে তালিকা থানায় প্রেরণপূর্বক ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ গ্রাম পর্যায়ে কমিটি করে নৈশকালীন পাহারা জোরদারের ব্যবস্থা গ্রহণ সহ রাত্রীকালিন সময়ে পুলিশ টহল বৃদ্ধির জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা ও  সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

গ)রাষ্ট্রীয় সম্পদ ও জনগণের জীবন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ,সহনশীলতা ও পরমত সহিষ্ণুতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ব্যাপক প্রচারণাও জনসংযোগ অব্যাহত রাখা সহ জনমনে যাতে কোনরূপ ভীতি ও অসন্তোষ সৃস্টি না হয় সেদিকে দৃষ্টি রেখে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী দায়িত্ব পালন সহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার জন্য নিয়োজিত বাহিনীর কার্যক্রম যেন জবাব দিহির আওতায় থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখার অনুরোধ পূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ঘ)রেজিস্ট্রেশন বিহীন মোটর সাইকেল,ইজিবাইক,টমটম,ব্যাটারী চালিত রিকসা চলাচল নিয়ন্ত্রণ,ফুটপাত-রাস্তাঘাট যানজটমুক্ত রাখা,যানজট সৃষ্টি রোধ, বিদ্যুৎ স্বাভাবিক রাখা এবং সন্ত্রাসী,চাঁদাবাজি,চুরি,ছিনতাইসহ সকল প্রকার অপরাধমূলক কার্যক্রম প্রতিরোধ করার লক্ষ্যে অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত  হয়।

 

 

 

পুলিশ বিভাগ/

নির্বাহী    প্রকৌশলী ,বিউবো,কুলাউড়া /জি,এম,পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি,বড়লেখা/

ইউ/পি

চেয়ারম্যান (সকল)

 

         

০২.ইউনিয়ন আইন-শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠান প্রসংগেঃইউনিয়ন আইন-শৃংখলা সংক্রান্ত সভা অনুষ্ঠানের বিষয়ে সভায় আলোচনা করা হয়।

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

০১

ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ সংশ্লিষ্ট সদস্যগণকে সভার নোটিশ নিয়ে প্রতি মাসে ইউনিয়ন পর্য়ায়ে আইন-শৃংখল/চোরাচালান প্রতিরোধ সংক্রান্ত সভা অনুষ্ঠান করবেন এবং প্রতিমাসের ৩০ তারিখের পূবে আবশ্যিকভাবে সভার কার্যবিবরণী / সার্ভিস রিটার্ণ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে দাখিল এবং উপজেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত আইন-শৃংখলা,চোরাচালান ও সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকার পুনঃ অনুরোধসহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

ইউ/পি চেয়ারম্যান(সকল)

 

 

 

(২)

সভায় বলা হয় কচুরগুল এলাকা থেকে বিজিবি, জনৈক ব্যক্তির বাড়ী থেকে প্রায় ১০/১৫ ফুট ব্যক্তি মালিকানা গাছ ধরে ক্যাম্পে নিয়ে আসেন। আইন-শৃংখলা কমিটির বিভিন্ন সভায় এ ব্যাপারে বার বার আলাপ করার পরও বিজিবি সাধারণ মানুষকে ব্যক্তি মালিকানাধীন গাছ ধরে হয়রানি করছেন।

 

 

        ০৩.মোবাইল কোর্ট সংক্রান্তঃ- উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান,জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট অব্যাহত আছে।

 

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

০১

জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত থাকবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

 

 

 

০২

 

ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ স্ব স্ব অধিক্ষেত্রের বাজার ব্যবসায়ীদের মূল্য তালিকা টানানোর বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

ইউ/পি চেয়ারম্যান(সকল)

 

০৩

গভীর উৎকন্ঠার সাথে বলা হয়,জুড়ী উপজেলায় বিভিন্ন স্পটে ইদানিং মাদকের ব্যাপক বিস্তার লাভ করছে। যুব সমাজ দিন দিন বিপুলহারে মাদকের দিকে আসক্ত হচ্ছে এটা একটা কঠিন সামাজিক সমস্যার দিকে যাচ্ছে। এ বিষয়ে সকল পর্যায়ে সবাইকে সচেতনভাবে অগ্রসর হতে হবে। উপস্থিত সদস্যগণ এরূপ বক্তব্যের সাথে একমত পোষণ করেন এবং বলেন মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন জোরদার সহ মদ/গাজা বিক্রির বিভিন্ন স্পটে নিয়মিত অভিযান পরিচালনার অনুরোধ সহ পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি কর্তৃপক্ষকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ সহ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

০১.পুলিশ বিভাগ

০২. বিজিবি

 

০৪.বন রেঞ্জ কর্মকর্তা বলেন জুড়ী রেঞ্জে ২০১২-১৩ সালের পর চলতি অর্থ বছর পর্যন্ত উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডের জন্য কোন অর্থ বরাদ্দ পাওয়া যায় নাই। বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে বনায়নের কাজ শুরু হবে। তাছাড়া জুড়ী রেঞ্জের আওতাধীন বীটসমূহে বর্তমানে কোন অবৈধ গাছ বাঁশ কর্তন নেই। মাঝে মধ্যে সাগরনাল বীটে স্থানীয় কিছু দুষ্কৃতিকারী গাছচোরের সহায়তায় কুলাউড়া হতে আসিয়া গাছ কাটার চেষ্টা করে। এ ব্যাপারে সাগরনাল ইউ/পি চেয়ারম্যান সাহেবের সহযোগীতা কামনা করেন। ।

সভাপতি,দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি,জুড়ী বলেন, কয়েক দিন পূর্বে আমি প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী,সওজ,মৌলভীবাজার বরাবর দেখা করি এবং উপজেলা শহরের অবৈধ ফুটপাত দখলকারী এবং শিশু পার্ক দখলকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করে একটি আবেদন দাখিল করি। এ ব্যাপারে শ্রীঘ্রই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে মর্মে আশ্বাস প্রদান করেন। অবৈধ ফুটপাত দখল এবং শিশুপার্ক উদ্ধারে সুশীল সমাজের অংশগ্রহণে সকলের সহযোগীতা কামনা করেন। তাছাড়া বাল্যবিবাহ রোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ,টিলা কেটে মাঠি কাটা বন্ধ রোধ সহ অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের  জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেন।

সিদ্ধান্ত ঃ- (১) জুড়ী শহরের অবৈধ ফুটপাত উদ্ধার এবং শিশু পার্কের অবৈধ দখলকারের বিরুদ্ধে  দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলী, সওজ বিভাগকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

   (২)  সরকারী বনাঞ্চলে যাতে অবৈধভাবে গাছ কর্তন না হয় সেই বিষয়ে বন বিভাগকে তৎপর থাকার জন্য রেঞ্জ কর্মকর্তাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়     

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, জনমনে যাতে কোনরূপ ভীতি ও অসন্তোষ সৃস্টি না হয় সেদিকে দৃষ্টি রেখে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী দায়িত্ব পালন সহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার জন্য নিয়োজিত বাহিনীর কার্যক্রম যেন জবাবদিহির আওতায় থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। আইনশৃংখলা পরিস্থিতি উন্নয়নে বর্তমান সরকার অনেক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। সভার উদ্দ্যেশ্য ও গুরুত্ব  বিবেচনায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে গৃহীত সিদ্ধান্ত যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়মিত সভা করে আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ ও সন্ত্রাস প্রতিরোধে প্রত্যেক ইউনিয়নে এবং উপজেলা ব্যাপী পুলিশের মাধ্যমে রনপাহারা জোরদার করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যান ও পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করেন।

           সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি,গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অফিসার ইনচার্জ,জুড়ী থানাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানিয়ে এবং উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে সকলের সহায়তা কামনা করে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

 

 

 

( মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

সভাপতি

উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটি

জুড়ী,মৌলভীবাজার।

 

স্মারক নং- ৪৬.৬০,৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪-                                                                                                          তারিখ-০১.১০.২০১৪ খ্রিঃ।

 

বিতরনঃ-সদয় জ্ঞাতার্থেঃ-

০১. মাননীয় হুইপ,বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।

০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

০৩. জেলা প্রশাসক,মৌলভীবাজার।

০৫.  উপ পরিচালক,স্থানীয় সরকার শাখা,মৌলভীবাজার।

০৬. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান(ভাঃ),জুড়ী।

জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থেঃ-

০৭. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

০৮. উপজেলা ............................................... .  , জুড়ী।

০৯. অধ্যক্ষ/প্রধান শিক্ষক. . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .       কলেজ/উচ্চ বিদ্যালয়/মাদ্রাসা।

১০. চেয়ারম্যান............................................. ইউ/পি,জুড়ী(সকল)।

 

উপস্থিত সদস্যবৃন্দের তালিকা

 

পরিশিষ্ট ‘ক’

০১. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান(ভাঃ)

 

১৭. চেয়ারম্যান, ফুলতলা ইউ/পি

১৮. কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।

১৯. সভাপতি,উপজেলা প্রেস ক্লাব।

২০. জনাব আলহাজ্ব সফিক আহমেদ,জুড়ী।

২১. জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুঃপ্রঃকঃ,জুড়ী।

২২. কমান্ডার,জুড়ী বিজিবি।

২৩. কমান্ডার,ফুলতলা বিজিবি।

 

 

০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।

০৩. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যা,উপজেলা পরিষদ।                                              

০৪. উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা

০৫. অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।

০৬. উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার

০৭. উপজেলা সমাজসেবা অফিসার

০৮. বন রেঞ্জ কর্মকর্তা,জুড়ী।

০৯. উপজেলা আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা।

১০. অধ্যক্ষ,টি এন খানম একাডেমী ডিগ্রী কলেজ,জুড়ী

১১. প্রধান শিক্ষক,জুড়ী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়।

১২. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি           

১৩. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি

১৪. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি

১৫. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি।

১৬. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

২৮.০৮.২০১৪ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভার কার্যবিবরণীঃ-

 

সভাপতিঃ-     মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম,উপজেলা নির্বাহী অফিসার,জুড়ী।

তারিখ   ঃ-     ২৮/০৮/২০১৪ খ্রিঃ, বেলা ১০.৩০ মিঃ।

স্থান     ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  উপস্থিতিঃ- পরিশিষ্ট ‘‘ ক ’’ দ্রষ্টব্য।

            

 সভাপতি  উপস্থিত সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরু করেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের (ভাঃ) চেয়ারম্যান,জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,মিসেস রনজিতা শর্ম্মা। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। 

অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সভায় তুলে ধরেন। তিনি জানান,জুড়ী উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ভালো। জনমনে যাতে কোনরুপ ভীতি ও অসন্তোষ সৃষ্টি না হয় সে দিকে সতর্ক দৃষ্টি রেখে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী দায়িত্ব পালন করছে। জুড়ী থানায় মামলা হয়েছে ০৯ টি,তন্মধ্যে ০৬টি মাদক মামলা,থানায় ৩৫৪ টি পেন্ডিং মামলার মধ্যে ১৪১ জন ওয়ারেন্ট আসামী ধরে চালান দেওয়া হয়েছে। রেল কলোনিতে গাঁজা ও মদ আটকে অভিযান পরিচালনা সহ সতর্ক দৃষ্টি রাখা হবে। সকল ইউনিয়ন/ওয়ার্ড পর্যায়ের এবং উপজেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটিকে দায়িত্ব পালনে পুলিশ বাহিনী নিয়মিত প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করছে, তাছাড়া সন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কার্মকান্ড,জঙ্গি তৎপরতাসহ জানমালের ক্ষয়ক্ষতি প্রতিরোধে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি সহ জনসাধারণকে সম্পৃক্ত করে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

০১

রাষ্ট্রীয় সম্পদ ও জনগণের জীবন ও সম্পত্তির নিরাপত্তা বিধানকল্পে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ,সহনশীলতা ও পরমত সহিষ্ণুতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ব্যাপক প্রচারণাও জনসংযোগ অব্যাহত রাখা সহ জনমনে যাতে কোনরূপ ভীতি ও অসন্তোষ সৃস্টি না হয় সেদিকে দৃষ্টি রেখে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী দায়িত্ব পালন সহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার জন্য নিয়োজিত বাহিনীর কার্যক্রম যেন জবাব দিহির আওতায় থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখার অনুরোধ পূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

০১.পুলিশ বিভাগ

০২.ইউ/পি

 চেয়ারম্যান(সকল)

 

০২.মোবাইল কোর্ট সংক্রান্তঃ- উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান,জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট অব্যাহত আছে।

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

০১

জুড়ী উপজেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত থাকবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

 

 

০২

ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ স্ব স্ব অধিক্ষেত্রের বাজার ব্যবসায়ীদের মূল্য তালিকা টানানোর বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

ইউ/পি চেয়ারম্যান(সকল)

 

০৩.ইউনিয়ন আইন-শৃংখলা কমিটির সভা অনুষ্ঠান প্রসংগেঃইউনিয়ন আইন-শৃংখলা সংক্রান্ত সভা অনুষ্ঠানের বিষয়ে সভায় আলোচনা করা হয়।

ক্রঃনং

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

০১

ইউ/পি চেয়ারম্যানগণ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে প্রতি মাসে ইউনিয়ন পর্য়ায়ে আইন-শৃংখলা সংক্রান্ত সভা অনুষ্ঠান করবেন এবং উপজেলা পর্যায়ে অনুষ্ঠিত আইন-শৃংখলা,চোরাচালান ও সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটির সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকার অনুরোধ করা হয়।

 

ইউ/পি চেয়ারম্যান(সকল)

 

 

 

০৪.বন রেঞ্জ কর্মকর্তা বলেন,হাকালুকি হাওরে বর্ষা মৌসুমে বে-আইনীভাবে রাতের অন্ধকারে জাল টেনে মাছ ধরার ফলে যেমন মৎস্য সম্পদ বৃদ্ধিতে ব্যাঘাত সৃষ্টি হচ্ছে একই সাথে হাকালুকি হাওড়ে বন বিভাগ কর্তৃক সৃজিত মুর্তা বাগান ও হিজল করচ বাগানের মধ্যে জাল টানার ফলে রোপিত মুর্তা চারাগুলো উঠে বাগান ধ্বংস হচ্ছে। জেলেরা সংঘবদ্ধভাবে রাতে জাল টানার ফলে হাওর এলাকায় মুর্তা বাগান প্রকল্পের অধীনে সৃজিত বাগান ধ্বংস হচ্ছে। মৎস্য সম্পদের পাশাপাশি হাওড়ে সৃজিত বন বাগান রক্ষার্থে উপজেলা প্রশাসন,পুলিশ প্রশাসন,সংশ্লিষ্ট ইউ/পি চেয়ারম্যান,স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও হাওর রক্ষা কমিটির সার্বিক সহযোগীতা কামনা করেন।

চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি বলেন.লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয়ে হাওরে বনায়ন করে যদি জনগণের কোন উপকার না হয় তাহলে বনায়ন করে কি লাভ ?। ইউ/পি চেয়ারম্যান কর্তৃক মালিকানা গাছের প্রত্যয়ন দেওয়া সত্ত্বেও তা বন বিভাগ এবং বিজিবি কর্তৃক চোরাই/ভারতীয় গাছ বলে ধরা হয়। গ্রামের সাধারণ গরীব মানুষ যাতে বন বিভাগ এবং বিজিবি কর্তৃক হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে লক্ষ রাখার জন্য রেঞ্জ কর্মকর্তা ও বিজিবি কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেন।

চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি বলেন,আমার উপর যে ছেলেটি হামলা করেছিল সে প্রতিনিয়ত এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। সাগরনাল স্কুলে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের ক্লাস রুম বন্ধ করে পিস্তল ঠেকিয়ে হুমকি প্রদর্শন করে। তিনি এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টিকারী ব্যক্তিকে আইনের আওতায় আনার অনুরোধ করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, হাওড়ে গাছ লাগাতে হলে, প্রহরীর ব্যবস্থা করতে হবে যাতে গাছগুলো টিকে থাকে এবং বড় বড় চারা লাগানো প্রয়োজন। বাস্তবতার সাথে মিল রেখে হাওড় অঞ্চলে বনায়ন করা প্রয়োজন। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর জানানোর জন্য রেঞ্জ কর্মকর্তাকে অনুরোধ করেন।

সভাপতি,দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি বলেন,সাগরনাল ইউ/পি চেয়ারম্যানের উপর যে হামলা হয়েছে তা ন্যাক্যারজনক। ঐ হামলাকারী আবার স্কুলে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদেরকে আতংক করছে,একে শ্রীঘ্রই আইনের আওতায় আনা প্রয়োজন। তাছাড়া বাল্যবিবাহ রোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া,মোটরসাইকেল চোরদের ধরা,টিলা কেটে মাঠি কাটা বন্ধ রোধ সহ অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের  অনুরোধ করেন।                    

সিদ্ধান্তঃ- (১)  হাওড়ে গাছ লাগাতে হলে, প্রহরীর ব্যবস্থা করতে হবে যাতে গাছগুলো টিকে থাকে এবং বড় বড় চারা লাগানো প্রয়োজন। বাস্তবতার সাথে মিল রেখে হাওড় অঞ্চলে বনায়ন করা প্রয়োজন। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর জানানোর জন্য রেঞ্জ কর্মকর্তাকে অনুরোধ পূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

( ২ )

(২) সাগরনাল ইউ/পি চেয়ারম্যানের উপর হামলাকারী সহ এলাকায় সন্ত্রাসসৃষ্টিকারীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত                                                                                                                                                                  

 

৫.জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ বলেন, সাধারণতঃ ইউ/পি চেয়ারম্যানের প্রত্যয়নকৃত গাছ/ দেশী প্রজাতির গাছ বিজিবি কিংবা বন বিভাগ না ধরলেও পারেন। ভারতীয় গাছ ধরতে কোন আপত্তি নেই। এ ব্যাপারে বন বিভাগ ও বিজিবি কর্তৃপক্ষের সহযোগীতা কামনা করেন।

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে উপজেলা পরিষদের(ভাঃ) চেয়ারম্যান জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি বলেন,সাগরনাল ইউ/পি চেয়ারম্যান সাহেব যে অভিযোগ করেছেন,সেই ছেলের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাসহ মোটর সাইকেল চোরদের আইনের আওতায় আনার জন্য অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানাকে অনুরোধ করেন। তাছাড়া তিনি আরো বলেন সরকারী বীট স্থাপনের বিষয়ে ফুলতলাবাসী আবেদন করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শহরের ফুটপাত অবৈধ দখলদারদের কাছ থেকে উদ্ধার করার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেন।  আইনশৃংখলা পরিস্থিতি উন্নয়নে বর্তমান সরকার অনেক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। সভার উদ্দ্যেশ্য ও গুরুত্ব  বিবেচনায় আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে গৃহীত সিদ্ধান্ত যথাযথভাবে বাস্তবায়ন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়মিত সভা করে আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ ও সন্ত্রাস প্রতিরোধে প্রত্যেক ইউনিয়নে  এবং উপজেলা ব্যাপী পুলিশের মাধ্যমে রনপাহারা জোরদার করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যান ও পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করেন।

সিদ্ধান্ত  ঃ- জুড়ী শহরের অবৈধ ফুটপাত উদ্ধারে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্বাহী প্রকৌশলী,সওজ বিভাগকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন জনমনে যাতে কোনরূপ ভীতি ও অসন্তোষ সৃস্টি না হয় সেদিকে দৃষ্টি রেখে আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী দায়িত্ব পালন সহ আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার জন্য নিয়োজিত বাহিনীর কার্যক্রম যেন জবাবদিহির আওতায় থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

           সভায় আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি,গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে অফিসার ইনচার্জ,জুড়ী থানাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ জানিয়ে এবং উপজেলার সার্বিক আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে সকলের সহায়তা কামনা করে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

 

( মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

সভাপতি

উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটি

জুড়ী,মৌলভীবাজার।

 

স্মারক নং- ৪৬.৬০,৫৮৩৫.০০৩.০১.০১০.২০১৪-                                                                                          তারিখ-১৬.০৯.২০১৪ খ্রিঃ।

 

বিতরনঃ-সদয় জ্ঞাতার্থেঃ-

০১. মাননীয় হুইপ,বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ( মাননীয় সংসদ সদস্য-২৩৫,মৌলভীবাজার-১)।

০২. কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

০৩. জেলা প্রশাসক,মৌলভীবাজার।

০৪. নির্বাহী প্রকৌশলী,সওজ বিভাগ,মৌলভীবাজার।

০৫.  উপ পরিচালক,স্থানীয় সরকার শাখা,মৌলভীবাজার।

০৬. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান(ভাঃ),জুড়ী।

জ্ঞাতার্থে ও কার্যার্থেঃ-

০৭. ভাইস চেয়ারম্যান/মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

০৮. উপজেলা ..............................................কর্মকর্তা,জুড়ী।

০৯. অধ্যক্ষ/প্রধান শিক্ষক. . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .       কলেজ/উচ্চ বিদ্যালয়/মাদ্রাসা।

১০. চেয়ারম্যান............................................. ইউ/পি,জুড়ী(সকল)।

১১. জনাব ........................................................................

    

উপস্থিত সদস্যবৃন্দের তালিকা

 

পরিশিষ্ট ‘ক’

০১. উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান(ভাঃ)

 

১৪. চেয়ারম্যান, ফুলতলা ইউ/পি

১৫. কমান্ডার,মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।

১৬. সভাপতি,উপজেলা প্রেস ক্লাব।

১৭. জনাব আলহাজ্ব আজির উদ্দিন আহমেদ,জুড়ী।

১৮. জনাব আলহাজ্ব তাজুল ইসলাম,সভাপতি,দুঃপ্রঃকঃ,জুড়ী।

১৯. কমান্ডার,জুড়ী বিজিবি।

২০. কমান্ডার,ফুলতলা বিজিবি।

 

 

০২. উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জুড়ী।

০৩. মহিলা ভাইস চেয়ারম্যা,উপজেলা পরিষদ।                                              

০৪. উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা পক্ষে মেডিকেল অফিসার

০৫. উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার

০৬. উপজেলা সমাজসেবা অফিসার

০৭. অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।

০৮. প্রধান শিক্ষক,জুড়ী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়।

০৯. চেয়ারম্যান,জায়ফরনগর ইউ/পি            

১০. চেয়ারম্যান,পশ্চিমজুড়ী ইউ/পি

১১. চেয়ারম্যান,পূর্বজুড়ী ইউ/পি

১২. চেয়ারম্যান,গোয়ালবাড়ী ইউ/পি।

১৩. চেয়ারম্যান,সাগরনাল ইউ/পি

 

 

২৪.০৭.২০১৪ খ্রিঃ তারিখে অনুষ্ঠিত জুড়ী উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভার কার্যবিবরণী ঃ-

সভাপতি ঃ-     মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম

                   উপজেলা নির্বাহী অফিসার

                   জুড়ী, মৌলভীবাজার।

স্থান      ঃ-     উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষ,  তারিখ ঃ- ২৪.০৭.২০১৪ খ্রিঃ, বেলা ১০.৩০ মিঃ।

                    উপস্থিত সদস্যগণকে স্বাগত জানিয়ে সভার কাজ শুরু করা হয়। সভায় বিগত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করা হয় এবং কোন সংশোধনী না থাকায় সর্বসম্মতভাবে তা অনুমোদিত হয়। সভাপতি প্রথমেই জুড়ী উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির দিকে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে সাধারন বক্তব্য উপস্থাপন করেন উপজেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে  বিস্তারিত আলোচনা ও গুরুত্বারোপ করা হয় এবং নিম্নবর্ণিত বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

ক্রঃ

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়ন

 

০১

              অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানার পক্ষে এস আই বলেন জুড়ী উপজেলায় পুলিশের জনবল খুবই কম। সীমিত জনবল দিয়ে আমরা আমাদের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছি। তথাপি উপজেলায় সার্বিক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি মোটামুটি সন্তোষ জনক। জনগণের জান-মালের নিরাপত্তায় আমরা সর্বদা কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আরো বলেন সড়ক দুর্ঘটনা রোধকল্পে প্রতি সপ্তাহে মটর সাইকেল ও অন্যান্য যানবাহনে তল্লাশিসহ কাগজাদি চেক করা হচ্ছে,চুরি ডাকাতি রোধকল্পে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ সহ পুলিশী নজরদারী বৃদ্ধি করা হয়েছে। সার্বিকভাবে এলাকার জনসাধারণ,জনপ্রতিনিধি সহ সকলের সহযোগীতায় অন্যান্য উপজেলার চেয়ে আইন-শৃংখলার দিকে আমরা ভালো আছি পাশাপাশি আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

             উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন ঈদ উপলক্ষ্যে অপরিচিত লোকের আসা-যাওয়া বৃদ্ধি পায়। অপরিচিত লোকের গতিবিধি লক্ষ্য রাখতে হবে।  উপজেলায় যে কোন অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সংবাদ প্রাপ্তির সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পোঁছার এবং ধৈয্য ও সাহসিকতার সাথে পরিস্থিতি মোকাবেলা করার অনুরোধ করেন।  আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করতে হবে এবং সে লক্ষ্যে সকলকে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে। তিনি সম্মানিত সকল ইউ/পি চেয়ারম্যানগণের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন স্ব স্ব ইউনিয়েনের আওতাধীন সকল মসজিদের ঈমাম সাহেবদেব নিয়ে জঙ্গীবাদ বিরোধী সমাবেশ করবেন এবং প্রত্যেক জুম্মার নামাজের খুতবার আগে সম্মানিত ঈমামগণ যাতে অন্ততঃ ৫ মিনিট জঙ্গীবাদ বিরোধী বক্তব্য দেন সে বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

 

১.সাম্প্রতিক সময়ে বিরাজমান পরিস্থিতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখার স্বার্থে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি,গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ,মসজিদের ইমাম ও অন্যান্য ধর্মী নেতাদের সমন্বয়ে জনসাধারণকে সম্পৃক্ত করে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য এবং অপরাধ প্রবণতা নিয়ন্ত্রণে রাখতে অপরাধ প্রবণ এলাকা চিহ্নিত করে পুলিশী টহল জোরদার করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

২. হরতাল কর্মসূচী আহবান করার প্রেক্ষিতে নাশকতামূলক পরিস্থিতি মোকাবেলায় আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সংবাদ প্রাপ্তির সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পৌঁছার এবং ধৈর্য ও সাহসিকতার সাথে পরিস্থিতি মোকাবেলা করার অনুরোধ জানানো হয়।

 

১.অফিসার ইন চার্জ,জুড়ী থানা।

 

 

২. ইউ/পি

চেয়ারম্যান

(সকল)

 

 

 

০২

  জনাব  আলহাজ্ব আজির উদ্দিন বলেন সাম্প্রতিক সময়ে কিছু দুঃস্কৃতিকারী কর্তৃক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি অবনতির লক্ষ্যে নাশকতামূলক কর্মকান্ডের চেষ্টা করা হচ্ছে। আগামী ১২,১৩ ও ১৪ তারিখ ভূয়াই,মানিকসিংহ ও গেয়ালবাড়ীতে স্টাইকিং ফোর্স এবং পবিত্র  ঈদ উপলক্ষ্যে যাতে যাত্রীরা নিরাপদে যাতায়াত করতে পারে সেজন্য স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েনের জন্য পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করেন।

 

            আলোচনায় অংশগ্রহণ করে জনাব বদরুল হোসেন বলেন সাম্প্রতিক সময়ে একটি গোষ্ঠী দেশের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ঘোলাটে করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। অহেতুক কোন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড সৃষ্টি করে রাজনৈতিক পরিস্থিতি ঘোলাটে করা যাবে না। সন্ত্রাসী কোন রাজনৈতিক দলের হতে পারে না। সকল অপপ্রচারের বিরুদ্ধে আমাদের রুখে দাঁড়াতে হবে। সন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কার্মকান্ড,জঙ্গি তৎপরতাসহ জানমালের ক্ষয়ক্ষতি প্রতিরোধে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধিসহ আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সদা সতর্কাবস্থায় দায়িত্ব পালন করার জন্য অনুরোধ করেন।

           

  জনাব  আলহাজ্ব আজির উদ্দিন বলেন সাম্প্রতিক সময়ে কিছু দুঃস্কৃতিকারী কর্তৃক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি অবনতির লক্ষ্যে নাশকতামূলক কর্মকান্ডের চেষ্টা করা হচ্ছে। আগামী পবিত্র  ঈদ উপলক্ষ্যে যাতে যাত্রীরা নিরাপদে যাতায়াত করতে পারে সেজন্য স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েনের জন্য পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করেন।

 

            আলোচনায় অংশগ্রহণ করে জনাব বদরুল হোসেন বলেন সাম্প্রতিক সময়ে একটি গোষ্ঠী দেশের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ঘোলাটে করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। অহেতুক কোন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড সৃষ্টি করে রাজনৈতিক পরিস্থিতি ঘোলাটে করা যাবে না। সন্ত্রাসী কোন রাজনৈতিক দলের হতে পারে না। সকল অপপ্রচারের বিরুদ্ধে আমাদের রুখে দাঁড়াতে হবে। সন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কার্মকান্ড,জঙ্গি তৎপরতাসহ জানমালের ক্ষয়ক্ষতি প্রতিরোধে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধিসহ আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সদা সতর্কাবস্থায় দায়িত্ব পালন করার জন্য অনুরোধ করেন।

            আলোচনায় অংশগ্রহণ করে আলহাজ্ব সফিক আহমদ বলেনহরতাল কর্মসূচী আহবান করার প্রেক্ষিতে যে সব স্থানে পিকেটিং হয় সে সকল স্পটে নাশকতামূলক পরিস্থিতি মোকাবেলায় পুলিশ মোতায়েন করার অনুরোধ করেন।

    ১.সাম্প্রতিক সময়ে বিরাজমান পরিস্থিতিতেসন্ত্রাসী ও নাশকতামূলক কার্মকান্ড,জঙ্গি তৎপরতাসহ জানমালের ক্ষয়ক্ষতি প্রতিরোধেগোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি সহ জনসাধারণকে সম্পৃক্ত করে নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

     ২. জামাত শিবিরের সম্ভাব্য ধ্বংসাত্নক ও নাশকতামূলক কর্যকলাপ প্রতিরোধে সতর্কতা অবলম্বনসহ পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধপূর্বক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

 

 

 

 

 

পুলিশ বিভাগ

চেয়ারম্যান

সকল ইউ/পি

 

০৩.আলোচনায় অংশগ্রহণ করে  জনাব কিশোর রায় চৌধুরী মনি,আহবায়ক,উপজেলা স্বেচ্চাসেবক লীগ এবং চেয়ারম্যান,ফুলতলা ইউ/পি বলেন রাঘনা বটুলী চেক পো্ষ্ট দিয়ে ভারতীয় নাগরিকগণ বাংলাদেশে আগমন করতে পারলেও বাংলাদেশী নাগরিকদের ভারতে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয় না। এক সময় ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট চালু থাকলেও বিগত সরকারের আমলে তা বন্ধ হয়ে যায়। বর্তমানে উক্ত চেক পোষ্টের পার্শ্ববর্তী এলাকার জনসাধারণের জন্য ভারতে অবস্থানরত তাদের আত্নীয়-স্বজনের সঙ্গে সাক্ষাৎ বা ব্যবসা বাণিজ্যের কাজে ভারতে যাওয়া অত্যন্ত অসুবিধাজনক হয়ে পড়েছে। এ অঞ্চলের মানুষ দুর্ভোগ পোয়াচ্ছে এবং এ ধরণের একতরফা সুবিধা স্থানীয় জনসাধারণের মধ্যে ব্যাপক অসন্তষ্টি পরিলক্ষিত হয়। রাঘনা বটুলী চেকপোষ্ট দিয়ে গরু /মহিষ করিডরের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলে সরকার প্রচুর রাজস্ব পাবে। তাছাড়া চোরাইপথে গরু/মহিষ আসা যাওয়া করার ফলে বিভিন্ন সময় নানা ধরনের অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটে এবং সরকার বিপুল পরিমাণে রাজস্ব হারায়। তাই বাংলাদেশের নাগরিকদের বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের বটুলী চেকপোষ্ট  দিয়ে ভারতে প্রবেশের ইমিগ্রেশন সুবিধা সহ গরু/মহিষ আসাযাওয়ার জন্য করিডর স্থাপনের  জন্য জরুরী উদ্যোগ গ্রহণের অনুরোধ করেন।  

সিদ্ধান্তঃ-  বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের বটুলী চেকপোষ্ট  দিয়ে ভারতে প্রবেশের ইমিগ্রেশন সুবিধা নিশ্চিত করা সহ রাঘনা বটুলী চেকপোষ্ট দিয়ে গরু/মহিষ করিডরের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলা প্রশাসক মহোদয়ের মাধ্যমে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

আলোচনায় অংশগ্রহণ করে জনাব  আলহাজ্ব আজির উদ্দিন বলেন বাছিরপুর নিবাসী জনৈক জয়নাল মিয়ার মেয়ে স্কুল হতে যাওয়ার পথে কে বা কাহারা জোরপূর্বকভাবে চট্রগ্রামে নিয়ে যায়। বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করা হলে তিনি ব্যক্তিগত ও কর্তৃপক্ষের  উদ্যোগে অপহৃত মেয়েটিকে উদ্ধার করে আইনগত ভাবে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়। এ ব্যাপারে তিনি অফিসার ইন চার্জ জুড়ী থানোকে ধন্যবাদ জানান।

উপজেলা চেয়ারম্যান  বলেন ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়মিত সভা করে আইন-শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ এবং গ্রাম এলাকায় গরু চুরি,ডাকাতি ও ছিনতাই ইত্যাদি রোধে প্রত্যেক ইউনিয়নের তালিকাভূক্ত চি‎‎হ্নত চুরের তালিকা থানায় প্রেরণ এবং উপজেলা ব্যাপী পুলিশের মাধ্যমে রনপাহারা জোরদার করার জন্য সকল ইউ/পি চেয়ারম্যান ও পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করেন। তিনি আরো বলেন আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অনেক বিভাগ কাজ করলেও পুলিশ বিভাগ এর সাথে বেশী সম্পৃক্ত। জনগণ যদি বলে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে তা হলেই বুঝতে হবে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির প্রকৃত উন্নয়ন হয়েছে। পরিসংখ্যান দিয়ে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি পরিমাপ করা যায় না। তিনি সকল জনসাধারণকে এবং জনপ্রতিনিধিদেরকে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির উন্নয়নে এগিয়ে আসার অনুরvাধ করেন।

সভাপতি  আইন-শৃংখলা  কমিটির সভায়  গৃহীত   সিদ্ধান্ত সমূহ বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট  সকলকে অনুরোধপূর্বক আর কোন আলোচ্য বিষয় না থাকায় ধন্যবাদ জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোণনা করেন।

                     

( মোহাম্মদ শহিদুল ইসলাম )

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

সভাপতি

উপজেলা আইন শৃংখলা কমিটি

জুড়ী,মৌলভীবাজার।

       ফোন-০৮৬২৭-৫৭০০১(অফিস)

স্মারক নং-                                                                                                                                                তারিখ- ২৭.০৭.২০১৪ খ্রিঃ।

অনুলিপিঃ- সদয় অবগতির জন্য।

 

১। মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য,মৌলভীবাজার-১(জুড়ী-বড়লেখা)।

২। বিভাগীয় কমিশনার, সিলেট বিভাগ, সিলেট।

৩। জেলা প্রশাসক, মৌলভীবাজার।

৪। পুলিশ সুপার, মৌলভীবাজার।

৫। চেয়ারম্যান ,উপজেলা পরিষদ  ,জুড়ী।

অবগতি ও কার্যার্থেঃ-

৬ ।  ভাইস চেয়ারম্যান/ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান,উপজেলা পরিষদ,জুড়ী।

৭ ।  অধ্যক্ষ,. . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . .. . . . . . . . . .

৮ ।  উপজেলা -------------    ------------------------- কর্মকর্তা, জুড়ী।

৯ ।  চেয়ারম্যান,------------------------------------ইউ/পি(সকল) জুড়ী।

১০। জনাব .................................................................................